• বৃহস্পতিবার, ডিসেম্বর ১২, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:১৮ রাত

দুইমাসে জোকারের আয় ৮ হাজার কোটি টাকা!

  • প্রকাশিত ০১:৩৫ দুপুর নভেম্বর ২৮, ২০১৯
জোকার
মুক্তির পরপরই জোকার ছবিটি নিয়ে চতুর্দিকে হইচই পড়ে যায়। ছবি: সংগৃহীত

জোকার সম্প্রতি ১ বিলিয়ন মার্কিন ডলারের মাইলফলক অতিক্রম করেছে। যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক সংবাদমাধ্যম হলিউড রিপোর্টারস অনুযায়ী, জোকার চতুর্থ ডিসি কমিকস ছবি যা এত অল্প সময়ের মধ্যে এতটা ব্যবসাসফল হয়

গত ২ অক্টোবর মুক্তি পায় হলিউড ডিসি কমিকবুক ছবি “জোকার”। ছবিটির পরিচালক টোড ফিলিপস। এর কেন্দ্রীয় চরিত্রে অভিনয় করেছেন জোয়াকুইন ফোনিক্স। মুক্তির পরপরই ছবিটিকে নিয়ে চতুর্দিকে হইচই পড়ে যায়। জোকার সম্প্রতি ১ বিলিয়ন মার্কিন ডলারের মাইলফলক অতিক্রম করেছে। শোনা যাচ্ছে, পরিচালক টোড ফিলিপস ছবিটির সিকুয়্যাল বানানোর প্রস্তুতি নিচ্ছেন।

যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক সংবাদমাধ্যম হলিউড রিপোর্টারস অনুযায়ী, জোকার চতুর্থ ডিসি কমিকস ছবি যা এত অল্প সময়ের মধ্যে এতটা ব্যবসাসফল। এর আগে ডিসি ছবি হিসেবে ২০১৮ সালে “অ্যাকোয়াম্যান” (১.১৫ বিলিয়ন মার্কিন ডলার), ২০১২ সালে “দ্য ডার্ক নাইট রাইজেস” (১.০৮ বিলিয়ন মার্কিন ডলার) ও ২০০৮ সালে “দ্য ডার্ক নাইট” (১ বিলিয়ন মার্কিন ডলার) দারুণ ব্যবসাসফল হয়।

জোয়াকুইন ফোনিক্স এর আগে তুমুল জনপ্রিয় ও কালজয়ী ছবি “দ্য ব্যাটম্যান”র সুপারভিলেন চরিত্রে অভিনয় করেন। তার পাশাপাশি জোকার ছবিতে দেখা যাবে আরেক বর্ষীয়ান কমেডিয়ান শিল্পী মার্ক ম্যারনকে।

জোকার ছবিটির কাহিনী আবর্তিত হয় গোথাম শহরের আর্থার ফ্লেক নামের এক ব্যর্থ কমেডিয়ান শিল্পীকে ঘিরে। পেশায় কমেডিয়ান হলেও ফ্লেক সম্মানের বদলে পেয়েছে শুধু অবহেলা-অপমান। হতাশ হতে হতে সে একটা সময় এসে উন্মাদ হয়ে যায়। এভাবেই সে একসময় হয়ে ওঠে ভয়ংকর এক অপরাধী।

জোকার সিনেমাটি ইতোমধ্যেই দর্শকের মনে স্থান করে নিয়েছে। চলচ্চিত্রবোদ্ধারা একে “মাস্টারপিস” বলে আখ্যায়িত করেছেন। কেউ কেউ এটাকে স্মরণকালের সেরা ছবি বলেছেন। আর জোয়াকুইন ফোনিক্সের অভিনয়? সে তো আর বলার অপেক্ষাই রাখে না। এক কথায় মুগ্ধ। জোকার নির্মাণে ব্যয় করা হয়েছিল সাড়ে পাঁচ কোটি মার্কিন ডলার। ছবিটি এরই মধ্যে ভ্যানিস ফিল্ম ফেস্টিভেলে প্রদর্শিত হয়েছে।