• বৃহস্পতিবার, ডিসেম্বর ১২, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৩:০৬ বিকেল

মৌসুমী: আমাকে আওয়ামী লীগের বিরুদ্ধে দাঁড় করানোর চেষ্টা করা হচ্ছে

  • প্রকাশিত ০৪:১২ বিকেল জানুয়ারী ১৮, ২০১৯
মৌসুমী
বিএফডিসিতে সংবাদ সম্মেলনে মৌসুমী। ছবি: সংগৃহীত

তারেক রহমানের সঙ্গে ছবির প্রসঙ্গে তিনি বলেন, বিভিন্ন অনুষ্ঠানে আমাদের যেতে হয়, গেলে তো ছবি আসবেই। ছবিটা তো আমি তুলি নাই

একসময়ে ঢালিউডের নিয়মিত নায়িকা তিনি। বড়পর্দায় এখন অনিয়মিত হলেও দেশের জন্য কাজ করতে চান চিত্রনায়িকা আরিফা জামান মৌসুমী। তাই একাদশ জাতীয় সংসদে সংরক্ষিত নারী আসনের জন্য ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের মনোনয়ন ফরম কিনেছেন তিনি। মৌসুমীর মনোনয়নপত্র সংগ্রহের পর থেকেই শুরু হয় আলোচনা-সমালোচনা। 

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কেউ কেউ বলছিলেন, আওয়ামী লীগের মনোনয়ন কিনলেও তার রাজনৈতিক মতাদর্শ ভিন্ন। বিএনপির সাংস্কৃতিক সংগঠন জাতীয়তাবাদী সাংস্কৃতিক সংগঠন (জাসাস)-এ তার সংযুক্তির খবরও পাওয়া যায়। কিন্তু এসব দাবি উড়িয়ে দিয়েছেন এই অভিনেত্রী। বিভিন্ন গণমাধ্যমের প্রতিবেদন এবং সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের বিভিন্ন ছবি ও উক্তির জবাব দিয়েছেন মৌসুমী।

বিষয়গুলো নিয়ে খোলামেলা আলোচনা করতেই বৃহস্পতিবার (১৭ জানুয়ারি) বিএফডিসিতে গণমাধ্যকর্মীদের সামনে এ বিষয়ে বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন নব্বই দশকের অন্যতম সেরা এই চলচ্চিত্র অভিনেত্রী।

আলোচনার শুরুতে মৌসুমী বলেন, আমার অনেক দিনের স্বপ্ন ছিল, একদিন হয়ত রাজনীতিবীদদের পাশাপাশি আনকোরা, নতুনরাও এখানে সুযোগ পাবে। এর ইঙ্গিত আমরা পেয়েছি প্রধানমন্ত্রীর নতুন মন্ত্রিসভাতেই। বর্ষীয়ান নেতাদের প্রতি শ্রদ্ধা রেখেই বলছি, নতুনদেরও এ জায়গায় আসা উচিত। তাহলে দেশকে নতুনভাবে আবিষ্কার করতে পারব আমরা। এখন সুন্দর সময়, যারা রাজনীতি করেনি, কিন্তু নেটওয়ার্ক আছে তারা আওয়ামী লীগের মাধ্যমে, প্রধানমন্ত্রীর মাধ্যমে দেশসেবা করতে পারেন।

বিএনপির জ্যেষ্ঠ ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের সঙ্গে ছবির প্রসঙ্গে তিনি বলেন, বিভিন্ন অনুষ্ঠানে আমাদের যেতে হয়, গেলে তো ছবি আসবেই। ছবিটা তো আমি তুলি নাই।

জাসাসের সেই অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকলেও কখনোই বিএনপির রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত ছিলেন না বলে দাবি করেন মৌসুমী।

তিনি বলেন, যারা ছবিটি ছড়াচ্ছে, তারা হয়তো আমাকে পছন্দ করে না, হয়তো আওয়ামী লীগকে পছন্দ করে না। আমাকে আওয়ামী লীগের বিরুদ্ধে দাঁড় করানোর চেষ্টা করা হচ্ছে।

মনোনয়নপত্র কেনার বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে কখনও আলোচনা হয়েছিল কি না- এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘বিষয়টি এখানে বলা ঠিক হবে না। তিনি কাকে মনোনয়ন দেবেন, সেটা তার বিষয়। আর আমি বলেছি কিনা- তাও বলতে চাই না।’

প্রসঙ্গত, দীর্ঘদিন ধরে নারী ও শিশুদের জন্য কাজ করে যাচ্ছেন মৌসুমী। ছিলেন ইউনিসেফের শুভেচ্ছাদূত। তাই প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার আস্থা অর্জন করে সংসদ সদস্য হিসেবে নারী ও শিশুদের জন্য কাজ করতে চান এই তারকা।