• শুক্রবার, ফেব্রুয়ারি ২১, ২০২০
  • সর্বশেষ আপডেট : ১২:৫৪ দুপুর

বিয়ের পরের দিনই হাসপাতালে অভিনেতা দীপঙ্কর দে

  • প্রকাশিত ০৪:৩৪ বিকেল জানুয়ারী ১৮, ২০২০
দীপঙ্কর দে-দোলন রায়
দীর্ঘদিন একসাথে (লিভ টুগেদার) থাকার পর টালিউড অভিনেত্রী দোলন রায়ের সাথে গত বৃহস্পতিবার সাতপাকে বাধা পড়েন ৭৫ বছর বয়সী অভিনেতা দীপঙ্কর দে। সংগৃহীত

অভিনেত্রী দোলন রায়ের সাথে গত বৃহস্পতিবার সাতপাকে বাধা পড়েন ৭৫ বছর বয়সী অভিনেতা দীপঙ্কর দে

দীর্ঘদিন একসাথে (লিভ টুগেদার) থাকার পর টালিউড অভিনেত্রী দোলন রায়ের সাথে গত বৃহস্পতিবার সাতপাকে বাঁধা পড়েন ৭৫ বছর বয়সী অভিনেতা দীপঙ্কর দে। এই বিয়ে নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম সরগরম হয়ে ওঠে। তবে, বিয়ের পরদিনই অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন দীপঙ্কর দে।

ভারতের বিভিন্ন গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়, দীর্ঘদিন ধরেই শ্বসকষ্টজনিত সমস্যায় ভুগছিলেন দীপঙ্কর দে। শুক্রবার (১৭ জানুয়ারি) দুপুরের দিকে শ্বাসকষ্টের সমস্যা বাড়তে থাকায় তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। নেওয়া হয় আইসিইউতে।

নববধূ দোলন রায় জানান, দীপঙ্করের এখনও সমস্যা হচ্ছে। এখন তেমন কথাও বলছেন না। চিকিৎসকরা পরীক্ষা করে দেখছেন।

এর আগে বৃহস্পতিবার হাইল্যান্ড পার্কের কাছে একটি রেস্তোরাঁয় অনুষ্ঠিত হয় দীপঙ্কর-দোলনের ঘরোয়া বিয়ের আসর। রেজিস্ট্রি করে বিয়ে সম্পাদিত হয় তাদের। লাল বেনারসি ও মাথায় লাল ফুল দিয়ে নববধূর বেশে সেজেছিলেন দোলন। দীপঙ্কর সেজেছিলেন সাবেকি বাঙালি বরের সাজে।

খুব ঘনিষ্ঠ কয়েকজনই আমন্ত্রিত ছিলেন সেই বিয়েতে। ইন্ডাস্ট্রির অধিকাংশ মানুষ এই বিয়ের কথা জানতেনই না। হাজির ছিলেন নাট্যকার ও অভিনেতা ব্রাত্য বসু, সৌমিত্র মিত্র, ধ্রুব কুণ্ডু, শীর্ষ সেন ও লেখক-সাংবাদিক রঞ্জন বন্দ্যোপাধ্যায়৷