Saturday, May 25, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

মামলা করতে আদালতে শাকিব খান

বৃহস্পতিবার সকাল ১১টা ১৩ মিনিটে ঢাকা চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে উপস্থিত হন শাকিব খান

আপডেট : ২৩ মার্চ ২০২৩, ০১:২৪ পিএম

মানহানির অভিযোগে প্রযোজক রহমত উল্লাহর বিরুদ্ধে মামলা করতে ঢাকা চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে গেছেন ঢাকাই শোবিজের শীর্ষ নায়ক শাকিব খান।

বৃহস্পতিবার (২৩ মার্চ) সকাল ১১টা ১৩ মিনিটে ঢাকা চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে উপস্থিত হন তিনি।

এর আগে শনিবার দিবাগত রাতে শাকিব খান মামলা করতে গুলশান থানায় যান। প্রায় দেড় ঘণ্টা থানার ভেতরে পুলিশ কর্মকর্তাদের সঙ্গে কথা বলেন।

এরপর সেখান থেকে বেরিয়ে শাকিব খান সাংবাদিকদের বলেন, “আমাকে থানা থেকে পরামর্শ দেওয়া হয়েছে আদালতে মামলা করার জন্য। আমার বিরুদ্ধে যিনি অভিযোগ এনেছেন তিনি আসলে প্রযোজক কি-না আপনারা প্রযোজক সমিতিতে গেলেই আসল তথ্য পেয়ে যেতেন। তিনি কোনো প্রযোজকই নন। আমার বিরুদ্ধে একটি ‘ভুয়া' অভিযোগ এনেছেন। যেহেতু ভুয়া অভিযোগ এসেছে, আমি আইনি পদক্ষেপ নিতে থানায় এসেছি।”

অস্ট্রেলিয়ায় শাকিবের বিরুদ্ধে যে অভিযোগ এসেছে সে সম্পর্কে ঢাকাই চলচ্চিত্রের এই শীর্ষ অভিনেতা বলেন, “অস্ট্রেলিয়ার আইন কি এতই দুর্বল যে আমার বিরুদ্ধে সেখানে মামলা হলে বিচার ছাড়াই আমি বাংলাদেশে চলে আসতে পারবো? আপনারা খোঁজ নিয়ে দেখুন, যে মামলা নম্বর উনি উল্লেখ করেছেন সেটি ভুয়া।”

সম্প্রতি শাকিব খানের বিরুদ্ধে শিডিউল ফাঁসানো ও সহ-নারী প্রযোজককে ধর্ষণের অভিযোগ আনেন অস্ট্রেলিয়া প্রবাসী প্রযোজক রহমত উল্ল্যাহ। এ বিষয়ে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতিতে লিখিত অভিযোগ দেন তিনি।

রহমত উল্ল্যাহর অভিযোগ, ২০১৭ সালে অস্ট্রেলিয়ায় “অপারেশন অগ্নিপথ” সিনেমার সময় এক নারী সহ-প্রযোজককে ধর্ষণ করেন শাকিব খান। এরপর তিনি দেশে পালিয়ে আসেন। একই সিনেমার শুটিংয়ে শাকিব খানের বিরুদ্ধে শিডিউল ফাঁসানোরও অভিযোগ আনেন তিনি।

রহমত উল্ল্যাহ'র অভিযোগে বলা হয়, ধর্ষণচেষ্টার ওই ঘটনায় ২০১৮ সালে অস্ট্রেলিয়ায় আটক হয়েছিলেন শাকিব খান। তবে ভুক্তভোগী পরে আর এগিয়ে না আসায় অস্ট্রেলিয়ার আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী ওই বিষয়ে আর কোনো ব্যবস্থা নেয়নি।

About

Popular Links