• রবিবার, অক্টোবর ২০, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১১:০০ রাত

মুক্তিযোদ্ধা ও অভিনেত্রী মায়া ঘোষ আর নেই

  • প্রকাশিত ০১:০৭ দুপুর মে ১৯, ২০১৯
মায়া ঘোষ
ক্যান্সারের কাছে হার মানলেন অভিনেত্রী মুক্তিযোদ্ধা, অভিনেত্রী মায়া ঘোষ। ছবি: সংগৃহীত

১৯৭১ সালে মহান মুক্তিযুদ্ধ চলাকালে কলকাতায় বাংলাদেশি শরণার্থী শিবিরে মুক্তিযোদ্ধাদের রেঁধে খাওয়ানোর কাজ করেছেন মায়া ঘোষ, কখনোবা সময় কেটেছে আহত মুক্তিযোদ্ধাদের সেবায়।

দুরারোগ্য ব্যাধি ক্যান্সারের সঙ্গে লড়াইয়ে অবশেষে হার মানলেন মুক্তিযোদ্ধা ও চলচ্চিত্র অভিনেত্রী মায়া ঘোষ (৭০)। 

১৯ মে, রবিবার সকাল ৮টা ৪৫ মিনিটে মায়া ঘোষ শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেছেন বলে গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করেছেন তার ছেলে দীপক ঘোষ। 

দীপক ঘোষ বলেন, “যশোরের কুইন্স হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মা মৃত্যুবরণ করেছেন। দীর্ঘদিন ধরেই তিনি ক্যান্সারে ভুগছিলেন।”

দীপক ঘোষ জানান, ২০০০ সালে মায়া ঘোষের শরীরে প্রথম ক্যান্সার ধরে পড়ে। ২০০১ সাল থেকে কলকাতায় কয়েক দফা চিকিৎসা নেওয়ার পর ২০০৯ সালের দিকে তিনি কিছুটা সুস্থ হয়ে ওঠেন। কিন্তু ২০১৮ সালের অক্টোবরে আবারও তার শরীরে ক্যান্সার ধরা পড়ে। এ সময় কলকাতার সরোজ গুপ্ত ক্যান্সার হাসপাতালে আবারও কয়েকদফা চিকিৎসা দেওয়া হয় মায়া ঘোষের। 

সর্বশেষ গত ২২ মার্চ চিকিৎসার জন্য মায়া ঘোষকে কলকাতা নেওয়া হলে দেশে ফেরার জন্য ব্যাকুল হয়ে ওঠেন তিনি। পরে এক রকম বাধ্য হয়েই গত ১৫ এপ্রিল তার ছেলেরা দেশে ফিরিয়ে আনেন মায়া ঘোষকে এবং যশোরের কুইন্স হাসপাতালে ভর্তি করেন।    

মাত্র আট বছর বয়সেই অভিনয়ে যুক্ত হলেও ১৯৮১ সালে ‘পাতাল বিজয়’ মাধ্যমে চলচ্চিত্রে অভিনয় শুরু করেন মায়া ঘোষ। 

দীর্ঘ অভিনয় জীবনে তিনি দুই শতাধিক চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন। পাশাপাশি টিভি নাটক ও মঞ্চেও শক্তিশালী অবস্থান গড়ে নিয়েছিলেন এই অভিনেত্রী। সর্বশেষ ২০১৬ সালে এটিএন বাংলার জনপ্রিয় ধারাবাহিক ‘ডিবি’-তে অভিনয় করেছেন এই অভিনেত্রী।

১৯৭১ সালে মহান মুক্তিযুদ্ধ চলাকালে কলকাতায় বাংলাদেশি শরণার্থী শিবিরে মুক্তিযোদ্ধাদের রেঁধে খাওয়ানোর কাজ করেছেন মায়া ঘোষ, কখনোবা সময় কেটেছে আহত মুক্তিযোদ্ধাদের সেবায়। 

১৯৪৯ সালের ৩১ ডিসেম্বর যশোরের মণিরামপুরের প্রতাপকাটি গ্রামে জন্মগ্রহণ করেছিলেন মায়া ঘোষ। ১৯৮৪ সালে ঢাকায় স্থায়ীভাবে বসবাস শুরু করেছিলেন এই মুক্তিযোদ্ধা, অভিনেত্রী।