Thursday, May 30, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

পরীমণির কস্টিউম ডিজাইনার জিমি আটক

জিমিকে গুলশানের একটি ফ্যাট বাসা থেকে আটক আটক করে ডিবি কার্যালয়ে নেওয়া হয়েছে

আপডেট : ০৭ আগস্ট ২০২১, ০১:২০ এএম

পরীমণির কস্টিউম ডিজাইনার জুনায়েদ করিম জিমিকে আটক করেছে গোয়েন্দা পুলিশ। আটকের পর তাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ডিবি কার্যালয়ে নেওয়া হয়েছে। এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন অতিরিক্ত কমিশনার (গোয়েন্দা) হাফিজ আক্তার।

শুক্রবার (৬ আগস্ট) রাতে জিমিকে গুলশানের একটি ফ্ল্যাট বাসা থেকে আটক করে ডিবি কার্যালয়ে নেওয়া হয়।

ডিবি পুলিশের যুগ্ম কমিশনার হারুন-অর-রশিদ এ বিষয়ে জানান, জিমি হাফপ্যান্ট পরে বোট ক্লাবে উশৃঙ্খল আচরণ করেছে, ক্লাবে ভাঙচুর করেছে, তাই তাকে আটক করা হয়েছে। তার বাসা থেকে মাদক উদ্ধার করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে মাদক আইনে মামলা হবে বলেও জানান তিনি।

এর আগে, বুধবার (৪ আগস্ট) রাজধানীর বনানীর বাসায় অভিযান চালিয়ে চিত্রনায়িকা পরীমণিকে গ্রেপ্তার করে র‍্যাব। এসময় পরীমণির বাসা থেকে বিভিন্ন ব্র্যান্ডের ৩৩ বোতল বিদেশি মদ, ১৫০টি খালি মদের বোতল, ইয়াবা, এলএসডি এবং আইস উদ্ধার করা হয়। এছাড়াও পরীমণির বনানীর বাসায় একটি মিনি বারের সন্ধান পায় র‍্যাব। সেখানে নিয়মিত পার্টির আয়োজন করা হতো বলেও জানায় র‍্যাব।

বৃহস্পতিবার (৫ আগস্ট) সন্ধ্যায় নায়িকা পরীমণি ও তার ম্যানেজার আশরাফুল ইসলামের বিরুদ্ধে রাজধানীর বনানী থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা করে র‍্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‍্যাব)। একই থানায় আরেকটি মামলা করা হয় প্রযোজক নজরুল ইসলাম রাজ এবং তার ম্যানেজার সবুজ আলীর বিরুদ্ধেও।

পরীমণির বাসায় নিয়মিত পার্টির আয়োজনের বিষয়ে র‍্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক খন্দকার আল মঈন প্রেস ব্রিফিংয়ে জানান, ওইসব পার্টিতে রাজ এবং তার সহযোগীরা বিভিন্ন ব্র্যান্ডের বিদেশি মদ এবং নানা ধরনের মাদক সরবরাহ করত। এসব কাজে শরীফুল হাসান ওরফে মিশু হাসান এবং মাসুদুল ইসলাম ওরফে জিসান নামে দুজন সহায়তা করত। গুলশান, বনানীসহ বিভিন্ন অভিজাত এলাকায় রাজ নিয়ন্ত্রিত সিন্ডিকেট ডিজে পার্টির আয়োজন করে তার আড়ালে অবৈধ মাদক সরবরাহ করত।

বৃহস্পতিবার (৫ আগস্ট) র‍্যাব সদর দপ্তরে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে র‍্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক কমান্ডার খন্দকার আল মঈন জানান, রাজের নেতৃত্বাধীন একটি সিন্ডিকেটের কাজই ছিল উঠতি বয়সী তরুণীদের দিয়ে বিভিন্ন অপকর্ম করানো।

র‍্যাব জানায়, গ্রেপ্তার শামসুর নাহার স্মৃতি ওরফে স্মৃতিমনি বা 'পরীমণি' ২০১৬ সাল থেকে অ্যালকোহলে আসক্ত হয়ে পড়েন। তার ফ্ল্যাট থেকে বিভিন্ন ব্রান্ডের বিদেশি মদ উদ্ধার করা হয়েছে। তিনি নিয়মিত অ্যালকোহল সেবন করে থাকেন। মাত্রাতিরিক্ত সেবনের চাহিদা মেটানোর লক্ষে বাসায় একটি মিনি বার স্থাপন করেছেন।

About

Popular Links