Tuesday, May 21, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

মুক্তির অপেক্ষায় বরগুনার রিফাত-মিন্নির ঘটনা নিয়ে সিনেমা

২০১৯ সালের ২৬ জুন বরগুনা সরকারি কলেজের সামনে স্বামী রিফাতকে সন্ত্রাসী হামলা থেকে বাঁচানোর আপ্রাণ চেষ্টা করছিলো মিন্নি। মূলত এই কাহিনীকে কেন্দ্র করেই চিত্রনাট্য

আপডেট : ০৬ অক্টোবর ২০২১, ০৬:৪৬ পিএম

রোমান্টিক সিনেমা “পরাণ” ২০২০ এর ভালোবাসা দিবসে মুক্তির কথা থাকলেও করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের কারণে সেটি আর সম্ভব হয়ে ওঠেনি। তবে অবশেষে সে অপেক্ষার অবসান হতে যাচ্ছে। 

মুক্তির অপেক্ষা শেষ হতে যাচ্ছে রায়হান রাফি পরিচালিত সিনেমাটির। তবে তার আগেই দেশজুড়ে ব্যাপক সাড়া ফেলে দিয়েছে ২০২০-এর ২ ফেব্রুয়ারি প্রকাশিত চলচ্চিত্রটির টিজার।

২০১৯ সালের ২৬ জুন বরগুনা সরকারি কলেজের সামনে স্বামী রিফাতকে সন্ত্রাসীদের হামলা থেকে বাঁচানোর আপ্রাণ চেষ্টা করেছিলেন মিন্নি। প্রায় দুই মাসব্যাপী পুলিশি তদন্ত শেষে মিন্নিকে প্রধান সাক্ষী ও সাব্বির আহমেদ নয়ন ওরফে নয়ন বন্ডকে প্রধান আসামি করে জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে চার্জশিট দেওয়া হয়। এতে বেরিয়ে আসে রিফাত হত্যার চাঞ্চল্যকর সব তথ্য। 

জানা যায়, রিফাত ও নয়ন দুজনের সঙ্গেই বৈবাহিক সম্পর্ক ছিল মিন্নির। মিন্নির জন্মদিনের এক ভিডিও সামাজিক মাধ্যমে শেয়ার করা নিয়ে স্বামী রিফাতের আপত্তি থেকে রিফাত ও মিন্নির মাঝে মনোমালিন্য শুরু হয়। কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে মিন্নিকে শারীরিকভাবে আঘাত করে রিফাত। ফলে প্রতিশোধ নেওয়ার জন্যই মিথ্যে নাটক সাজিয়ে মিন্নি নয়ন বন্ডকে দিয়ে রিফাতকে হত্যা করায়। মূলত এই কাহিনিকে কেন্দ্র করেই চিত্রনাট্য লিখেছেন রায়হান রাফি ও শাহজাহান সৌরভ।

২০১৯ সালে শেষ হয়েছিল সিনেমাটির শুটিং। ত্রিভুজ প্রেমের গল্প নিয়ে তৈরি হওয়া এ সিনেমায় কেন্দ্রীয় চরিত্রে একজন কলেজছাত্রী হিসেবে দেখা যাবে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরষ্কার বিজয়ী বিদ্যা সিনহা সাহা মীমকে। 

মীমের বিপরীতে প্রধান অভিনেতা হিসেবে থাকছেন “স্বপ্নজাল” খ্যাত তারকা ইয়াশ রোহান এবং “আইসক্রিম” সিনেমার অভিনেতা শরীফুল রাজ। এছাড়াও পরাণ সিনেমায় অন্যান্য চরিত্রে কাজ করেছেন শিল্পী সরকার অপু, শহীদুজ্জামান সেলিম, রোজী সিদ্দিক, লুৎফর রহমান জর্জ, মিলি বাসার এবং রাশেদ মামুন অপু।

বড় পর্দার জন্য বানানো “পরাণ” সিনেমা নিয়ে পরিচালক রায়হান রাফি বেশ আশাবাদী। ওটিটির নতুন যুগে সবাই যখন সিনেমা নিয়ে অনলাইন মাধ্যমগুলোতে ছুটছে তখন তিনি তার পরিকল্পনা ঠিক রেখেই সামনে এগোচ্ছেন। 

করোনাভাইরাসের প্রকোপে অনাকাঙ্ক্ষিতভাবে সিনেমা-হলগুলো অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ হয়ে গেলেও তিনি নিরুৎসাহিত হয়ে যাননি। দর্শকদের সিনেমা-হলমুখী করার জন্য “পরাণ” সিনেমার পাশাপাশি তিনি “দামাল” ও “ইত্তেফাক” নামে আরও দুটি চলচ্চিত্র উপহার দিতে যাচ্ছেন।

বাস্তবতার নিরিখে রচিত চলচ্চিত্র “পরাণ” শুধু একটি ত্রিভুজ প্রেমের গল্প নির্ভর সিনেমা নয়। বরং সমসাময়িক সামাজিক মূল্যবোধের চরম অবক্ষয়ের এক ভয়ানক দৃষ্টান্ত। ইতোমধ্যে “জানোয়ার” চলচ্চিত্রের মাধ্যমে আমজনতার বিবেক নাড়িয়ে দিয়েছেন রায়হান রাফি। সেই আলোকে পরাণ সিনেমাটিও একটি সত্য ঘটনার সৃজনশীল প্রতিফলন হতে পারে।

About

Popular Links