Sunday, May 26, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

ক্ষুদ্রঋণ দেওয়ার সনদ পেল আরও ১৫০ এনজিও

বর্তমানে এনজিও-এমএফআই নিয়ন্ত্রকের অধীনে প্রায় ৭৫০টি কার্যক্রম পরিচালনা করছে

আপডেট : ১৯ নভেম্বর ২০২২, ০৮:৪৩ পিএম

দেশে ক্ষুদ্রঋণ কার্যক্রম পরিচালনায় ১৫০টি বেসরকারি সংস্থাকে (এনজিও) শর্তসাপেক্ষ সনদ দিয়েছে সরকার।

মাইক্রোক্রেডিট রেগুলেটরি অথরিটি (এমআরএ) অনুযায়ী, প্রতিষ্ঠানগুলোর সক্ষমতা প্রমাণের জন্য তিন বছরের জন্য শর্তসাপেক্ষভাবে নতুন ক্ষুদ্রঋণ প্রতিষ্ঠানকে (এমএফআইএস) সনদ দেওয়া হয়েছে।

প্রতিটি প্রতিষ্ঠানকে প্রথম বছরে ন্যূনতম ৩০০ জন স্বল্প ঋণের গ্রাহকের কাছে ৪০ লাখ টাকা বিতরণ, দ্বিতীয় বছরে ৬০০ গ্রাহকের কাছে ৭০ লাখ টাকা ও তৃতীয় বছরে ১,০০০ গ্রাহকের কাছে ১ কোটি টাকা ঋণ বিতরণ করতে হবে।

এই এনজিওগুলোর প্রত্যেকটি কার্যক্রম শুরু করার জন্য তাদের নিজ নিজ ব্যাংক অ্যাকাউন্টে ৩০ লাখ টাকা করে জমা দিয়েছে।

এমআরএর নির্দেশ অনুযায়ী, এই পরিমাণ অর্থ ক্ষুদ্র ঋণ প্রদানের জন্য ব্যবহার করা হবে।

এমআরএ সারাদেশে নতুন এলাকায় ছোট-ঋণ কার্যক্রম সম্প্রসারণের জন্য আট বছরের বিরতির পর গত ডিসেম্বরে লাইসেন্স দেওয়া শুরু করে।

দরিদ্র জনগোষ্ঠীকে তাদের পেশার মাধ্যমে স্বাবলম্বী করার জন্য সরকারের নিয়ম অনুযায়ী ঋণ দেওয়ার জন্য লাইসেন্সের আবেদন করা প্রতিষ্ঠানগুলোকে আবেদন দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়।

ক্ষুদ্রঋণ কার্যক্রম ব্যতীত বিভিন্ন উন্নয়ন কর্মকাণ্ডে নিয়োজিত এনজিওগুলোও লাইসেন্স পাওয়ার জন্য যোগ্য।

এমআরএ তখন প্রথমবারের মতো ক্ষুদ্রঋণ কার্যক্রমের জন্য আবেদনের আমন্ত্রণ জানায়। বিশেষ করে যেগুলো ইতিমধ্যে চালু ছিল সেগুলোকে বৈধ করার জন্য।

দ্বিতীয় ধাপে, এমআরএ ৩৭টি দারিদ্র্যপীড়িত জেলা থেকে আবেদনপত্র আহ্বান করেছে ও ১,২১২টি আবেদন পায়।

এমআরএ ২০১৪ সালেও ১২২টি এনজিওকে অনুমোদন দিয়েছিল।

বর্তমানে এনজিও-এমএফআই নিয়ন্ত্রকের অধীনে প্রায় ৭৫০টি কার্যক্রম পরিচালনা করছে।

নিবন্ধিত এমএফআইগুলো দেশের আনুমানিক ১৬ কোটি মানুষের মধ্যে প্রায় ৪ কোটি মানুষকে সেবা দিচ্ছে।

About

Popular Links