Sunday, May 19, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

জায়েদ খানের প্রার্থিতা বিষয়ে রুল শুনানি ২৩ ফেব্রুয়ারি

টাকা দিয়ে ভোট কেনার অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় গত ৫ ফেব্রুয়ারি শিল্পী সমিতি নির্বাচনের আপিল বোর্ড জায়েদ খানের প্রার্থিতা বাতিল করে। পরে ৭ ফেব্রুয়ারি আপিল বোর্ডের প্রার্থিতা বাতিলের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় রিট করেন তিনি

আপডেট : ২২ ফেব্রুয়ারি ২০২২, ০৩:৪১ পিএম

বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সাধারণ সম্পাদক পদে জায়েদ খানের প্রার্থিতা বাতিলের সিদ্ধান্ত কেন অবৈধ হবে না, সে বিষয়ে জারি করা রুল শুনানির জন্য বুধবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) দিন ধার্য করেছেন হাইকোর্ট।

এক প্রতিবেদনে অনলাইন সংবাদমাধ্যম ঢাকা পোস্ট জানায়, মঙ্গলবার (২২ ফেব্রুয়ারি) বিচারপতি মামনুন রহমান ও বিচারপতি খোন্দকার দিলীরুজ্জামানের দ্বৈতহাইকোর্ট বেঞ্চ এ নির্দেশ দেন।

এদিন আদালতে শুনানিতে জায়েদ খানের পক্ষে উপস্থিত ছিলেন অ্যাডভোকেট আহসানুল করিম ও অ্যাডভোকেট নাহিদ সুলতানা যুথি। অন্যদিকে, নিপুণের পক্ষে ছিলেন ব্যারিস্টার রোকন উদ্দিন মাহমুদ ও ও ব্যারিস্টার মোস্তাফিজুর রহমান খান।

আদালতের ডায়াসের সামনে দাঁড়িয়ে জায়েদ খানের আইনজীবী অ্যাডভোকেট আহসানুল করিম ও অ্যাডভোকেট নাহিদ সুলতানা যুথি বলেন, “আপিল বিভাগের স্ট্যাটাসকো থাকার পরও নিপুণ সাধারণ সম্পাদকের চেয়ারে বসছেন। আদালত অবমাননা করে চলছেন।”

পরে আদালত বলেন, আপনারা যা বলছেন, এটা রুলের সঙ্গে সম্পৃক্ত নয়।

প্রসঙ্গত, টাকা দিয়ে ভোট কেনার অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় গত ৫ ফেব্রুয়ারি শিল্পী সমিতি নির্বাচনের আপিল বোর্ড জায়েদ খানের প্রার্থিতা বাতিল করে। পরে ৭ ফেব্রুয়ারি আপিল বোর্ডের প্রার্থিতা বাতিলের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় রিট করেন জায়েদ খানের আইনজীবী নাহিদ সুলতানা যুথি।

পরে জায়েদ খানের প্রার্থিতা বাতিল করে নির্বাচনের আপিল বোর্ডের দেওয়া সিদ্ধান্ত স্থগিত করেন হাইকোর্ট। সেই সঙ্গে জায়েদ খানের প্রার্থিতা বাতিলের সিদ্ধান্ত কেন অবৈধ হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছেন আদালত। মামলার বিবাদীদের এক সপ্তাহের মধ্যে এ রুলের জবাব দিতে বলা হয়।

পরদিন ৮ ফেব্রুয়ারি জায়েদ খানের প্রার্থিতা বাতিলের সিদ্ধান্ত স্থগিত করে হাইকোর্টের দেওয়া আদেশের বিরুদ্ধে আপিল বিভাগে আবেদন করেন নিপুণ। পরবর্তীতে গত ৯ ফেব্রুয়ারি চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতি নির্বাচনে জায়েদ খানের প্রার্থিতা বাতিলের সিদ্ধান্ত স্থগিত করে দেওয়া হাইকোর্টের আদেশ স্থগিত করেন আপিল বিভাগের চেম্বার আদালত। একইসঙ্গে চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সাধারণ সম্পাদক পদে দায়িত্ব পালনের ওপর স্থিতাবস্থা জারি করেন আদালত।

১৪ ফেব্রুয়ারি চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতি নির্বাচনে জায়েদ খানের প্রার্থিতা বাতিলের সিদ্ধান্ত স্থগিত করে দেওয়া হাইকোর্টের আদেশের বিরুদ্ধে চিত্রনায়িকা নিপুণের শুনানি শেষে নিষ্পত্তি করেন সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ। পাশাপাশি হাইকোর্টের আদেশের বিরুদ্ধে বাংলাদেশ শিল্পী সমিতি নির্বাচনে সাধারণ সম্পাদক পদের ওপর চেম্বার আদালতের স্থিতিবস্থা ও স্থগিতাদেশও বহাল রেখেছেন আপিল বিভাগ।

উল্লেখ্য, গত ২৮ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত হয়েছিল শিল্পী সমিতির নির্বাচন। সেখানে সাধারণ সম্পাদক পদে জয়লাভ করেন জায়েদ খান। এটা ছিল তার টানা তৃতীয়বারের জয়। তবে তার প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী নায়িকা নিপুণ অভিযোগ তোলেন, নির্বাচনে দুর্নীতি করেছেন জায়েদ। টাকা দিয়ে ভোটও নাকি কিনেছেন। এসব অভিযোগ নিয়ে সাংবাদিক সম্মেলনও করেছিলেন নিপুণ। লিখিত অভিযোগ জানান নির্বাচনের আপিল বোর্ডের কাছেও। আপিল বোর্ড বিষয়টি সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়কে জানায়। এরপরই বোর্ডকে বিষয়টির সুরাহা করার দায়িত্ব দেয় মন্ত্রণালয়। আপিল বোর্ড জায়েদ খানের প্রার্থিতা বাতিল করলে শপথ নেন নিপুণ।

About

Popular Links