Sunday, May 19, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

২৩৪ কোটি টাকা ঋণ খেলাপি, ৫ ব্যবসায়ীর দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা

আদালত এ বিষয়ে ব্যবস্থা নিতে ইমিগ্রেশন শাখার বিশেষ পুলিশ সুপারকে নির্দেশ দিয়েছেন

আপডেট : ১৭ মে ২০২৩, ০৯:০৮ পিএম

২৩৪ কোটি টাকার ঋণখেলাপির মামলায় বন্দর নগরী চট্টগ্রামের পাঁচ ব্যবসায়ীকে দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছেন আদালত। ওয়ান ব্যাংকের আগ্রাবাদ শাখা থেকে ২৩৪ কোটি টাকা ঋণ নিয়ে পরিশোধ করেননি অভিযুক্তরা।

দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা পাওয়া ঋণ খেলাপিরা হলেন- সীতাকুণ্ডের শীতলপুর অটো স্টিল মিলস লিমিটেডের চেয়ারম্যান জসিম উদ্দিন, ব্যবস্থাপনা পরিচালক নাজিম উদ্দিন, পরিচালক মোহাম্মদ হোসেন, জানে আলম ও মাহবুব আলম। মঙ্গলবার (১৬ মে) অর্থঋণ আদালত চট্টগ্রামের বিচারক মুজাহিদুর রহমান তাদের বিরুদ্ধে এ আদেশ দেন।

আদালত এ বিষয়ে ব্যবস্থা নিতে ইমিগ্রেশন শাখার বিশেষ পুলিশ সুপারকে নির্দেশ দিয়েছেন। আদেশে বিচারক উল্লেখ করেন, ঋণের বিপরীতে যে সম্পত্তি ব্যাংকে বন্ধক আছে, তা অতি সামান্য। এ অবস্থায় তারা দেশ ছাড়লে বিপুল পরিমাণ খেলাপি ঋণ আদায় অনিশ্চিত হয়ে পড়তে পারে।

আদালতের বেঞ্চ সহকারী রেজাউল করিম বলেন, ওয়ান ব্যাংক লিমিটেডের আগ্রাবাদ শাখা থেকে পাঁচ ব্যবসায়ী ঋণ নিয়ে পরিশোধ করেননি। গত ১৩ এপ্রিল খেলাপি ঋণ আদায়ের দাবিতে ব্যাংক কর্তৃপক্ষ আদালতে মামলা করে।

এর আগে গত জানুয়ারিতে অর্থমন্ত্রী ঋণ তথ্য ব্যুরো (সিআইবি) ডেটাবেজ ( ২০২২ সালের নভেম্বর মাসভিত্তিক) অনুসারে যে শীর্ষ ২০ খেলাপি প্রতিষ্ঠানের তালিকার প্রকাশ করেন তার অর্ধেকই চট্টগ্রাম জেলার।

তালিকা বিশ্লেষণে দেখা যায়, রাজনৈতিক নেতাদের প্রতিষ্ঠানও রয়েছে খেলাপির তালিকায়। শীর্ষ ঋণ খেলাপির মধ্যে ওয়েস্টার্ন মেরিন শিপইয়ার্ড লিমিটেডের ঋণ ১,৮৫৫ কোটি টাকা, রাইজিং স্টিল লিমিটেডের ঋণ ১,১৪২ কোটি টাকা, সাদ মুসা ফেব্রিকসের ঋণের পরিমাণ ১,১৭২ কোটি টাকা, সামান্নাজ সুপার অয়েলের ১,১৩০ কোটি টাকা, মোহাম্মদ ইলিয়াস ব্রাদার্সের ঋণ ৯৬৫ কোটি টাকা, আরএসআরএম স্টিলের প্রতিষ্ঠান এস এম স্টিল রি-রোলিং মিলের ঋণ ৮৮৮ কোটি টাকা, রেডিয়াম কম্পোজিট টেক্সটাইল মিলসের খেলাপি ঋণ ৭৭০ কোটি টাকা, এহসান স্টিল রি-রোলিং মিলের খেলাপি ঋণ ৬২৪ কোটি টাকা ও সিদ্দিক ট্রেডার্সের ঋণ ৬৭০ কোটি টাকা।

About

Popular Links