Thursday, May 23, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

শিশু সহশিল্পীকে নিজের বিয়ের আংটি উপহার দিলেন পরীমণি

পরীমণি বলেন, ‘গত কয়েকটা দিন ওর সাথে মায়ের চরিত্রে অভিনয় করে ওর প্রতি আমার যে মায়া জন্মে গেছে’

আপডেট : ১২ মার্চ ২০২২, ০৬:৫৮ পিএম

নিজের মাতৃত্বকালীন ছুটিতে যাওয়ার আগে “মা” নামের সিনেমাতে কাজ করছেন ঢাকাই সিনেমার আলোচিত নায়িকা পরীমণি। নিজের মাতৃত্ব নিয়ে এমনিতেই পরিমণি বেশ রোমাঞ্চিত, তার মধ্যে এই সিনেমা ভিন্নমাত্রা যোগ করেছে। তাছাড়া শিশুদের প্রতি তার ভালোবাসার কথাও সবার জানা। নিজের জন্মদিনেও এই অভিনেত্রীকে শিশুদের সঙ্গে সময় কাটাতে দেখা গেছে। এবার মা সিনেমার শুটিংয়ে প্রকাশ পেয়েছে পরীমণির শিশুদের প্রতি অন্যরকম ভালোবাসা।

সাত মাস বয়সী সহশিল্পীকে নিজের বিয়ের আংটি উপহার দিয়েছেন পরীমণি। সিনেমায় ওই শিশুকে পরীমনির সন্তান হিসেবে দেখানো হবে। “মা” সিনেমার শুটিংয়ে শুক্রবার (১১ মার্চ) এ ঘটনা ঘটে। 

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন “মা” সিনেমার পরিচালক অরণ্য আনোয়ার নিজেই।

বিষয়টি নিয়ে অরণ্য আনোয়ার শুক্রবার রাতে ফেসবুকে লেখেন, “বেলা তিনটার দিকে শুটিং প্যাকআপ করে আমি টিমের সঙ্গে খেতে বসলাম। এ সময় কে একজন বলল, ‘পরী আপু আপনাকে ডাকছেন’। সেটের মধ্যে একটা রুমে পরী তখন রাজের সঙ্গে ঢাকায় ফিরে যাওয়ার আয়োজনে ব্যস্ত। আমাকে দেখে বলল, ‘ভাইয়া, আমার সন্তানের চরিত্রে অভিনয় করা শিশুটাকে একটা ভালো গিফট দেওয়া উচিত’।” 

তিনি লেখেন, “ওর কথা শেষ হওয়ার আগেই আমি উত্তর দিলাম, ওটা নিয়ে তোমাকে চিন্তা করতে হবে না। আমি ব্যবস্থা করছি। বলেই আমি চলে এলাম। আমার মাথায় তখন খাওয়াদাওয়া শেষ করে ডে লাইটে একটা দৃশ্য শেষ করার চিন্তা। আমি পেশাদার মানুষ। আমার প্রোডাকশন আগেই শিশুটির সম্মানী বাবদ একটা অঙ্ক খামে করে ওর মায়ের হাতে তুলে দিয়েছে। সেটাকে আমি যথেষ্ট বলে মনে করি। খাওয়া শেষে উঠানে একটা দৃশ্যের শুটিংয়ের আয়োজন করছি, এ সময় আবার ঘরের ভেতর থেকে পরীর ডাক। আমি ব্যস্ত, তবু ভাবলাম ওকে বিদায় দিয়ে আসি। ঘরে ঢুকতেই দেখলাম রাজ আর পরীর হাতে একটা সোনার রিংয়ের ছোট বাক্স। পাশে বসা সেই শিশুটির মা। পরী বলল, ‘ভাইয়া, আমার দুটো এনগেজমেন্ট রিংয়ের একটা হচ্ছে এটা। আমি বাবুটাকে আপনার হাত দিয়ে এই রিংটা উপহার দিতে চাই।’ আমি হতভম্ব! কী বলে এই মেয়ে?” 

অরণ্য আনোয়ার আরও বলেন, “পরী আবার বলল, ‘গত কয়েকটা দিন ওর সাথে মায়ের চরিত্রে অভিনয় করে ওর প্রতি আমার যে মায়া জন্মে গেছে।’ আমি আবেগাপ্লুত হলাম। শ্রদ্ধায় নত হলাম পরীর কাছে। বললাম, তুমি সত্যিই একটা পাগল। আচ্ছা, আসো তাহলে আংটি দেওয়ার একটা ছবি তুলি একসঙ্গে। রাজ বলল, ‘নীরব ভালোবাসাটা নীরবই থাকুক ভাই। ছবি তোলার দরকার নাই।’ 

 অরণ্য আনোয়ার বলেন, ‘আমরা ছবি তুললাম না। কিন্তু পরীর এই আবেগের কথা আমি লিখব না, মানুষকে জানাব না, এতটা চাপা স্বভাবের মানুষ যে আমি নই। দুই মাস বয়সী শিশুটির বাবা একজন অটোরিকশাচালক, মা গৃহিণী। স্যালুট, পরীমনি। তোমাকে স্যালুট, শ্রদ্ধা, ভালোবাসা।”

জানা গেছে, একটি সত্য ঘটনা থেকে অনুপ্রাণিত হয়ে  মা সিনেমাটির চিত্রনাট্য তৈরি করেছেন অরণ্য আনোয়ার নিজেই। ১৯৭১ সালে মৃত ঘোষিত সাত মাস বয়সী এক সন্তানকে নিয়ে তার অসহায় মায়ের আবেগের গল্পই উঠে আসবে এতে। সেই মায়ের চরিত্রে অভিনয় করেছেন পরীমণি।

About

Popular Links