Sunday, May 26, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

পশ্চিমবঙ্গে মঞ্চ নাটক বন্ধ করে হনুমান পূজা করার পরামর্শ তৃণমূল কংগ্রেসের

নাটকে পশ্চিমবঙ্গের বগটুই গ্রামের ধর্ষণ ও হাঁসখালির ধর্ষণের সমালোচনা ছিল। এছাড়া উত্তরপ্রদেশের হাথরাস হত্যাকাণ্ডকে ইঙ্গিত করে দুই রাজ্যের ক্ষমতাসীন দলকে কাঠগড়ায় দাঁড় করানো হয়েছে

আপডেট : ১২ এপ্রিল ২০২৩, ০৮:০৭ পিএম

ভারতের পশ্চিমবঙ্গ ও উত্তরপ্রদেশের আলোচিত ধর্ষণ, হত্যাকাণ্ডকে উপজীব্য করে নাটক মঞ্চস্থ করতে গিয়ে নিরুপম ভট্টাচার্য নামে এক নাট্যকার মারধরের শিকার হয়েছেন বলে অভিযোগ উঠেছে।

নাটকে পশ্চিমবঙ্গের বগটুই গ্রামের ধর্ষণ ও হাঁসখালির ধর্ষণের সমালোচনা ছিল। এছাড়া উত্তরপ্রদেশের হাথরাস হত্যাকাণ্ডকে ইঙ্গিত করে দুই রাজ্যের ক্ষমতাসীন দলকে কাঠগড়ায় দাঁড় করানো হয়েছে।

রবিবার (৯ এপ্রিল) রাজ্যের হালিশহরে নাটকটি মঞ্চস্থ করা হয়। ভারতের অন্ধ্র প্রদেশের কবি ভারভারা রাওয়ের একটি কবিতা অবলম্বনে “কসাই” নামে নাটকটি রচিত হয়েছে। উল্লেখ্য যে, ভারভারা রাওকে এর আগে একটি মামলায় গ্রেপ্তারও করা হয়েছিল।

গতকাল মঙ্গলবার নাট্যকার নিরুপম ভট্টাচার্যকে পশ্চিমবঙ্গের ক্ষমতাসীন দলের কয়েকজন নেতাকর্মী হুমকি দিয়ে নাটকের শো বন্ধ করতে বলেন। রাজ্যের রানাঘাটে তাকে শারীরিক নির্যাতন করা হয় বলেও অভিযোগ রয়েছে। এ সময় নাট্যকারের বাবা কথা-কাটাকাটির মধ্যে এলে তার সঙ্গেও খারাপ আচরণ করা হয়।

নাট্যকার নিরুপম অভিযোগ করেছেন, “তাকে বলা হয়েছে, নাটকের মহড়া বন্ধ করে হনুমান পূজা করতে। নাটকের বিষয় হলো, রাষ্ট্রই আসলে কসাই। রাষ্ট্রের অনাচারের বিরুদ্ধে নাটকটি মঞ্চস্থ হয়। মোট ২১টি শো করেছি। জুলাই মাসে আমার বাড়িতে নাটক করা, দেখার ছোট জায়গা ‘ডাকঘর' নির্মাণ করি। অল্প দর্শক এখানে নাটক দেখতে পারেন। এই জায়গাকেই ভেঙে ফেলতে বলেছে হামলাকারীরা।”

নিরুপম ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এবিপি আনন্দকে বলেছেন, “হামলাকারীদের আপত্তির জায়গা দুটো। একটা সংলাপ আছে, পোড়া গন্ধে ছিছিক্কার। মুখ্যমন্ত্রীকে হাজির হতে হয়। দেবী সদয় হলে, দু-চারটে ধরপাকড় হয়। চাকরির প্রতিশ্রুতি দিলেই চলে। আর আমরা বলেছি, রাষ্ট্রই কসাই।'”

নিরুপম জানান, তার নাট্য অডিটরিয়ামের পাশে হনুমানের মন্দির করেছে ক্ষমতাসীন তৃণমূলের কর্মীরা। এ নিয়ে তিনি থানায় অভিযোগ করতে গেলে পুলিশ অভিযোগ নেয়নি। পরে বিভিন্ন নাট্য সংস্থা সোচ্চার হলে অভিযোগ নেওয়া হয়।

এ ঘটনায় ভারতের পশ্চিমবঙ্গের সংস্কৃতিকর্মীরা কড়া সমালোচনা করেছেন। পরিচালক ও অভিনেতা কৌশিক সেন বলেছেন, “নিরুপম একইসঙ্গে তৃণমূল ও বিজেপি সরকারকে সমালোচনা করেছে। শিল্পী হিসাবে মনে করি, তার পূর্ণ স্বাধীনতা আছে। তৃণমূলের গুন্ডারা তার ওপর চড়াও হয়েছে। তাকে নাটক ও তার ডাকঘর বন্ধ করে দিতে বলেছে। আমি একজন নাট্য নির্দেশক ও নাট্যকর্মী হিসাবে বলতে চাই, আমরা নিরুপমের পাশে আছি।”

অভিনেতা ঋদ্ধি সেন বলেছেন, “কিছুদিন আগেই দেখেছি, নাট্যকর্মীর গায়ে হাত তোলা হয়েছে। এই সব ঘটনা থেকে শাসক তৃণমূলের ভীত চেহারা দেখা যাচ্ছে। কখন মানুষ এরকম করে? যখন তারা মরিয়া হয়ে ওঠে।”

নাট্যপরিচালক দেবেশ চট্টোপাধ্যায় বলেছেন, “অত্যন্ত নিন্দনীয় ঘটনা। দোষীদের অবিলম্বে গ্রেপ্তারের দাবি জানাচ্ছি।”

About

Popular Links