• শুক্রবার, আগস্ট ১৪, ২০২০
  • সর্বশেষ আপডেট : ০২:৩৭ দুপুর

কোরবানির পশু প্রস্তুত, দাম নিয়ে শঙ্কা খামারিদের

  • প্রকাশিত ০৫:৫১ সন্ধ্যা জুলাই ৯, ২০২০
টাঙ্গাইল-গরু
প্রতি বছরের মতো এবারও বিক্রির জন্য গরু মোটাতাজা করেছেন ঘাটাইল উপজেলার এলিজা বেগম। ঢাকা ট্রিবিউন

চলতি বছর করোনাভাইরাস ও বন্যা পরিস্থিতির কারণে লোকসানের আশঙ্কা করছেন প্রান্তিক খামারিরা

আসন্ন ঈদ-উল-আযহাকে (কোরবানির ঈদ) সামনে রেখে টাঙ্গাইল জেলার প্রায় প্রতিটি বাড়িতেই গরু মোটাতাজা করা হচ্ছে। যা প্রতি বাড়িকেই খামারে পরিণত হয়েছে। প্রতিবছর স্থানীয় চাহিদা মিটিয়ে এসব গরু অন্যান্য জেলার গরুর হাটগুলোতে যায়। কিন্তু চলতি বছর করোনাভাইরাস ও বন্যা পরিস্থিতির কারণে দুশ্চিন্তায় রয়েছেন খামারিরা। 

সংশ্লিষ্টরা জানান, কয়েকবছর আগেও দেশে কোরবানির গরুর সংকট ছিল। ব্যক্তি পর্যায় ও সরকারি নানামুখী পদক্ষেপে সে সংকট কাটিয়ে উঠে ঘুরে দাঁড়িয়েছে বাংলাদেশ। কোরবানিতে দেশি গরুর চাহিদা বেশি থাকায় বিগত কয়েক বছরে বেশিরভাগ খামারিরা কম-বেশি লাভবান হয়েছেন। সেই সাথে গরুর উৎপাদন বৃদ্ধিতে সরকারের নানামুখী উদ্যোগ ও গরুর খামার লাভজনক হওয়ায় টাঙ্গাইল জেলার সকল উপজেলার প্রায় প্রতিটি গ্রামেই বাণিজ্যিকভাবে গড়ে উঠেছে গরুর খামার। 

খামারিরা জানান, এসব খামারের গরু সম্পূর্ণ প্রাকৃতিক উপায়ে লালন-পালন করা হচ্ছে। গরুগুলো খাওয়ানো হচ্ছে দেশীয় খাবার খড়, খৈল, ভূষি, চিটা গুড়, লবণ, চাল-ডাল ও ছোলা-গুঁড়োসহ চাষ করা নেপিয়ার ঘাস। পশু চিকিৎসকের নির্দেশনা অনুযায়ী গরুগুলোকে চিকিৎসা দেওয়া হয়। এসব ওষুধের মধ্যে এমন কোনো ওষুধ নেই যা মানবদেহের জন্য ক্ষতিকর। 

খামারিদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, কোরবানির ঈদ মৌসুমের তিন থেকে চার মাস আগে থেকে এসব খামারে গরু পালন করা হয়। অবশ্য কেউ কেউ এক কোরবানির ঈদে খামারের গরু বিক্রি করে পরের মৌসুমের জন্য গরু পালন করা শুরু করেন। প্রাকৃতিক উপায়ে মোটাতাজা করা দেশীয় জাতের গরুর চাহিদা বেশি। এ কারণে হাটে নেওয়ার সাথে সাথে বিক্রি হয়ে যায় এসব গরু। অনেক সময় খুচরা ক্রেতা ও পাইকাররা খামার থেকেই  গরু কিনে নিয়ে যান। কিন্তু এ বছর করোনাভাইরাস ও বন্যা পরিস্থিতির কারণে আসছেন না পাইকাররা। তাই গরু বিক্রি করা নিয়ে চিন্তিত খামারিরা।  

খামারের শ্রমিকরা বলেন, ঈদকে কেন্দ্র করে গরু মোটাতাজা করতে তারা নির্ঘুম রাত পার করছেন। খামার মালিক যদি গরুর ন্যায্য দাম না পায় তাহলে তাদের শ্রম ও মজুরি পাওয়া নিয়ে সমস্যা হবে। আর তেমন কিছু হলে সংসার চালানো ও সন্তানদের লেখাপড়া নিয়েও চরম সমস্যার মুখোমুখি হতে হবে। 

ঘাটাইল উপজেলার মনহারা গ্রামের দরিদ্র কৃষক সুজনের স্ত্রী এলিজা বেগম। সংসারের কিছুটা ভার লাঘবের জন্য প্রতি বছরের মতো এবারও ঈদকে সামনে রেখে পরিবারের সদস্যদের মত যত্নে লালন পালন করছেন দুটি দেশীয় জাতের গরু।

এলিজা বেগম বলেন, গেল বছর এই সময়টাতে ক্রেতাদের আনাগোনা থাকলেও এবার তাদের দেখা না পাওয়ায় বিরাট লোকসানের শঙ্কা ভর করেছে তার মনে। ন্যায্য দাম না পেলে পথে বসতে হবে তাকে। 

ভূঞাপুরের দুলাল হোসেন চকদারের খামারে থাকা শতাধিক বড় আকারের গরু নিয়েও পড়েছেন বিপাকে। এখন পর্যন্ত ক্রেতার দেখা না পাওয়ায় আশঙ্কা করছেন ৫০ থেকে ৬০ লাখ টাকা লোকসানের। এমন চিত্র জেলার অনেকের। 

জেলা প্রাণীসম্পদ দপ্তরের হিসেব অনুযায়ী, জেলায় ছোট বড় মিলিয়ে প্রায় ১৫ হাজার ১৪১টি বাণিজ্যিক খামার রয়েছে। এছাড়াও অল্প সংখ্যক গরু লালন-পালন করছেন গ্রামের প্রায় প্রতিটা পরিবার। 

এ ব্যাপারে জেলা প্রাণীসম্পদ কর্মকর্তা ডা. আবু সায়েদ সরকার ঢাকা ট্রিবিউনকে বলেন, “ভারত থেকে গরু না আসলে খামারিদের লোকসানের কোনো শঙ্কা নেই তাদের। দামও ভালো পাবে তারা। জেলা প্রাণীসম্পদ বিভাগের হিসাবে টাঙ্গাইলে কোরবানিযোগ্য গরু, ছাগল, ভেড়াসহ ৯০ হাজার ৫৭৭টি গবাদিপশু মজুদ রয়েছে।

তিনি আরও বলেন, “বিভিন্ন খামারে অনেক নামের গরু রয়েছেন। আমরা অনলাইনের মাধ্যমে খামারিদের গরু বিক্রির চেষ্টা করছি। যা ইতোমধ্যেই উপজেলা প্রাণিসম্পদের ফেসবুকে দেওয়া হয়েছে।”

সারা উপজেলায় এবার ৬৭টি গরুর হাট বসবে বলেও জানান এই কর্মকর্তা।  

57
50
blogger sharing button blogger
buffer sharing button buffer
diaspora sharing button diaspora
digg sharing button digg
douban sharing button douban
email sharing button email
evernote sharing button evernote
flipboard sharing button flipboard
pocket sharing button getpocket
github sharing button github
gmail sharing button gmail
googlebookmarks sharing button googlebookmarks
hackernews sharing button hackernews
instapaper sharing button instapaper
line sharing button line
linkedin sharing button linkedin
livejournal sharing button livejournal
mailru sharing button mailru
medium sharing button medium
meneame sharing button meneame
messenger sharing button messenger
odnoklassniki sharing button odnoklassniki
pinterest sharing button pinterest
print sharing button print
qzone sharing button qzone
reddit sharing button reddit
refind sharing button refind
renren sharing button renren
skype sharing button skype
snapchat sharing button snapchat
surfingbird sharing button surfingbird
telegram sharing button telegram
tumblr sharing button tumblr
twitter sharing button twitter
vk sharing button vk
wechat sharing button wechat
weibo sharing button weibo
whatsapp sharing button whatsapp
wordpress sharing button wordpress
xing sharing button xing
yahoomail sharing button yahoomail