Tuesday, May 28, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

মিলাকে আদালতে হাজিরের নির্দেশ

২০১৭ সালের ১২ মে পারিবারিকভাবে বিয়ে হয় মিলা ও পারভেজের

আপডেট : ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ০৬:০৯ পিএম

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে সাবেক স্বামী এস এম পারভেজের দায়ের করা মামলায় সংগীতশিল্পী তাশবিহা বিনতে শহীদ মিলাকে আদালতে হাজির হওয়ার জন্য সমন জারি করা হয়েছে।

বুধবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) বাংলাদেশে সাইবার ট্রাইব্যুনালের বিচারক আস সামস জুগলুল হোসেন পুলিশের দেওয়া প্রতিবেদন আমলে নিয়ে তাকে আদালতে হাজির হওয়ার জন্য সমন জারি করেন। আগামী ৫ এপ্রিল এবিষয়ে শুনানির জন্য দিন ধার্য রয়েছে।

ট্রাইব্যুনালের পেশকার শামীম আল মামুন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

এর আগে ঘটনার সত্যতা পাওয়ায় ২৫ ফেব্রুয়ারি কাউন্টার টেরোরিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইমের উপ-পরিদর্শক মহিদুল ইসলাম মিলার বিরুদ্ধে প্রতিবেদনটি দাখিল করেন।

প্রতিবেদনে বলা হয়, মিথ্যা ও অপমান, অপদস্থ করার অভিপ্রায়ে মানহানিকর তথ্য প্রচার করার অভিযোগে মিলার বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন ২০১৮'এর অপরাধ প্রাথমিকভাবে প্রমাণিত হয়েছে।

২০১৯ সালের ২১ এপ্রিল বাংলাদেশ সাইবার ট্রাইব্যুনালে মিলার বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা করেন তার সাবেক স্বামী পারভেজ সানজারী। আদালত বাদীর জবানবন্দি গ্রহণ করে পুলিশের কাউন্টার টেরোরিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম ইউনিটকে তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দেন।

মামলার অভিযোগ সানজারি বলেন, মিলা ২০১৯ সালের ১৬ এপ্রিল দুপুর ১টা ৫ মিনিটে তার ফেসবুক পেজ ও দুপুর ১টা ১০ মিনিটে তার নিজের ফেসবুক আইডিতে একটি স্ট্যাটাস দেন। সেখানে সানজারি এবং তার পরিবার ও সহকর্মীদের নোংরা ভাষায় গালি দেওয়া হয়। স্ট্যাটাসে "জীবিত নুসরাত" শিরোনাম ছিল। মিলা পরবর্তী সময়ে (১৬ এপ্রিল) সেটি সংশোধন করেন। ফেসবুক পেজের এডিট হিস্টোরিতে এখনও তার পূর্বের স্ট্যাটাসটি রয়েছে। সেখানে আদালতের পাবলিক প্রসিকিউশন ও ইউএস বাংলার দুই কর্মকর্তাকেও গালমন্দ করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, ২০১৭ সালের ১২ মে বিয়ে হয় মিলা ও পারভেজের। ওই বছরেরই ৬ অক্টোবর দিবাগত রাত ৩টায় ফেসবুকে মিলা জানান পারভেজ সানজারির সঙ্গে তার বিচ্ছেদ হয়েছে।

About

Popular Links