Monday, May 20, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

ফিল্ম ক্লাবের সভাপতি হলেন অমিত হাসান

চলচ্চিত্রশিল্প সংশ্লিষ্টদের সংগঠন বাংলাদেশ ফিল্ম ক্লাব লিমিটেডের নির্বাচনে আতিকুর রহমান লিটনকে হারিয়ে প্রথম সভাপতি পদে ২৪২ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হন তিনি

আপডেট : ০২ জানুয়ারি ২০২০, ০৩:৩৯ পিএম

বাংলাদেশের একজন জনপ্রিয় অভিনেতা ও প্রযোজক অমিত হাসান। ১৯৯০ সালে ছটকু আহমেদ পরিচালিত “চেতনা” ছবিতে অভিনয়ের মধ্যদিয়ে চলচ্চিত্রে তার অভিষেক ঘটে। একক নায়ক হিসেবে মনোয়ার খোকনের “জ্যোতি” ছবি দিয়ে শুরু হয় তার সফলতা।

এবার চলচ্চিত্রশিল্প সংশ্লিষ্টদের সংগঠন বাংলাদেশ ফিল্ম ক্লাব লিমিটেডের নির্বাচনে আতিকুর রহমান লিটনকে হারিয়ে সভাপতি নির্বাচিত হয়েছেন অমিত হাসান। প্রথম সভাপতি পদে ২৪২ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হলেন তিনি।

কার্যনির্বাহী সদস্য পদে বিজয়ী হয়েছেন ওমর সানী, পপি, রত্না, সাফি উদ্দিন সাফি, রাফিউদ্দিন সেলিম, মাহমুদুল হক পলাশ, জাহিদ হোসেন, রবিন খান, রশিদুল আমিন হলি, আব্দুল্লাহ জেয়াদ। আগামী ১ বছর সংগঠনটির পরিচালনা করবেন এই বিজয়ীরা। এবার প্রথমবারের মতো নির্বাচনে অংশ নিয়ে ৩২৫ ভোটে পেয়ে কার্যকরী সদস্যপদে জিতেছেন চিত্রনায়িকা পপি।

বিএফডিসি’তে ফিল্ম ক্লাবের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয় সোমবার (৩০ ডিসেম্বর) দুপুর ২টা থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত। একজন সভাপতি ও ১০ জন সদস্যের জন্য ১৯ জন প্রার্থী এই নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। নির্বাচনে মোট ভোটার সংখ্যা ছিল ৫১১ জন। এরমধ্যে ভোট দিয়েছেন ৩৯৪ জন, ভোট বাতিল হয়েছে ১৬টি। ফিল্ম ক্লাবের নির্বাচনে প্রধান নির্বাচন কমিশনার ছিলেন চলচ্চিত্র প্রযোজক মেহেদী হাসান সিদ্দিকী মনির।

১৯৮৬ সালে “নতুন মুখের সন্ধানে” প্রতিযোগিতার মাধ্যমে অমিত হাসান বাংলাদেশের চলচ্চিত্রে সম্পৃক্ত হন। ২০০৮ সালে হাসান প্রযোজকের খাতায় নাম লেখান এবং টেলিভিউ নামে একটি প্রযোজনা সংস্থা চালু করেন। এই সংস্থা থেকে প্রযোজিত প্রথম চলচ্চিত্র কে আপন কে পর। শাহীন-সুমন পরিচালিত চলচ্চিত্রটি ২০১১ সালে মুক্তি পায়। এতে তিনি নিজেই প্রধান চরিত্রে অভিনয় করেন এবং তার বিপরীতে ছিলেন অপু বিশ্বাস। 

২০১২ সালে তিনি শাহীন-সুমন পরিচালিত ভালোবাসার রঙ ছবিতে তুফান চরিত্রে অভিনয়ের জন্য তিনি শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেতা বিভাগে বাচসাস পুরস্কার লাভ করেন।

About

Popular Links