Saturday, May 18, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

মমতাজের গানে করোনাভাইরাস প্রতিরোধের ডাক

বেসরকারি সংস্থা ব্র্যাকের উদ্যোগের সঙ্গে একাত্ম হয়ে মমতাজ যোগ দিয়েছেন সুর ও কথার গাঁথুনিতে গণমানুষকে সচেতন করে তোলার কাজে

আপডেট : ৩১ মার্চ ২০২০, ০৩:৫১ পিএম

বিশ্বজুড়ে ছড়িয়ে পড়া করোনাভাইরাস প্রতিরোধে নিজ নিজ অবস্থান থেকে এগিয়ে এসেছেন অনেক বিখ্যাত ব্যক্তিত্বই। দেশে-বিদেশে তারা নিয়েছেন প্রশংসনীয় উদ্যোগ। করোনাভাইরাস প্রতিরোধে জনসচেতনতা বাড়াতে এবার গান গাইলেন কণ্ঠশিল্পী মমতাজ।

“প্রিয় দেশবাসী, আমি আপনাদের সবার প্রিয় শিল্পী মমতাজ বলছি দেশে ফেরত বন্ধু যখন চৌদ্দ দিন বাইরে না গিয়া, সবার ভালর কথা ভাইবা একলা রয়, ঘরে একলা রয়, মনটা ভইরা যায়...ও মনটা ভইরা যায়।”

 গানটি উন্মুক্ত করা হবে মঙ্গলবার (৩১ মার্চ)।

 কোকিলকণ্ঠী এই শিল্পীর গানে এভাবেই উঠে এসেছে করোনাভাইরাস প্রতিরোধের আহ্বান। প্রখ্যাত এই শিল্পী করোনাভাইরাস প্রতিরোধে সামাজিক দূরত্ব বজায়ের পাশাপাশি স্বাস্থ্যসম্মতভাবে হাত ধোয়া এবং শ্বাস-প্রশ্বাস ও হাঁচি-কাশির শিষ্টাচারগুলো সুরে সুরে তুলে ধরেছেন।  

বেসরকারি সংস্থা ব্র্যাকের উদ্যোগের সঙ্গে একাত্ম হয়ে মমতাজ যোগ দিয়েছেন সুর ও কথার গাঁথুনিতে গণমানুষকে সচেতন করে তোলার কাজে। 

 করোনাভাইরাস প্রতিরোধে গানটির কথাগুলো বসানো হয়েছে মমতাজের ইতিমধ্যে বহুলপ্রচারিত ও অত্যন্ত জনপ্রিয় “বুকটা ফাইট্যা যায়” শীর্ষক গানটির সুরের ওপর। ব্র্যাকের কর্মকর্তারা আশা করছেন গানটি মূল গানের মতোই জনমনে ব্যাপক সাড়া ফেলতে সক্ষম হবে এবং করোনাভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধে মানুষের মধ্যে সঠিক আচরণগুলো গড়ে তুলতে সহায়ক হবে। 

গানটিতে কণ্ঠ দেওয়া প্রসঙ্গে শিল্পী ও সংসদ সদস্য মমতাজ বেগম বলেন, “বর্তমানে করোনাভাইরাসকে কেন্দ্র করে যে জাতীয় সংকট সৃষ্টি হয়েছে তা মোকাবিলায় এগিয়ে আসা আমাদের কর্তব্য। সাধারণ মানুষকে সম্ভাব্য সকল উপায়ে সাহায্য করা আমাদের দায়িত্ব।” 

করোনাভাইরাস সৃষ্ট রোগ কোভিড-১৯ মোকাবেলায় ব্র্যাক পরিচালিত ব্যাপক জনসচেতনতামূলক প্রচারণা কার্যক্রমে ইতোমধ্যে যুক্ত হয়েছেন আরেক প্রখ্যাত শিল্পী কুদ্দুস বয়াতী। তার গাওয়া একটি গান উন্মুক্ত হওয়ার পরপরই সামাজিক ও গণযোগাযোগ মাধ্যমে ব্যাপক জনপ্রিয়তা পেয়েছে।

এ বিষয়ে ব্র্যাক ও ব্র্যাক ইন্টারন্যাশনালের কমিউনিকেশনস অ্যান্ড আউটরিচ বিষয়ক পরিচালক মৌটুসী কবীর বলেন, “বর্তমানে বিশ্বজুড়ে ছড়িয়ে পড়া এই মহামারীর বিরুদ্ধে লড়াইয়ের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ কৌশল হলো ব্যাপক জনসচেতনতা এবং আমাদের দৈনন্দিন অভ্যাস ও আচরণের পরিবর্তন। কোভিড-১৯ মোকাবিলায় বাংলাদেশ সরকারকে সক্রিয় সহযোগিতা প্রদানের পাশাপাশি ব্র্যাক বিভিন্ন ব্যক্তিমালিকানাধীন প্রতিষ্ঠান ও বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থার সঙ্গে সমন্বিত উদ্যোগ নিয়েছে। করোনাভাইরাস প্রতিরোধের বার্তাগুলোকে বিশেষ করে ছোট ছোট শহর ও গ্রামগঞ্জের মানুষের কাছে পৌঁছে দেওয়ার প্রচেষ্টায় যুক্ত হওয়ায় মমতাজ ও কুদ্দুস বয়াতীর কাছে আমরা গভীরভাবে কৃতজ্ঞ।” 

উল্লেখ্য, করোনাভাইরাস প্রতিরোধে জনসচেতনতা সৃষ্টির কাজে নিজস্ব একটি ওয়েবপোর্টাল পরিচালনা ছাড়াও সামাজিক যোগাযোগ ও গণযোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে নানা ধরনের তথ্যসম্বলিত উপকরণ প্রকাশ ও প্রচার করে যাচ্ছে ব্র্যাক। এসব বার্তা গ্রামেগঞ্জেও মাইকিং করে প্রচার করা হচ্ছে। পাশাপাশি দেশের ১৬টি কমিউনিটি রেডিও নেটওয়ার্কের মাধ্যমেও নিয়মিত সম্প্রচার করা হচ্ছে সচেতনতা বার্তা।

About

Popular Links