Sunday, May 26, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ‘ভদ্রভাবে’ ক্ষোভ প্রকাশ করতে সামান্থার আহ্বান

দুই নায়িকার ছবিতে কাজ করার বিষয়েও কথা বলেছেন সামান্থা

আপডেট : ৩০ নভেম্বর ২০২১, ০৮:২০ পিএম

নাগা চৈতন্য‘র সঙ্গে বিচ্ছেদের পর ট্রলের শিকার হওয়ায় তেলেগু চলচ্চিত্রের জনপ্রিয় তারকা সামান্থা রুথ প্রভু বলেছিলেন,  সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহারকারীদের তাদের ক্ষোভ প্রকাশ করার জন্য আরও “ভদ্র“ হওয়া উচিত।

এবার আবারও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহারকারীদের প্রতিক্রিয়া সম্পর্কে মুখ খুললেন সামান্থা রুথ প্রভু। নতুন এক সাক্ষাত্কারে তিনি আবারও আহ্বান জানান, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহারকারীরা যেন “ভদ্রভাবে“ ক্ষোভ প্রকাশ করে। দুই নায়িকার ছবিতে কাজ করার বিষয়েও কথা বলেছেন তিনি।

এলে ইন্ডিয়াকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে সামান্থা বলেন, “আমি সমালোচনাহীন স্বীকৃতি চাই না। আমি লোকেদের ভিন্ন মতামতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল, তবে আমরা এখনও একে অপরের প্রতি ভালবাসা এবং সমবেদনা দেখাতে পারি। আমি কেবল আরও ভদ্রভাবে তাদের ক্ষোভ প্রকাশের অনুরোধ করব।"

সাম্প্রতিক চারধাম যাত্রা সম্পর্কে সমান্থা জানান, যে তিনি আশা করেন আরও অনেক কিছু ঘটবে এবং তিনি অনুভব করেন যে ঈশ্বর তাকে “চলার মতো পর্যাপ্ত পরিমাণ শক্তি“ দিয়েছেন।

দুই নায়িকার চলচ্চিত্রে কাজ করার বিষয়ে কথা বলতে গিয়ে নয়নতারার সঙ্গে বিঘ্নেশ শিবানের “কাথু ভাকুলা রেন্দু কাধল“ চলচ্চিত্রের অভিজ্ঞতা উল্লেখ করেন।

সামান্থা বলেন, “দুই নায়িকার ছবি দেখতে আমার খুব মজা লাগে, যেখানে নারীরা কখনই সেটে একে অপরের সঙ্গে দেখা করে না। লোকেদের মতে, এক ছবিতে দুই নায়িকা থাকলে সবসময় প্রতিযোগিতা থাকার কথা, একে অপরের চুল ছেঁড়ার মতো ঝগড়া হওয়ার কথা, কিন্তু বিঘ্নেশ এবং নয়নতারা আমার কাছে তাদের প্রতিশ্রুতি রেখেছিলেন। আমার এবং নয়নতারার ভূমিকা সমান এবং আমি তার সঙ্গে প্রতিটি দৃশ্যে আছি, এটা খুব স্বস্তিদায়ক ছিল! নয়নতারা বিঘ্নেশের বাগদত্তা।“

তেলেগু চলচ্চিত্রের জনপ্রিয় তারকা জুটি সামান্থা রুথ প্রভু ও নাগা চৈতন্য গত অক্টোবরে এক দশকেরও বেশি সময় একসঙ্গে পথচলার ইতি ঘোষণা করেন। ২০১০ সালে “ইয়ে মায়া চেসাভে” চলচ্চিত্রে অভিনয়ের সময় প্রেমে পড়েন তারা। ২০১৭ সালে বিয়ে করেন।

বিচ্ছেদের কারণ সম্পর্কে দুজনের কেউই মুখ না খুললেও  সামাজিক যোগযোগ মাধ্যমে অনেক জল্পনা-কল্পনা চলে সামান্থা-চৈতন্যের বিচ্ছেদের কারণ নিয়ে।

ভারতের তেলেগু ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির সর্বাধিক জনপ্রিয় এই দম্পতি তাদের বিচ্ছেদের বিষয়টি নিশ্চিত করে তাদের নিজ নিজ সোশ্যাল মিডিয়া হ্যান্ডলে একটি যৌথ বিবৃতি প্রকাশ করেন। 

বিবৃতিতে সামান্থা বলেন, “অনেক চিন্তার পর চৈ ও আমি, স্বামী-স্ত্রী হিসেবে নিজেদের পথ আলাদা করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। আমরা ভাগ্যবান যে এক দশকেরও বেশি সময় ধরে বন্ধুত্ব ছিল আমাদের সম্পর্কের মূল ভিত্তি। আমরা বিশ্বাস করি, আমাদের মধ্যে এই বিশেষ বন্ধনটি আজীবন থাকবে। আমরা আমাদের ভক্ত, শুভাকাঙ্ক্ষী এবং গণমাধ্যমকে অনুরোধ করছি এই কঠিন সময়ে আমাদের সমর্থন করুন এবং আমাদের এগিয়ে যাওয়ার জন্য গোপনীয়তা নিশ্চিত করতে সহায়তা করুন।”

About

Popular Links