Monday, May 20, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

অপি করিমের ‘মায়ার জঞ্জাল’ হাউজফুল, টিকিট না পেয়ে ফিরে গেছেন দর্শক

দেশের স্টার সিনেপ্লেক্সের সব শাখাসহ আরও ১২টি হলে মুক্তি পেয়েছে ‘মায়ার জঞ্জাল’। সেই সঙ্গে চলছে পশ্চিমবঙ্গের ২০টি হলে

আপডেট : ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ০৯:১৬ পিএম

দীর্ঘ ১৯ বছর পর বড় পর্দায় ফেরাটা বেশ রাজকীয় হলো ঢাকাই অভিনেত্রী অপি করিমের। তার অভিনীত “মায়ার জঞ্জাল” ভারতের পশ্চিমবঙ্গ ও বাংলাদেশে একইসঙ্গে মুক্তি পেয়েছে শুক্রবার (২৪ ফেব্রুয়ারি)। সিনেমাটি দেখতে দর্শকের উপচেপড়া ভিড় লক্ষ্য করা গেছে।

ছবিটির প্রযোজক জসিম আহমেদ জানিয়েছেন, শুক্রবার সাভার সেনা অডিটোরিয়ামে শো হাউজফুল গেছে। শ্যামলী সিনেমা হলে টিকিট না পেয়ে দর্শকের ফিরে যাওয়ার খবর পেয়েছি।

তিনি বলেন, “মায়ার জঞ্জাল পরিণত দর্শকের সিনেমা হলেও এর গল্প এমনভাবে বলা হয়েছে, সব শ্রেণির দর্শক কানেক্ট করতে পারবেন। আর এ জন্যই সাভার সেনা অডিটোরিয়ামের মতো সিঙ্গেল স্ক্রিনেও হাউজফুল যাচ্ছে।”

কথাসাহিত্যিক মানিক বন্দ্যোপাধ্যায়ের দুটি ছোট গল্প অবলম্বনে নির্মিত হয়েছে মায়ার জঞ্জাল। তবে নির্মাতা বলছেন, পুরো গল্প নয়, গল্পের নির্যাস নিয়ে নির্মিত হয়েছে সিনেমাটি।

জসিম বলেন, “বিষাক্ত প্রেম ও সুবালা লেখা প্রায় ৭০ বছর আগে। আমরা দুটি গল্প থেকে নির্যাস নিয়ে এই সময়ের আলোকে নির্মাণ করেছি। সিনেমাটা বইয়ের ভাষায় নয়; আমাদের ভাষায় কথা বলেছে। নির্মাতার কাজ হল সময়ের গল্প বলে যাওয়া। আমরা দুটো গল্পের চরিত্রগুলোকে সময়ের আলোকে ছেড়ে দিয়েছি। তারা মায়া আর জঞ্জালে জড়িয়ে একই বিন্দুতে এসে মিলিত হয়েছে।”

জসিম বলেন, “এতে সমাজের উচ্চ শ্রেণির কথা যেমন বলা হয়েছে, তেমন বলা হয়েছে নিম্ন শ্রেণির কথা। সব শ্রেণির মানুষের বিশ্বাস ও টানপোড়নের গল্প তুলে ধরার ফলে সকল শ্রেণির দর্শক নিজের ভেতরকার নানা অনুভূতি ও অভিজ্ঞতা খুঁজে পাচ্ছেন।”

ইশতিয়াক চিশতি নামের এক আমেরিকা প্রবাসী সিনেমাটি দেখেছেন। তিনি অনলাইন সংবাদমাধ্যম বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “ছবিটি খুবই ভালো লেগেছে। শিল্পীরা অনবদ্য অভিনয় করেছেন। গল্প বলার ধরন একেবারেই আলাদা।”

সিনেমাটি দেখে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে অনুভূতি জানিয়েছেন দর্শক। খন্দকার আসাদুজ্জামান কিটন নামের এক দর্শক তার ফেসবুকে লিখেছেন, “অসাধারণ নির্মাণশৈলী ও বাস্তব অভিনয় দেখে আমি যারপরনাই মুগ্ধ। জসিম আহমেদের সাহসী পদক্ষেপে, ইন্দ্রনীল রায়ের মুন্সিয়ানা, অপি করিম ও ঋতিক চক্রবর্তীসহ সকলের সাবলীল অভিনয় আমাকে আবার চলচ্চিত্রমুখী করতে বাধ্য করবে।”

দেশের স্টার সিনেপ্লেক্সের সব শাখাসহ আরও ১২টি হলে মুক্তি পেয়েছে “মায়ার জঞ্জাল”। সেই সঙ্গে চলছে পশ্চিমবঙ্গের ২০টি হলে।


আরও পড়ুন- অপির ‘মায়ার জঞ্জাল'-এর মুক্তি আজ, দেখা যাবে যেসব হলে


পশ্চিমবঙ্গে ভালো সাড়া পাচ্ছেন জানিয়ে জসিম আহমেদ বলেন, “পশ্চিমবঙ্গে শনিবার থেকে দর্শক হলে আসতে শুরু করে। রবিবার ভিড় বাড়তে থাকে। আমাদের সিনেমাটা যেহেতু শুক্রবার মুক্তি পেয়েছে, প্রথম দিনের তুলনায় আজ (শনিবার) দর্শক রেসপন্স বেশি। আমরা আশা করছি রবিবার বেশ কয়েকটি শো হাউজফুল যাবে।”

মায়ার জঞ্জাল পরিচালনা করেছেন ভারতীয় নির্মাতা ইন্দ্রনীল রায়চৌধুরী। জসিম আহমেদের পাশাপাশি কলকাতার ফ্লিপবুক আছে সহপ্রযোজক হিসেবে।

ঢাকার অপি করিম, সোহেল মণ্ডল ও কলকাতার ঋত্বিক চক্রবর্তী, ব্রাত্য বসুসহ দুই বাংলার শিল্পীরা এতে অভিনয় করেছেন।

সিনেমাটি মুক্তির আগেই আর্টহাউস চলচ্চিত্রের বিশ্বসেরা স্ট্রিমিং প্ল্যাটফর্ম “মুবি ডটকম” এ জ্যঁ লুক গদার, ফ্রান্সিস ফোর্ড কপোলা, মার্টিন স্করসেস, কুয়েন্টিন টারান্টিনো, রোমান পোলানস্কি, ডেভিড ফিঞ্চার, ফ্রঁসোয়া ত্রুফোর মতো খ্যাতিমান নির্মাতাদের মাস্টারপিস সিনেমার পাশাপাশি “বিউটিফুল, ইন্টারেস্টিং ও ইনক্রেডিবল” ক্যাটাগরিতে স্থান পেয়েছে।

এছাড়া ২০২০ সালে চীনের সাংহাই আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের এশিয়ান নিউ ট্যালেন্ট অ্যাওয়ার্ডের অফিসিয়াল সিলেকশনে আলোচিত মায়ার জঞ্জালের ওয়ার্ল্ড প্রিমিয়ার হয়। ইউরোপিয়ান প্রিমিয়ার হয় মস্কো আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে।

About

Popular Links