Wednesday, May 22, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

আইসিইউতে ম্যাডোনা

ম্যাডোনার অবস্থা আগের চেয়ে ভালো হলেও তার পুরোপুরি সেরে উঠতে আরও সময় লাগবে

আপডেট : ২৯ জুন ২০২৩, ০৫:৪১ পিএম

ব্যাক্টেরিয়ার মারাত্মক সংক্রমণে অসুস্থ মার্কিন পপস্টার ম্যাডোনাকে হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) ভর্তি করা হয়েছে।

বুধবার (২৮ জুন) গায়িকার অসুস্থতা নিয়ে ইনস্টাগ্রামে বিবৃতি দেন ম্যাডোনার দীর্ঘদিনের ম্যানেজার গাই ওজারি।

তিনি জানান, ম্যাডোনার অবস্থা আগের চেয়ে ভালো হলেও তার পুরোপুরি সেরে উঠতে আরও সময় লাগবে।

এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে ভারতের সংবাদমাধ্যম ইকোনমিক টাইমস।

বিবৃতিতে ওজারি লিখেন, “২৪ জুন গুরুতর জীবাণু সংক্রমণে তাঁকে নিবিড় পরিচর্যাকেন্দ্রে নেওয়া হয়। তার শারীরিক অবস্থার উন্নতি হচ্ছে। যদিও তাঁকে আরও কিছুদিন চিকিৎসকদের পর্যবেক্ষণে থাকতে হবে।”

হাসপাতাল সূত্র জানায়, সংক্রমণ বেশ গুরুতর হওয়ায় তাকে কয়েকদিন আইসিইউতে থাকতে হতে পারে। তবে শিগগিরই মাডোনা পুরোপুরি সুস্থ হয়ে উঠবেন বলে আশা চিকিৎসকদের।

এদিকে জুলাই মাসে ৮৪ দিনের দীর্ঘ ওয়ার্ল্ড ট্যুর শুরু করার কথা ছিল ৬৪ বছর বয়সী গায়িকার। তবে অসুস্থতার কারণে সেটি আপাতত স্থগিত রাখা হচ্ছে বলেও জানান গাই ওজারি।

তিনি বলেন, “এই অবস্থায় আমাদের সব ধরনের পূর্বপ্রতিশ্রুতি স্থগিত রাখতে হচ্ছে, এর মধ্যে ওয়ার্ল্ড ট্যুরও পড়বে।”

“যত দ্রুত সম্ভব আমরা এ বিষয়ে বিস্তারিত জানাব। ট্যুর শুরুর নতুন তারিখ ও সংশোধিত সূচি জানিয়ে দেওয়া হবে।”

যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন গণমাধ্যম জানিয়েছে ম্যাডোনার মেয়ে লর্দে লিও তার পাশেই আছেন। ২০১৯ সালের সেপ্টেম্বর থেকে ২০২০ সালের মার্চ পর্যন্ত সর্বশেষ ওয়ার্ল্ড ট্যুর “ম্যাদাম এক্স”-এ অংশ নিয়েছিলেন ম্যাডোনা। তিন বছর পর তার ট্যুর নিয়ে তাই ভক্তদের মধ্যে ব্যাপক আগ্রহ ছিল। কিন্তু হাঁটু ও কোমরের ইনজুরির কারণে সেসময় বেশ কয়েকটি শো বাতিল করতে হয়। থিয়েটারভিত্তিক এক্সপেরিমেন্টাল সেই ট্যুরের শেষ দশটি শো ছিল প্যারিসে, সেগুলো বাতিল হয় কোভিড মহামারীর কারণে।

২০২০ সালে পর্তুগালের লিসবনে একটি অনুষ্ঠান বাতিল করে দুঃপ্রকাশ করেছিলেন ম্যাডোনা। সেসময় তিনি বলেছিলেন, “আমাকে অবশ্যই আমার শরীরের অবস্থাও বুঝতে হবে এবং বিশ্রাম নিতে হবে।”

ছয় সন্তানের জননী ম্যাডোনা একাধারে গায়ক ও গীতিকার। কেবল যুক্তরাজ্যেই তার ৬৩টি গান বিভিন্ন সময়ে শীর্ষ দশে স্থান করে নিয়েছে। এর মধ্যে ১৩টি গান ছিল নম্বর ওয়ান সিঙ্গেল।

গিনেস বুক অব ওয়ার্ল্ড রেকর্ডসে জায়গা করে নেওয়ার পাশাপাশি অসংখ্য রেকর্ড ভেঙেছেন ম্যাডোনা। তিনি ২০০৪ সালে যুক্তরাজ্যের মিউজিক হল অফ ফেমের পাঁচ প্রতিষ্ঠাতা সদস্যের একজন নির্বাচিত হন। ২০১০ সালে যুক্ত হন “রক অ্যান্ড রোল হল অফ ফেম”-এ।

রোলিং স্টোন তাকে সর্বকালের সেরা ১০০ শিল্পীর বিশেষ তালিকায় ৩৬-তম স্থান দেয়। আর বিলবোর্ড ২০১৬ সালে তাকে বর্ষসেরা নারীর স্বীকৃতি দেয়।

About

Popular Links