• বৃহস্পতিবার, নভেম্বর ২১, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১১:০১ রাত

বাংলাদেশ ব্যাংক: টাকার ওপর লেখা, সিল মারা যাবে না

  • প্রকাশিত ০৯:১৭ রাত সেপ্টেম্বর ৯, ২০১৯
১০০০ টাকা
১০০০ টাকা মূল্যমানের ব্যাংক নোট। ছবি: বাসস

একইসাথে, কোনপ্রকার সংখ্যা লিখন ও অনুস্বাক্ষর দেওয়া এবং এক হাজার টাকার নোট ছাড়া অন্যকোনও নোটে স্ট্যাপলিংও করা যাবে না

টাকার ওপর কোনধরনের সিল মারা এবং লেখালেখি করা যাবে না, বলে নির্দেশনা দিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক। সোমবার (৯ সেপ্টেম্বর) বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলোর প্রধান নির্বাহীদের এব্যাপারে নির্দেশনা দেওয়া হয়।

একইসাথে, কোনপ্রকার সংখ্যা লিখন ও অনুস্বাক্ষর দেওয়া এবং এক হাজার টাকার নোট ছাড়া অন্যকোনও নোটে স্ট্যাপলিংও করা যাবে না। খবর বাংলা ট্রিবিউন।

বাংলাদেশ ব্যাংক জানায়, টাকার ওপরে লেখালেখির ক্ষেত্রে ব্যাংক কর্মকর্তাদের ভূমিকাই বেশি। বিশেষ করে সব মূল্যমানের প্রচলনযোগ্য নোট প্যাকেট করতে সিল মারা একটি অভ্যাসে পরিণত হয়েছে। ফলে অল্পসময়ের মধ্যে নোটগুলো ময়লা ও অচল হয়ে পড়ছে। এছাড়া একই নোটে একাধিকবার স্ট্যাপলিংয়ের কারণে নোটের স্থায়িত্ব কমে যাচ্ছে।

কেন্দ্রীয় ব্যাংক বলছে, টাকার ওপর না লিখে ব্যাংকের মুদ্রিত ফ্লাইলিফে ব্যাংকের শাখার নাম, সিল ও নোট গণনাকারী ও প্রতিনিধিদের স্বাক্ষর ও তারিখ অবশ্যই দিতে হবে। বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্দেশনায় আরও বলা হয়েছে, এক হাজার টাকা মূল্যমানের নোট ছাড়া অন্য কোনও মুল্যমানের নতুন অথবা পুরাতন নোটের প্যাকেট স্ট্যাপলিং করা যাবে না। এক হাজার টাকা ছাড়া অন্য নোটগুলোর প্যাকেট ২৫ মিলিমিটার হতে ৩০ মিলিমিটার প্রশস্ত পলিমার টেপ অথবা পলিমারযুক্ত পুরু কাগজের টেপ দিয়ে মোড়াতে হবে। তবে ব্যাংকগুলো ইচ্ছে করলে তাদের নোটের নিরাপত্তার স্বার্থে বিশ্বের যেকোনও দেশের উন্নত প্রযুক্তি অনুসরণ করতে পারে।