Monday, May 27, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

যাকে-তাকে মডেল বা অভিনেত্রী বলায় জয়ার আপত্তি

নিজের এই পোস্ট দেওয়ার কারণ জানিয়ে জয়া বলেন, ইদানিং পুলিশি অভিযানে কাউকে গ্রেফতার করা হলেই তার নামের সঙ্গে মডেল-অভিনেত্রীর তকমা লাগিয়ে দেওয়া হয়

আপডেট : ০৪ আগস্ট ২০২১, ১০:৩৫ পিএম

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নিজেদের ব্যক্তিগত মতামত প্রকাশ করার প্রবণতা ইদানিং সব তারকার মধ্যেই কম বেশি দেখা যায়। তবে এসকল পোস্টের পর আলোচনার চেয়ে সমালোচনার মুখেই পড়েন বেশিরভাগ তারকা। এবার নিজের ব্যক্তিগত ফেসবুক অ্যাকাউন্টে শেয়ার করা এক পোস্ট দিয়ে তেমনই এক ঝড় তুলেছেন দুই বাংলার জনপ্রিয় অভিনেত্রী জয়া আহসান। 

মঙ্গলবার (৩ আগস্ট) রাতে দেওয়া ওই পোস্টে জয়া লিখেছেন, “যাকে খুশি মডেল বা অভিনেত্রী বলবেন না। এতে প্রকৃত শিল্পী অসম্মানিত হচ্ছেন।’’

জয়া বলেন, “ব্যক্তিগত পরিচয়, প্রভাব, বাহ্যিক সৌন্দর্য বা কপালজোরে দু’একটি বিজ্ঞাপন বা নাটকে কাজ করলেই তাঁকে মডেল বা অভিনেত্রী বলা যায় কি-না, সেই ভাবনাটা এবার জরুরি হয়ে উঠছে।”


আরও পড়ুন- পিয়াসার পর মোহাম্মদপুর থেকে মডেল মৌ আটক


“দেবী” খ্যাত এ অভিনেত্রী আরও উল্লেখ করেন, ইদানিং অনেকেই শুধুমাত্র সময় কাটানোর জন্য সামাজিক মাধ্যমে কিংবা বন্ধুদের তৈরি ভিডিওতে অভিনয় করছেন। এদের অনেকেরই হয়তো মডেল হিসেবে বাড়ির পাশের কোনও দর্জির দোকানে ছবিও আছে। 

“কিন্তু একজন প্রকৃত মডেল বা অভিনেতা-অভিনেত্রী হয়ে ওঠার জন্য যে নিষ্ঠা, একাগ্রতা, জ্ঞান, দর্শন, প্রস্তুতি, সামাজিক ও পেশাদার দায়বদ্ধতা প্রয়োজন সে সব কিছুই তাদের নেই,” তাই তাদের কীভাবে মডেল বলা যায় সেই প্রশ্ন তুলেছেন জয়া।

নিজের এই পোস্ট দেওয়ার কারণ জানিয়ে জয়া বলেন, ইদানিং পুলিশি অভিযানে কাউকে গ্রেফতার করা হলেই তার নামের সাথে মডেল-অভিনেত্রীর তকমা লাগিয়ে দেওয়া হয়। এতে প্রকৃত অভিনেতা-অভিনেত্রী, মডেলসহ বিনোদন জগতের সবাই অসম্মানিত হচ্ছেন।

তাই এ ধরনের তকমা দেওয়ার আগে প্রথমে সংশ্লিষ্ট সংগঠন থেকে বিষয়টি যাচাই করার অনুরোধ করেন জয়া।

পরবর্তীতে জানা গেছে, অভিনয়শিল্পী সংঘের পক্ষ থেকে পোস্টটি শেয়ার করেছেন জয়া।

About

Popular Links