• শনিবার, জুন ০৬, ২০২০
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৮:০০ রাত

হোম কোয়ারেন্টিনে শাওন

  • প্রকাশিত ০৫:১২ সন্ধ্যা মার্চ ১৭, ২০২০
মেহের আফরোজ শাওন
মেহের আফরোজ শাওন। ছবি : ফেসবুক থেকে নেওয়া

যুক্তরাষ্ট্র সফর শেষে সোমবার ঢাকায় ফিরেছেন শাওন

যুক্তরাষ্ট্র সফর শেষে সোমবার (১৬ মার্চ) ঢাকায় ফিরেছেন জনপ্রিয় অভিনেত্রী ও নির্মাতা মেহের আফরোজ শাওন। ঢাকা হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে করোনাভাইরাসের স্বাস্থ্য পরীক্ষা শেষে তিনি ধানমন্ডির বাসায় হোম কোয়ারেন্টিনে রয়েছে। 

পরিবারের সদস্যদের নিরাপদে থাকতে অভিনেত্রী নিজেই এই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে এ কথা জানান শাওন। 

পাঠকের জন্য শাওনের ফেসবুক স্ট্যাটাসটি হুবহু তুলে দেওয়া হলো-


বেশ আগে প্রতিশ্রুতি দেয়া একটি বইমেলায় অংশ নিতে আমেরিকায় গিয়েছিলাম। ওয়াশিংটনে প্রকোপ থাকলেও নিউইয়র্কে করোনা প্রকাশ পায়নি তখনও। ভাইরাসটির সংক্রমণ বাড়ার পরপরই আমেরিকার বিভিন্ন স্টেটে সতর্ক বার্তা জারী হয়ে যায়। তারপর ঘর থেকে বের হইনি একদম। এবছর মে মাসের ৩০, ৩১ তারিখে নিউইয়র্কে অনুষ্ঠিতব্য হুমায়ূন আহমেদ সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক সম্মেলন ২০২০ এর সংবাদ সম্মেলন বাতিল এবং মূল অনুষ্ঠানের তারিখ স্থগিত করা হয় তৎক্ষনাৎ। প্রতি মুহূর্তের খবর দেখছিলাম আর ভাবছিলাম বাচ্চাদু’টোর কাছে ফিরতে পারবো তো?

পরম করুণাময়ের অশেষ কৃপায় গতকাল দেশে ফিরেছি। ঢাকা এয়ারপোর্টে স্বাস্থ্য বিষয়ক সতর্ক অবস্থান দেখে ভালো লাগলেও দুবাই থেকে ফেরার ফ্লাইটে মধ্যপ্রাচ্যের যাত্রীদের গনহারে প্যারাসিটামল কিংবা প্যানাডল খেয়ে “জ্বর যেন না ওঠে তাইলে মেশিনে আটকায়ে দিবে” ধরনের আচরণ খুব আশংকাজনক লেগেছে! ‘কোয়ারেন্টাইন’ শব্দটার প্রতি এক অজানা ভীতিতে সবাই। “মাত্র ১৪ টা দিন নিয়ম মেনে আলাদা থাকলে পরিবারের অন্য সদস্যরা করোনা ভাইরাসের সংক্রমনের ঝুঁকিমুক্ত থাকবে” এই কথা ৪/৫ জনকে বোঝাবার চেষ্টা করে সম্পূর্ণ ব্যর্থ হয়েছি আমি। তবে নিজের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিয়ে রেখেছিলাম নিউইয়র্ক থেকে রওনা হওয়ার একদিন আগেই। আব্বু আম্মুর সাথে কথা বলে রেখেছিলাম- তারা দুইজন সায় দিয়েছেন। নিনিত এবং নিষাদ দু’জনকেই বুঝিয়ে বলেছেন। পুত্রদ্বয়ও বিষয়টা সুন্দরভাবেই গ্রহণ করেছে।

আমি গতকাল থেকে আমার ধানমন্ডির বাসায় সবার থেকে আলাদা (হোম কোয়ারেন্টাইন শব্দটিতে আমারও ভয় লাগে!) আছি। আমার মা’র বাড়িতে থাকা পুত্রদের সাথে ঘন্টায় ঘন্টায় ভিডিও কলে কথা হচ্ছে। বাসায় ফেরার পর গতকাল রাতে প্রতিবেশী স্বর্ণা ভাবী জড়িয়ে ধরে শুভেচ্ছা জানাতে চাইলে তাকে বারণ করেছি। তিনি বুঝতে পেরেছেন এবং ৩/৪ হাত দূরে দাড়িয়ে খাবার দিয়ে গেছেন। দখিণ হাওয়া’য় আমার বাসার দরজা প্রথমবারের জন্য তালাবন্ধ রাখা হয়েছে!

আমি ভালো আছি। জ্বর, কাশি, গা ব্যথা কিছুই নেই। আপাতত আগামী সাড়ে ১৩ দিন (আধাদিন পার হয়ে গেছে) কি কি করবো তার তালিকা করছি।

১. বিশ্রাম, ২. বিশ্রাম, ৩. বিশ্বের করোনা পরিস্থিতির খবর দেখা, ৪. বিশ্রাম, ৫. বাংলাদেশের খবর দেখা, ৬. আবারও বিশ্রাম, ৭. নেটফ্লিক্স, ৮. নেটফ্লিক্স, ৯. নেটফ্লিক্স, ১০. বিশ্রাম, ১১. ফেসবুক স্ক্রল করা, ১২. ভিডিও কলে আড্ডা, ১৩. কিঞ্চিৎ লেখালেখির চেষ্টা। 

চাইলে আপনারাও কিছু যোগ করতে পারেন তালিকায়। সবাই ভালো থাকবার চেষ্টা করবেন। অন্যদের ব্যপারেও সচেতন থাকবেন।

53
50
blogger sharing button blogger
buffer sharing button buffer
diaspora sharing button diaspora
digg sharing button digg
douban sharing button douban
email sharing button email
evernote sharing button evernote
flipboard sharing button flipboard
pocket sharing button getpocket
github sharing button github
gmail sharing button gmail
googlebookmarks sharing button googlebookmarks
hackernews sharing button hackernews
instapaper sharing button instapaper
line sharing button line
linkedin sharing button linkedin
livejournal sharing button livejournal
mailru sharing button mailru
medium sharing button medium
meneame sharing button meneame
messenger sharing button messenger
odnoklassniki sharing button odnoklassniki
pinterest sharing button pinterest
print sharing button print
qzone sharing button qzone
reddit sharing button reddit
refind sharing button refind
renren sharing button renren
skype sharing button skype
snapchat sharing button snapchat
surfingbird sharing button surfingbird
telegram sharing button telegram
tumblr sharing button tumblr
twitter sharing button twitter
vk sharing button vk
wechat sharing button wechat
weibo sharing button weibo
whatsapp sharing button whatsapp
wordpress sharing button wordpress
xing sharing button xing
yahoomail sharing button yahoomail