Monday, May 27, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

‘মাতাল হয়ে সেটেই ঘুমাতেন’ গুজবে ক্ষতির বিবরণ দিলেন সাইফ

সাইফ বলেন, একজন তরুণ অভিনেতা হিসেবে আমার খ্যাতি নষ্ট করা হয়েছিল। ফলে কাজের প্রস্তাব আসা বন্ধ হয়ে যায়। অনেক পরিচালক তখন আমাকে নিতে চায়নি

আপডেট : ৩০ আগস্ট ২০২২, ০৫:৪৮ পিএম

বলিউডে সাইফ আলি খানের অভিষেক ঘটে যশ চোপড়ার “পরম্পরা” (১৯৯৩) দিয়ে। একই সময়ে তার “আশিক আওয়ারা”ও মুক্তি পায়। তবে তারও আগে দুটি ছবি থেকে তাকে সরে আসতে বাধ্য করা হয়। সে সময় তার নামে গুজব রটেছিল, “তিনি শ্যুটিং সেটে মদ্যপ অবস্থায় হাজির হন।” অপেশাদার আচরণের অভিযোগে তাকে ওই দুটি ছবিতে নেওয়া হয়নি।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস এক প্রতিবেদনে জানায়, লেহরেনের সঙ্গে এক সাক্ষাৎকারে সাইফ তার বড়পর্দায় আত্মপ্রকাশের অনেক আগের গল্প বলেছেন। ১৯৯২ সালে রাহুল রাওয়াইলের “বেখুদি”তে তার অভিনয় করার কথা ছিল।

সাইফ বলেছেন, “রাহুল মনে করেছিলেন সিনেমায় আমার আগ্রহ নেই। আমি এই শিল্পে কাজ করতে চাই না। যা পুরোপুরি ভুল ধারণা ছিল। সে সময় বেশ কিছু গুজবও রটেছিল যে, আমি মাতাল হয়ে সেটে যাই, ঘুমিয়ে পড়ি। এইসব গুজব বেশ প্রভাব ফেলেছিল।”

তিনি বলেন, “একজন তরুণ অভিনেতা হিসেবে আমার খ্যাতি নষ্ট করা হয়েছিল। এর ফলে সিনেমার প্রস্তাব আসা বন্ধ হয়ে যায়। আমাকে ‘বেখুদি’ থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছিল। অনেক পরিচালক তখন আমার সঙ্গে কাজ করতে চায়নি। আমি আন্তরিক না হলে প্রযোজক কেন টাকা ঢালবেন? রাহুল আমাকে ফিল্ম থেকে বের করে দিয়েছেন। তিনি আমার ক্যারিয়ারের অনেক ক্ষতি করেছেন।”

অন্য আরেকটি সিনেমা থেকেও সরে আসতে হয়েছিল সাইফ আলি খানকে। সেই সিনেমাটির প্রযোজক ছিলেন সতি শৌরি। আর পরিচালক হিসেবে ছিলেন আনন্দ মহেন্দ্রু। তবে সেই সিনেমা আনন্দ মহেন্দ্রু পরিচালনা করবেন না বলে জানানো হয় সাইফকে। প্রযোজক জানান, তিনি নতুন একজন পরিচালক খুঁজছেন। অন্যদিকে আনন্দ অন্য প্রযোজক খুঁজতে চেয়েছিলেন। ফলে সেই সিনেমাটিও আর করা হয়নি সাইফের।

১৯৭০ সালের ১৬ আগস্ট জন্মগ্রহণ করেন সাইফ আলি খান। তার মা অভিনেত্রী শর্মিলা ঠাকুর, বাবা ক্রিকেটার মনসুর আলি খান পতৌদি। 

যশ চোপড়ার “পরম্পরা” (১৯৯৩) দিয়ে অভিষেকের পর তিনি ১৯৯৪ সালে “ইয়ে দিল্লাগি” এবং “ম্যাঁয় খিলাড়ি তু আনাড়ি” দিয়ে সাফল্য অর্জন করেন। এছাড়া তার ব্যবসাসফল চলচ্চিত্রের মধ্যে রয়েছে “হাম সাথ-সাথ হ্যাঁয়” (১৯৯৯), “চাহতা হ্যায়” (২০০১), “কাল হো না হো” (২০০৩), “এক হাসিনা থি” (২০০৪), “সাইরাস” (২০০৬), “ওমকারা” (২০০৬), “কুরবান” (২০০৯), রেস, রেস-২ অন্যতম। 

সাইফের প্রথম স্ত্রী অভিনেত্রী অমৃতা সিং। তাদের দাম্পত্য জীবন ১৩ বছর স্থায়ী হয়েছিল। তাদের দুই সন্তান রয়েছে। তার বর্তমান স্ত্রী অভিনেত্রী কারিনা কাপুর।

About

Popular Links