Saturday, May 18, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

ছেলের জন্মদিনে রাজকে দেখতে চান না পরীমণি

রাজ্যের প্রথম জন্মদিনে বিশেষ আয়োজন রেখেছেন তার মা

আপডেট : ০৪ আগস্ট ২০২৩, ০৬:৩৬ পিএম

দাম্পত্য জীবন নিয়ে কিছুদিন পরপরই আলোচনায় উঠে আসেন চিত্রনায়িকা পরীমণি এবং চলচ্চিত্র অভিনেতা শরিফুল রাজ। অনেকদিন ধরেই দুজন একসঙ্গে থাকছেন না। কাগজে-কলমে বিবাহবিচ্ছেদ না হলেও দুজনই ইতোমধ্যে বেশ কয়েকবার জানিয়ে দিয়েছেন, তাদের সংসার আর টিকছে না।

ছেলে শাহীম মুহাম্মদ রাজ্যের বিষয়ে অবশ্য রাজ-পরীমণির অবস্থান একই ছিল। নিয়ম করে প্রতি মাসের ১০ তারিখে বাসায় ছোট পরিসরে রাজ্যর জন্ম তারিখ পালন করে আসছিলেন রাজ ও পরী। আলাদা থাকলেও ছেলের দশ মাস বয়স উপলক্ষে একসঙ্গে কেকও কেটেছিলেন এ দম্পতি। যদিও রাজ্যের ১১ মাস পূর্তিতে রাজ-পরীকে আর একসঙ্গে দেখা যায়নি।

বৃহস্পতিবার (১০ আগস্ট) এক বছর পূর্ণ করে দুই বছরে পা রাখবে রাজ্য। তার প্রথম জন্মদিন উপলক্ষে রাজধানী ঢাকার একটি হোটেলে বিশেষ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হবে। তবে সেই অনুষ্ঠানে রাজ আসুন, সেটি চাচ্ছেন না পরীমণি। মূলত সন্তানের প্রতি রাজের উদাসীনতার কারণেই পরীমণির এমন চাওয়া। এক প্রতিবেদনে এ কথা জানিয়েছে দৈনিক প্রথম আলোর অনলাইন সংস্করণ।

ইতোমধ্যে রাজ্যের প্রথম জন্মদিনের অনুষ্ঠানের প্রস্তুতি সম্পূর্ণ হয়েছে বলে জানিয়েছেন পরীমণি। তিনি বলেন, “আমরা প্রতি মাসেই বাবুর জন্মদিন পালন করেছি। কিন্তু বাবুর বয়স এক বছর পূর্ণ হওয়ার অপেক্ষায় ছিলাম। ১০ আগস্ট তা পূর্ণ হচ্ছে। এটি হবে তার সত্যিকারের প্রথম জন্মদিন পালন। অনেক আগে থেকেই এই আয়োজনের প্রস্তুতি চলছে। যেহেতু রাজ্য ছোট, তাই খুব বড় করে প্রথম জন্মদিনের অনুষ্ঠান করছি না। পরিবারের লোকজন ও কিছু শুভাকাঙ্ক্ষী নিয়ে অনুষ্ঠানটি করব। তবে রাজ্য আরও বড় হলে বড় আয়োজনে করব।”

বিগত এক মাস ধরেই দেশের বাইরে রয়েছেন শরিফুল রাজ। ছেলে রাজ্যের প্রথম জন্মদিনের সময় যখন ঘনিয়ে আসছে, তখন বাবা রাজ দেশের বাইরে অবস্থান করছেন। পরীমণি জানান, রাজ দেশে না ফেরায় রাজ্যর জন্মদিনের সব আয়োজন মা হিসেবে তাকে একাই করতে হচ্ছে।

রাজ ও পরীমণি

পরীমণি বলেন, “রাজের কোনো খবর নেই। অনেক আগে থেকেই আমি ও রাজ মিলে বাবুর প্রথম জন্মদিন পালনের ব্যাপারে কত পরিকল্পনা করেছিলাম। অথচ জন্মদিন পালনের আগে আগে এসে তাকে আর পেলাম না। শুনেছি অনেক দিন হলো, দেশের বাইরে গেছে। এখনো সে ফেরেনি। অনুষ্ঠানের আর এক সপ্তাহ বাকি। অথচ বাবা হিসেবে রাজ কোনো দায়িত্বই পালন করল না। বিষয়টি দুঃখজনক। রাজ্য বড় হয়ে যখন জানতে পারবে, তার প্রথম জন্মদিনে বাবা পাশে ছিলেন না, রাজ্যর জন্য এটি কষ্টের হবে, দুঃখের হবে।”

এ চিত্রনায়িকা আরো বলেন, “প্রায় এক মাস হয়ে গেল ভারতে আছে রাজ। মাঝখানে রাজ্য অসুস্থ ছিল, পাশে পায়নি বাবাকে। আবার জন্মদিনেও পাশে পাচ্ছে না। একবারও ফোন করে ছেলের খোঁজখবর নেয়নি সে। এই যে জন্মদিন পালন করব, কীভাবে করছি, কতটুকু পারছি, কোনো খবর নেই তার। একবার ফোনও করল না সে।”

ঢালিউড অভিনেত্রী আক্ষেপভরা কন্ঠে বলেন, “ছেলের জন্মদিনের আয়োজনের জন্য বাবা হিসেবে একটাবার ফোন করে পরামর্শ দিতে পারত, করল না। দেশের বাইরে যাওয়ার পর আমিই নিজ থেকেই তাকে কয়েকবার ফোন করেছি। কিন্তু সে কোনো কল দেয়নি। শুনেছি তার স্মার্টফোনটি হারিয়ে গেছে। কিন্তু তার আরেকটি ফোনও আছে। সেই নম্বরেও ফোন করেছি, ধরেনি। ফিরতি ফোনও করেনি। আর এখন আমি চাই না, রাজ আমার ছেলের জন্মদিনে আসুক।”

মা হিসেবে যাত্রার সময়টা মসৃণ ছিল না উল্লেখ করে পরীমণি বলেন, “এই পথের সময়টা কখনো আনন্দে কেটেছে, কখনো দুঃখে কেটেছে। রাজ্যকে সামনে রেখে কত যে নির্ঘুম রাত পার করেছি! কিন্তু রাজ্য বড় হয়ে যাচ্ছে, এটাই সুখের। রাজ্যকে নিয়ে এখন ভাবতে কান্না চলে আসে। এটি বলতে পারেন সুখের কান্না, আনন্দের কান্না। দেখতে দেখতে বাবুটা আমার বড় হয়ে যাচ্ছে। আগে পাশে শুয়ে থাকলে আমি ছোট্ট রাজ্যর পা হাতের মুঠোয় নিয়ে ঘুমাতাম। তখন মনে মনে ভাবতাম, কবে বড় হবে! এখন পাশে নিয়ে ঘুমাতে গেলে ওর পা যেন খুঁজে পাই না। বড় হয়ে গেছে বাবুটা!”

তিনি আরো বলেন, “আগে বাচ্চাটা উপুড় হয়ে শুয়ে থাকত, ভাবতাম কবে উঠে বসবে। এরপর বসা শুরু করল। আবার যখন বসা শুরু করল, ভাবলাম কবে দাঁড়াবে। দাঁড়াতেও শিখল। মজা লাগে, দাঁড়িয়ে ধীরে ধীরে হাঁটার চেষ্টা না করে দৌড় দেওয়ার চেষ্টা করে। আর অমনি ধপাস করে পড়ে যায়। হা হা হা...! সব মা-বাবাই চান, সন্তান তাড়াতাড়ি বড় হোক। রাজ্য বড় হচ্ছে, কিন্তু একটা সময় ছোট্ট রাজ্যকে খুব মিস করব।”

রাজ ও পরীমণি

উল্লেখ্য, গিয়াসউদ্দিন সেলিমের “গুণিন” সিনেমার শুটিংয়ে চিত্রনায়ক শরিফুল রাজ ও চিত্রনায়িকা পরীমণির প্রথম দেখা। আর সেই সাক্ষাতের এক সপ্তাহের মাথায় ২০২১ সালের ১৭ অক্টোবর তারা গোপনে বিয়ে করেন। ২০২২ সালের ১০ জানুয়ারি সেই খবর প্রকাশ্যে আনেন তারা। একই দিনে সন্তান ধারণের বার্তাটিও দেন এ দম্পতি। এরপর ২২ জানুয়ারি তারা পারিবারিক আয়োজনে বিয়ে সারেন। একই বছরের ১০ আগস্ট তাদের ঘর আলো করে আসে পুত্রসন্তান শাহীম মুহাম্মদ রাজ্য।

গত ২৯ মে দিবাগত রাতে শরিফুল রাজের ব্যক্তিগত ফেসবুক আইডি থেকে ছড়িয়ে পড়ে অভিনেত্রী সুনেরাহ বিনতে কামাল, তানজিন তিশা এবং নাজিফা তুষির সঙ্গে ব্যক্তিগত মুহূর্তের ছবি ও ভিডিও ক্লিপ। সেসব কন্টেন্টে কিছুটা “অস্বাভাবিক” অবস্থায় দেখা যায় তিন অভিনেত্রীকে। কথাবার্তায়ও ছিল অস্বাভাবিকতা। যদিও কিছুক্ষণ পরই সেগুলো মুছে দেওয়া হয়। ওই ছবি-ভিডিও কে পোস্ট করেছে তার কিছুই জানা যায়নি এখনও। তবে ওই ভিডিওর সূত্র ধরেই রাজ-পরীর সংসারে আলাদা থাকার খবর প্রকাশ্যে আসে।

ঘটনার পর স্বামী ও চিত্রনায়ক শরিফুল রাজের সঙ্গে সংসারে টানাপোড়েনের ইঙ্গিত দিয়েছিলেন পরীমণি। তিনি জানান, রাজের সঙ্গে অনেক চেষ্টা করেও এক ছাদের নিচে থাকতে পারেননি তিনি। পরবর্তীতে একটি সংবাদমাধ্যমের সঙ্গে আলাপকালে শরিফুল রাজকে আগাগোড়া “ফেইক” মানুষ আর “অতিথি পাখি” হিসেবে উল্লেখ করে তার কাছ থেকে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে ডিভোর্স চেয়েছিলেন এ ঢালিউড অভিনেত্রী। জবাবে রাজও জানিয়েছিলেন, তাদের সংসার থাকছে না, এটা চূড়ান্ত। তার আর কিছু বলার নেই।

About

Popular Links