• সোমবার, ফেব্রুয়ারি ২৪, ২০২০
  • সর্বশেষ আপডেট : ১২:৪০ রাত

কবির বকুলকে গ্রেফতারে বাসায় পুলিশ

  • প্রকাশিত ০৪:৫৬ বিকেল জানুয়ারী ১৮, ২০২০
গীতিকার কবির বকুল
গীতিকার কবির বকুল সংগৃহীত

দিনাত জাহান মুন্নি লেখেন, 'বাসায় পুলিশ এসেছে কবির বকুলকে গ্রেফতার করতে।আমার বাচ্চাগুলো শক্ত হয়ে তাকিয়ে আছে আমার দিকে!!জীবনে এমন অনুভুতির সামনে পড়তে হবে-তা কখনো কল্পনাও করিনি' 

গীতিকার কবির বকুলকে গ্রেফতার করতে তার বাসায় পুলিশ গিয়েছিল বলে জানা গেছে। শনিবার (১৮ জানুয়ারি) দুপুর ১২টার দিকে রাজধানীর নিউ ইস্কাটনের দিলু রোডের বাসায় পুলিশ গেলে সেখানে তাকে পাওয়া যায়নি।  

দুপুর দেড়টার দিকে নিজের ফেসবুকে দেওয়া এক পোস্টে এ তথ্য জানান তার স্ত্রী কণ্ঠশিল্পী দিনাত জাহান মুন্নি। হাতিরঝিল থানা পুলিশের পক্ষ থেকেও বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়। 

ফেসবুকে দিনাত জাহান মুন্নি লেখেন, "বাসায় পুলিশ এসেছে কবির বকুলকে গ্রেফতার করতে।আমার বাচ্চাগুলো শক্ত হয়ে তাকিয়ে আছে আমার দিকে!!জীবনে এমন অনুভুতির সামনে পড়তে হবে-তা কখনো কল্পনাও করিনি!!" 




এবিষয়ে হাতিরঝিল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুর রশীদ ঢাকা ট্রিবিউনকে বলেন, কবির বকুলের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা থাকায় তার বাসায় পুলিশের একটি দল গিয়েছিল। তবে তাকে বাসায় পাওয়া যায়নি।

গতবছরের ১ নভেম্বর ঢাকা রেসিডেনসিয়াল মডেল কলেজের ক্যাম্পাসে প্রথম আলোর সাময়িকী কিশোর আলোর অনুষ্ঠান চলাকালে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয় স্কুলের শিক্ষার্থী নাইমুল আবরার। এই ঘটনায় গত ৬ নভেম্বর প্রথম আলোর সম্পাদক মতিউর রহমান ও কিশোর আলোর সম্পাদক আনিসুল হকসহ ১০ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন আবরারের বাবা মুজিবুর রহমান। গত ১৬ জানুয়ারি তাদের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেন আদালত।

মামলার অন্য আসামিরা হলেন-কবির বকুল, শুভাশিষ প্রামানিক শুভ, মহিতুল আলম পাভেল, শাহপরান তুষার, জসিম উদ্দিন অপু, মোশারফ হোসেন, সুজন ও কামরুল হায়দার।

কবির বকুল প্রথম আলোর ইভেন্ট অ্যান্ড এক্টিভিশন বিভাগের ব্যবস্থাপক।  

মামলার পরবর্তী শুনানির জন্য আগামী ২৪ ফেব্রুয়ারি তারিক নির্ধারণ করেছেন আদালত।