• শনিবার, জানুয়ারী ১৮, ২০২০
  • সর্বশেষ আপডেট : ১২:২১ দুপুর

বাংলাদেশের অর্থমন্ত্রী বিশ্বসেরা

  • প্রকাশিত ০৯:৪০ রাত জানুয়ারী ২, ২০২০
অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল
অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। ছবি: সৌজন্যে

২০১৯ সালে মুস্তফা কামাল দায়িত্ব নেওয়ার পর বাংলাদেশের অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি ৭ শতাংশ থেকে ৮.১৫ শতাংশে উন্নীত হয়

বাংলাদেশের অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল ২০২০ সালের "গ্লোবাল ফিন্যান্স মিনিস্টার অব দ্য ইয়ার" পুরস্কারে ভূষিত হয়েছেন। বৃহস্পতিবার (২ জানুয়ারি) যুক্তরাজ্যের অর্থনীতি বিষয়ক পত্রিকা "দ্য ব্যাংকার" ২০২০ সালের সেরা অর্থমন্ত্রীদের তালিকা প্রকাশ করে।

প্রতিবছর এশিয়া-প্যাসিফিক, আমেরিকা, আফ্রিকা, মধ্যপ্রাচ্য ও ইউরোপ- এই পাঁচটি অঞ্চল থেকে পাঁচ জন অর্থমন্ত্রীকে পুরস্কৃত করে দ্য ব্যাংকার। এই পাঁচজনের মধ্য থেকে একজনকে বিশ্বের সেরা অর্থমন্ত্রী হিসেবে ঘোষণা করা হয়। ২০২০ সালের সেরা অর্থমন্ত্রীদের এই তালিকায় এশিয়া প্যাসিফিক অঞ্চল থেকে মনোনীত হন মুস্তফা কামাল। পরে তাকেই বিশ্বের সেরা অর্থমন্ত্রীর সম্মানে ভূষিত করে লন্ডনভিত্তিক এই বাণিজ্য সাময়িকী। এই প্রথম বাংলাদেশের কোনো অর্থমন্ত্রী এই সম্মাননা অর্জন করলেন।

দ্য ব্যাংকারের প্রতিবেদনে বলা হয়, ২০১৯ সালে প্রথমবারের মতো অর্থমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব নেওয়ার পর প্রথমবারের মতো বিশ্ব পুঁজিবাজারে বাংলাদেশকে অন্তর্ভুক্ত করেন তিনি। বৈদেশিক বিনিয়োগের পথ সুগম করার মাধ্যমে দেশের অর্থনীতিকে চাঙ্গা করার উদ্যোগ নিয়ে সফল হন তিনি।

২০১৯ সালে মুস্তফা কামাল দায়িত্ব নেওয়ার পর বাংলাদেশের অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি ৭ শতাংশ থেকে ৮.১৫ শতাংশে উন্নীত হয়। এই অর্থবছরেই দারিদ্র বিমোচন, শিক্ষা, নারীর ক্ষমতায়নসহ বিভিন্ন আর্থ সামাজিক ক্ষেত্রেও বাংলাদেশের প্রভূত উন্নতি হয়।

এর ফলশ্রুতিতে ২০১৯ সালে "সেন্টার ফর ইকোনোমিকস অ্যান্ড বিজনেস রিসার্চেস" প্রকাশিত ওয়ার্ল্ড ইকোনোমিক লিগ টেবিলের বৈশ্বিক র‍্যাঙ্কিংয়ে ৪১ তম অবস্থানে উঠে আসে বাংলাদেশ। এমনকি, এই ধারা অব্যাহত থাকলে ২০৩৩ সালের মধ্যে বাংলাদেশ বিশ্বের ২৪তম বৃহত্তর অর্থনীতির দেশ হিসেবে পরিচিত পাবে বলেও ভবিষ্যদ্বাণী করা হয়।

উল্লেখ্য, আর্থিক খাতে গতিশীলতা আনয়নসহ দীর্ঘমেয়াদী উন্নয়ন নিশ্চিতকরণে গৃহীত বিভিন্ন পদক্ষেপের ভিত্তিতে এই পুরস্কার প্রদান করা হয়ে থাকে। 

এ বছরের সেরা অর্থমন্ত্রীর এই তালিকায় আরও স্থান পেয়েছেন আয়ারল্যান্ডে'র পেসকাল দোঁহেয়ে (ইউরোপ), ব্রাজিলের পাওলো গুয়েদেস (আমেরিকা), বাহরাইনে'র শেখ সালমান বিন খলিফা-আল-খলিফা (মধ্যপ্রাচ্য) ও রুয়ান্ডার ইজিয়েল দাগিজিমানা (আফ্রিকা)।