• বুধবার, আগস্ট ২১, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:৪৩ রাত

একনেকে ১০ হাজার কোটি টাকার ৭ প্রকল্প অনুমোদন

  • প্রকাশিত ০৫:৪৭ সন্ধ্যা এপ্রিল ৩০, ২০১৯
একনেক
প্রধানমন্ত্রী ও একনেক চেয়ারপারসন শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে মঙ্গলবার (৩০ এপ্রিল) রাজধানীর এনইসি সম্মেলন কক্ষে জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) সভা অনুষ্ঠিত হয়। ফোকাস বাংলা

মঙ্গলবার (৩০ এপ্রিল) রাজধানীর শেরেবাংলা নগরে এনইসি সম্মেলন কক্ষে একনেক সভায় এসব প্রকল্পের অনুমোদন দেওয়া হয়

প্রধানমন্ত্রী ও জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) চেয়ারপারসন শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে ১০ হাজার ১১৬ কোটি টাকা ব্যয়ের ৭টি প্রকল্প অনুমোদন করেছে একনেক। 

মঙ্গলবার (৩০ এপ্রিল) রাজধানীর শেরেবাংলা নগরে এনইসি সম্মেলন কক্ষে একনেক সভায় এসব প্রকল্পের অনুমোদন দেওয়া হয়। এর মধ্যে সরকারের নিজস্ব তহবিল (জিওবি) থেকে চার হাজার ৪০৬ কোটি টাকা, সংস্থার নিজস্ব তহবিল থেকে ৪৯০ কোটি টাকা এবং প্রকল্প ঋণ বাবদ পাঁচ হাজার ২২০ কোটি টাকা যোগান দেওয়া হবে।

একনেক সভা শেষে পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান এসব তথ্য জানান।

একনেকে অনুমোদিত প্রকল্পগুলো হলো বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজসম্পদ মন্ত্রণালয়ের দুটি প্রকল্প— ‘সিদ্ধিরগঞ্জ ৩৩৫ মেগা ওয়াট কম্বাইন্ড সাইকেল পাওয়ার প্লান্ট নির্মাণ (৩য় সংশোধিত)’ এবং ‘চট্টগ্রাম-ফেনী-বাখরাবাদ গ্যাস সঞ্চালন সমান্তরাল পাইপলাইন নির্মাণ (১ম সংশোধিত)’ প্রকল্প। শিল্প মন্ত্রণালয়ের দুটি প্রকল্প— ‘অস্থায়ী ভিত্তিতে রাসায়নিক দ্রব্য সংরক্ষণের জন্য গুদাম নির্মাণ’ এবং ‘বিসিক কেমিক্যাল ইন্ডাস্ট্রিয়াল পার্ক, মুন্সিগঞ্জ’ প্রকল্প। এ ছাড়া শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের ‘প্রশিক্ষণ ও দক্ষতা উন্নয়ন’ প্রকল্প, সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের ‘সমাজকল্যাণ ভবন নির্মাণ’ প্রকল্প এবং পানিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের ‘নীলফামারী জেলার চাড়ালকাটা নদী সোজাকরণ এবং বুড়িতিস্তা নদী তীর সংরক্ষণ’ প্রকল্প।

সভায় পরিকল্পনামন্ত্রী ছাড়াও অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল, কৃষিমন্ত্রী মো. আব্দুর রাজ্জাক, তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ, শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ূন, স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী জাহিদ মালেক, বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি, গৃহায়ন ও গণপূর্তম মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম, পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ক মন্ত্রী মো. শাহাব উদ্দিন, ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী এবং সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী ও প্রতিমন্ত্রীসহ সরকারের  ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।