Sunday, May 19, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানগুলোকে করের আওতায় আনতে কঠোর হওয়ার তাগিদ

আইসিএমএবি প্রেসিডেন্ট মো. আবদুর রহমান খান জানান, আয়কর আইন অনুযায়ী বাংলাদেশে স্থায়ী অফিস না থাকলে কোনো বিদেশি কোম্পানিকে কর ধার্যের আওতায় আনার বিধান নেই


আপডেট : ১৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ০৮:৫৮ পিএম

ফেসবুক, গুগলসহ অন্যান্য জনপ্রিয় প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানগুলোকে করের আওতায় আনতে কঠোর হওয়ার তাগিদ দিয়েছে ইনস্টিটিউট অব কস্ট অ্যান্ড ম্যানেজমেন্ট অ্যাকাউন্টস অব বাংলাদেশ (আইসিএমএবি)। এছাড়া ব্যক্তির করমুক্ত আয়ের সীমা ৩ লাখ টাকা থেকে বাড়িয়ে ৭ লাখ করার প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) আগারগাঁওয়ের জাতীয় রাজস্ব ভবনে কয়েকটি আর্থিক নিরীক্ষা প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে আয়োজিত এক প্রাক বাজেট আলোচনায় এমন তাগিদ দেওয়া হয়।

আলোচনায় ফেসবুক, গুগলসহ অন্যান্য জনপ্রিয় প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানকে কর আরোপণের আওতায় আনার জন্য স্থানীয় এজেন্ট নিয়োগের বিধান প্রবর্তনের প্রস্তাব দিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি।

এদিন রাজস্ব বোর্ডের সঙ্গে আইসিএমএবি ছাড়াও আলোচনায় অংশ নেয় আইসিএসবি, আইসিএবি, আইএবি, বাংলাদেশ ভ্যাট প্রফেশনাল ফোরাম, ইরনেস্ট অ্যান্ড ইয়ং অ্যাডভাইজরি সার্ভিসেস লিমিটেডের নেতারা।

আইসিএমএবি প্রেসিডেন্ট মো. আবদুর রহমান খান জানান, আয়কর আইন অনুযায়ী বাংলাদেশে স্থায়ী অফিস না থাকলে কোনো বিদেশি কোম্পানিকে কর ধার্যের আওতায় আনার বিধান নেই।

তিনি বলেন, “স্থায়ী স্থাপনা না রেখে বিদেশি কোম্পানিগুলো ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মের মাধ্যমে ব্যবসা করে যাচ্ছে। ভ্যাট আইনের মতো আয়কর আইনে স্থানীয় এজেন্ট নিয়োগের বিধান করা হলে বিদেশি কোম্পানিগুলো স্থানীয় এজেন্ট রাখবে ও তা তাদের বাংলাদেশের স্থানীয় স্থাপনা বলে বিবেচিত হবে। এর ফলে তারা বাংলাদেশে অর্জিত আয়ের ওপর কর দিতে বাধ্য থাকবে।”

সভাপতির বক্তব্যে এনবিআর চেয়ারম্যান আবু হেনা মো. রহমাতুল মুনিম বলেন, “রাজস্ব ব্যবস্থাপনায় আধুনিকায়নের কাজ চলছে। তাড়াহুড়ো করে কোনো নীতি জনগণের ওপর না চাপিয়ে ধীরে ধীরে সহনীয়ভাবে পরিবর্তন আনায় বিশ্বাস করে এনবিআর।”

About

Popular Links