Saturday, May 25, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

সোনামসজিদ হয়েও আসছে বিদেশি পেঁয়াজ

সোমবার সন্ধ্যা পর্যন্ত ৫৭টি ট্রাক সোনামসজিদ বন্দরে প্রবেশ করেছে

আপডেট : ০৬ জুন ২০২৩, ০৩:১৭ এএম

দুই মাস ২০ দিন বন্ধ থাকার পর দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম সোনামসজিদ স্থলবন্দর দিয়ে শুরু হয়েছে পেঁয়াজ আমদানি।

সোমবার (৫ জুন) সন্ধ্যা পর্যন্ত পেঁয়াজভর্তি ৫৭টি ট্রাক সোনামসজিদ বন্দরে প্রবেশ করেছে।

ঢাকা ট্রিবিউনকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার শিবগঞ্জ উপজেলার সোনামসজিদ স্থলবন্দর কাস্টমসের সহকারী কমিশনার প্রভাত কুমার সিংহ।

তিনি জানান, বিকেল থেকে পেঁয়াজবাহী ট্রাক প্রবেশ শুরু করেছে। ইমপোর্ট পারমিট-আইপি অনুমোদন পাওয়া নথিপত্র পেলেই ট্রাক প্রবেশের অনুমোদন দেওয়া হচ্ছে।

পেঁয়াজ আমদানিকারক মাসুদ রানা ঢাকা ট্রিবিউনকে বলেন, “সরকার পেঁয়াজ আমদানির অনুমোদন দেওয়ার পর থেকেই আমরা কার্যক্রম শুরু করি। বিকেলের দিকে আমদানি শুরু হয়েছে। কয়েকজন আমদানিকারক পেঁয়াজ আমদানির অনুমোদন পেয়েছেন।”

এ বিষয়ে পানামা সোনামসজিদ পোর্ট লিংক লিমিটেডের পোর্ট ম্যানেজার মাইনুল ইসলাম বলেন, “বিকেল থেকে পেঁয়াজ আসা শুরু হয়েছে সোনামসজিদ বন্দরে। সন্ধ্যা পর্যন্ত পেঁয়াজভর্তি ৫৭টি ট্রাক পানামায় প্রবেশ করেছে। সর্বশেষ ১৫ মার্চ পেঁয়াজ সোনামসজিদ স্থলবন্দর দিয়ে আমদানি হয়। এরপর বাংলাদেশে পেঁয়াজ আমদানি বন্ধ হয়ে যায়।”

এর আগে সোমবার বিকেলে সাতক্ষীরার ভোমরা স্থলবন্দর দিয়ে ৮ ট্রাক পেঁয়াজ বাংলাদেশে ঢুকেছে। মঙ্গলবার আরও ১০ ট্রাকের মতো পেঁয়াজ ঢুকতে পারে।

জানা গেছে, দেশে পর্যাপ্ত পেঁয়াজ উৎপাদন হওয়ায় সরকার ভারত থেকে পেঁয়াজ আমদানি বন্ধ রাখে। তবে পর্যাপ্ত মজুত থাকলেও শুধুমাত্র আমদানি বন্ধের অজুহাতে কয়েক মাস ধরে এ পণ্যটির বাজারে অস্থিরতা দেখা দেয়। দুয়েক মাসের ব্যবধানে আড়াই থেকে তিনগুণ বেড়ে যায় দাম। বিভিন্ন বাজারে ভোক্তা অধিদপ্তর এবং ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানেও পণ্যটির দামের লাগাম টানা যায়নি। অবশেষে রবিবার বিকেলে পেঁয়াজ আমদানির ঘোষণা দেয় সরকার।

About

Popular Links