• মঙ্গলবার, এপ্রিল ০৭, ২০২০
  • সর্বশেষ আপডেট : ১১:২৮ রাত

ক্যান্সারকে হারিয়ে শুটিংয়ে ফিরলেন সোনালি বেন্দ্রে

  • প্রকাশিত ০১:৩৪ দুপুর ডিসেম্বর ১৫, ২০১৯
সোনালি বেন্দ্রে
যুক্তরাষ্ট্রে ফিরে যাচ্ছেন সোনালি বেন্দ্রে সংগৃহীত

‘অনেক কিছু ঘটে যাওয়ার পর সেটে ফিরলাম। কাজে ফিরতে পেরে ভালো লাগছে। আসলে অনুভূতিটা বলে বোঝাতে পারব না। কাজেই তো ফিরতে চেয়েছিলাম’

সোনালি বেন্দ্রে একজন ভারতীয় মডেল, টেলিভিশন ব্যক্তিত্ব ও অভিনেত্রী। একের পর এক সুপারহিট ছবি উপহার দেওয়া এই অভিনেত্রীর শরীরে হঠাৎই বাসা বাঁধে ক্যান্সার নামক এক মরণঘাতী রোগ। তবে থেমে থাকেননি সোনালি, ফিরে এসেছেন আপন মহিমায়। সম্প্রতি ভারতীয় সংবাদমাধ্যম আনন্দবাজার এক প্রতিবেদনে তুলে ধরেছেন জনপ্রিয় এ তারকার স্বাভাবিক জীবনে প্রত্যাবর্তনের আশাজাগানিয়া গল্প। 

২০১৮ সালে জানা যায়, সোনালির দেহে বাসা বেঁধেছে ক্যান্সার। প্রাণঘাতী এই অসুখ একসময় স্তব্ধ করে দিতে চেয়েছিল তার জীবনের পথ। লড়াই করলেও ফিরতে পারবেন কিনা সে চিন্তা কুরে কুরে খাচ্ছিল। দিনরাত বিছানায় শুয়ে কেবল নিজের মেকআপ ভ্যান, শুটিং ফ্লোর, স্বামী ও ছেলের কথাই ভাবতেন। অবশেষে তীব্র প্রাণশক্তি ও অদম্য ইচ্ছাশক্তির দ্বারা ক্যান্সারকে হার মানিয়ে পরিচিত জগতে ফিরতে যাচ্ছেন সোনালি বেন্দ্রে। বলিউডের জনপ্রিয় এই অভিনেত্রীর দুর্দান্ত এই ফিরে আসা বেঁচে থাকার রসদ জোগাতে পারে বিশ্বের সব ক্যান্সার রোগীকেই।

নিউইয়র্কে চিকিৎসা চলাকালীনই প্রথম ক্যন্সারের খবর কীভাবে তাকে ও তার পরিবারকে বিপর্যয়ে ফেলে দিয়েছিল, টিভি শোতে এসে সে কথাও জানিয়েছেন তিনি। সোনালি বলেন, “ক্যান্সার হয়েছে শুনে আমি সারা রাত ঘুমোতে পারিনি। শুধু কেঁদেছি। আর ভেবেছি, কেন আমার সঙ্গেই এমনটা হলো?”

২০১৮ সালের পর জীবনের এই কঠিন অধ্যায়েও এতটুকু মনোবল হারাননি তিনি। এই বিপর্যয়ে পুরো পরিবারকে পাশে পান তিনি। নিউইয়র্কে চিকিৎসা চলাকালে সোনালির সঙ্গে দেখা করতে গিয়েছিলেন একাধিক বলিউড তারকা।

ক্যান্সারের কেমোথেরাপি কেড়ে নিয়েছিল সোনালির মাথার চুল। কিন্তু সে অবস্থাতেও প্রকাশ্যে এসেছেন তিনি। নিজেকে লুকিয়ে রাখেননি। বরং সাহস দিয়েছেন অন্যদেরও। তাকে দেখে যাতে অন্য ক্যন্সার আক্রান্তেরা সাহস সঞ্চয় করতে পারে, সেই চেষ্টাই করেছেন প্রতিদিন। সোনালির এমন ভূমিকাকে সবাই শ্রদ্ধা জানিয়েছে। পুরোপুরি সুস্থ না হলেও একটু ভাল হতেই শুটিং ফ্লোরেও ফিরেছেন তিনি। 

সোশ্যাল মিডিয়ায় সোনালি নিজেই এই তথ্য জানিয়ে লিখেছেন, “অনেক কিছু ঘটে যাওয়ার পর সেটে ফিরলাম। কাজে ফিরতে পেরে ভালো লাগছে। আসলে অনুভূতিটা বলে বোঝাতে পারব না। কাজেই তো ফিরতে চেয়েছিলাম।”