Sunday, June 16, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

শাহরুখ খানের ছেলের ব্র্যান্ডের টি-শার্ট ৩০ হাজার, জ্যাকেট ২ লাখ!

একজন তো এমনও লিখেছেন, ‘খান সাহেব, আমি আমার একটি কিডনি বিক্রি করলেও একটা টি-শার্ট কিনতে পারব না’

আপডেট : ০২ মে ২০২৩, ১১:২৫ এএম

বলিউড বাদশাহ শাহরুখ খানের ছেলে আরিয়ান খানের নিজস্ব লাক্সারি স্ট্রিটওয়্যার ব্র্যান্ড “ডি'ইয়াভল এক্স” চালুর খবর মোটামুটি সবারই জানা। ছেলের ব্র্যান্ডের পোশাকের মডেল হিসেবে বিজ্ঞাপনেও অংশ নিয়েছেন শাহরুখ খান।

এমনিতেই আরিয়ান খানের পোশাকের ব্যবসা নিয়ে বাড়তি আগ্রহ ছিল সবারই। সেখানে শাহরুখ খান বিজ্ঞাপনে অংশ নেওয়ার পর নেটিজেনদের আগ্রহ আরও বাড়ে। বিজ্ঞাপনের টিজার প্রকাশ পরই তা রীতিমত ভাইরাল হয়ে যায়।

ভক্তদের আগ্রহ এতো বেশি ছিল যে, রবিবার (৩০ এপ্রিল) চালুর পর থেকে ওয়েবসাইটটি ক্রাশ করে। অনেক গ্রাহক একসঙ্গে ওয়েবসাইটটিতে সার্চের চেষ্টা করতেই শুরু হয় ঝামেলা। এরপর ব্র্যান্ডটি টুইটারে একটি স্ট্যাটাস আপডেট করে লেখে, “আমরা খুব বেশি পরিমাণে ট্রাফিক এবং চেকআউটের সম্মুখীন হচ্ছি। অনুগ্রহ করে আমাদের সঙ্গে থাকুন।” পরে তারা ঘোষণা করে যে, “সাইটটি আবার লাইভ হয়েছে এবং ব্যবহারকারীরা সাইটটি সহজেই ঢুকতে পারবেন।”

তবে, ওয়েবসাইট চালুর পর নতুন বিড়ম্বনায় পড়তে হয়েছে “ডি'ইয়াভল এক্স”কে। ব্র্যান্ডটির পোশাকের দাম নিয়ে অনেকেই ট্রল করছেন।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া বিভিন্ন পোস্টে অনেকেই এতো দাম নিয়ে বিস্ময় প্রকাশ করেছেন। 

আরিয়ানের ব্র্যান্ডের ওয়েবসাইট থেকে পোশাকের ছবি নিয়ে অন্য সাইটেও স্ক্রিনশট শেয়ার করে নানা মন্তব্য করছেন অনেকে। একটা ছবিতে দেখা যাচ্ছে, একটি সাদা টি-শার্ট, দাম ২৪ হাজার রুপি, যা বাংলাদেশি মুদ্রায় ৩০ হাজার টাকা। আরেকটি কালো হুডির দাম ছিল ৪৫ হাজার ৫০০ রুপি। বাংলাদেশি মুদ্রায় প্রায় ৬০ হাজার টাকা। একটি লেদার জ্যাকেটের দাম ২ লাখের বেশি। এসব ছবি শেয়ার করে একজন ক্যাপশনে লিখেছেন, “এসব কী হচ্ছে? কে এসব পোশাকের দাম নির্ধারণ করেছে, তার সঙ্গে কথা বলতে চাই।”

একজন তো এমনও লিখেছেন, “খান সাহেব, আমি আমার একটি কিডনি বিক্রি করলেও একটা টি-শার্ট কিনতে পারব না।” আরেকজন লিখেছেন, “দাম দেখতে এসেছিলাম। দাম দেখা হয়ে গেছে। চলে যাচ্ছি।” এক ব্যবহারকারী লিখেছেন, “এসব পাগলামি। এত দাম দিয়ে পোশাক কেনে কারা, আমি তাদের দেখতে চাই।” 

প্রসঙ্গত, ২০২১ সালে মাদক মামলায় জড়িয়ে আলোচনায় আসেন আরিয়ান খান। সে সময় এক মাস জেলও খাটেন আরিয়ান খান। পরে অবশ্য মাদক মামলা থেকে রেহাই পান তিনি। 

আরিয়ান গত বছর বোন সুহানার সঙ্গে অংশ নিয়েছিলেন আইপিএলের নিলামে। একসময় বলিউডে কাজ শুরুরও খবর দেন। তবে বাবা বা বোন সুহানার মতো ক্যামেরার সামনে নয়, আরিয়ান কাজ করবেন পরিচালক হিসেবে। শোনা যাচ্ছে, নেটফ্লিক্সের জন্যই সিনেমা বানাবেন তিনি, যা প্রযোজনা করবে শাহরুখ-গৌরীর রেড চিলিস প্রোডাকশন।

About

Popular Links