Sunday, May 26, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার প্রসঙ্গে তৌকির

পুরস্কার প্রাপ্তিতে উচ্ছ্বসিত তৌকির আহমেদ নিজ প্রতিক্রিয়ার পাশাপাশি জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারের নানা সঙ্কট নিয়েও মুখ খুলেছেন।

আপডেট : ১১ জুলাই ২০১৮, ০৫:০১ পিএম

জাতীয় চলচ্চিত্র-২০১৬ তে তিনটি শাখায় পুরস্কার পেয়েছে তৌকির আহমেদ পরিচালিত চলচ্চিত্র ‘অজ্ঞাতনামা’। পুরস্কার প্রাপ্তিতে উচ্ছ্বসিত তৌকির আহমেদ নিজ প্রতিক্রিয়ার পাশাপাশি জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারের নানা সঙ্কট নিয়েও মুখ খুলেছেন। ২০১৬ সালের পুরস্কার দুই বছর পিছিয়ে ২০১৮-তে প্রদান করার বিষয়টিকে ‘চলচ্চিত্রের সেশন জট’ হিসেবেই আখ্যা দিয়েছেন তিনি।

এ প্রসঙ্গে তৌকির আহমেদ বলেছেন, “এই সেশন জট দূর করা দরকার। পুরস্কারটি ২০১৭ সালের মধ্যে হলেই ভালো হত। না হলে এর আনন্দ যেমন ফিকে হয়, একই সঙ্গে দর্শকের মনেও গুরুত্ব কমে যায়।” এ ছাড়াও, পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান গুরুত্ব সহকারে সুন্দর এবং সুষ্ঠু ব্যবস্থাপনায় হওয়া উচিত বলে মনে করেন তিনি।

বিভিন্ন সময় বিচারকাজের ত্রুটিতে বিতর্কিত হয়েছে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার। গল্প চুরি করে নির্মাণের পর পুরস্কার পাওয়া, কাজ না করেই পুরস্কার প্রাপ্তদের তালিকায় নাম চলে আসার মতো ঘটনাও ঘটেছে সাম্প্রতিক বছরগুলোতে। 

এ বিষয়ে তৌকির আহমেদ বলেছেন, “জুরি বোর্ডের আরও দায়িত্ব সহকারে সকল তদবির ব্যক্তি ও গোষ্ঠী স্বার্থের উপরে উঠে বিচারকার্য সম্পন্ন করা জরুরি। নিরপেক্ষতার ঘাটতি অযোগ্য লোকের হাতে পুরস্কার তুলে দেয়। এতে সার্বিক অনুষ্ঠানের গুরুত্ব হানি হয়।”

জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার প্রসঙ্গে তিনি আরও বলেন, “মনে রাখতে হবে, এই পুরস্কার চলচ্চিত্রের জন্য অপরিসীম গুরুত্ব বহন করে। পক্ষপাতিত্ব বা তদবিরের সংস্কৃতি ত্যাগ না করলে, সার্বিকভাবে এদেশের চলচ্চিত্রেরই ক্ষতি হবে।”


About

Popular Links