Sunday, June 16, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

রাজ: সুযোগ পেলেই মানুষ আমাদের নিয়ে বাজনা বাজায়

রাজের ধারণা, তাদের কাছের মানুষরাই চান না তিনি ও পরী ভালো থাকুন

আপডেট : ২২ আগস্ট ২০২৩, ০৪:২১ পিএম

পরীমণি ও শরিফুল রাজ দম্পতি দেশের চলচ্চিত্র জগতের এক আলোচিত জুটি। সিনেমায় কাজের চেয়ে তাদের ব্যক্তিগত জীবনের বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোচনা বেশি হয়। গত কয়েক মাস ধরে প্রায়ই সংসারের বিভিন্ন বিষয়ে খবরের শিরোনামে আসেন তারা। বিনোদন ভুবনের মানুষ হওয়ায় এবং সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমের কল্যাণে ব্যক্তিগত জীবন উন্মুক্ত থাকায় স্বাভাবিকভাবেই রাজ-পরী দম্পতি নিয়ে চর্চা বেশি। 

চলচ্চিত্র দম্পতিদের নিয়ে এর আগেও ঢালিউডে কম চর্চা না হয়নি। তবে রাজ-পরী সব আলোচনা ছাপিয়ে গেছেন। এসব মাতামাতিতে তাদের ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে বিভ্রান্তিকর তথ্য ছড়ানো হচ্ছে বলে মনে করেন শরিফুল রাজ।

রাজ জানিয়েছেন, স্ত্রী-সন্তানকে নিয়ে তিনি বর্তমানে বসুন্ধরার বাসাতেই আছেন। সম্পর্কে উত্থান-পতন আছে, তবে তার আর পরীর মধ্যে কোনো সমস্যা নেই। আলোচনা বেশি হওয়ার কারণেই তাদের নিয়ে চর্চা বেশি। আর এতে তাদের কাছের মানুষরাই ইন্ধন যুগিয়েছেন বলে দাবি করেন রাজ।

দাম্পত্য জীবনে টানাপড়েনের কারণে গত মাস তিনেক ধরে আলাদা থাকছেন রাজ ও পরীমণি। এই দম্পতির সন্তান রাজ্যের প্রথম জন্মদিন উপলক্ষে গত ১০ আগস্ট রাজধানীর একটি পাঁচ তারকা হোটেলে আয়োজিত অনুষ্ঠানে রাজের দেখা মেলেনি। অবশ্য তার আগের রাতে ছেলেকে দেখতে গিয়েছিলেন তিনি। ওই দিন রাজ বাসায় গেলে পরীমণি পাশের ঘরে গিয়ে দরজা বন্ধ করে দেন। রাজের মুখ দেখতেও অনীহা দেখান তিনি।

গত সপ্তাহে গান বাংলা চ্যানেলের দুই কর্ণধার কৌশিক হোসেন তাপস ও ফারজানা মুন্নী দম্পতি তাদের কার্যালয়ে রাজ-পরীর ছেলে রাজ্যর জন্মদিন উদযাপন করতে কেক কাটেন। সেখানেই দেখা হয় রাজ ও পরীর, একসঙ্গে ছবিও তোলেন তারা। অনেকেই সেই ছবি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে শেয়ার করে এই দম্পতিকে পুনর্মিলনীর শুভেচ্ছা জানান।

কিন্তু তার একদিন পরই বসুন্ধরার এভারকেয়ার হাসপাতালে ভর্তি হন রাজ ও পরীমণি। এর মধ্যে পরীমণি জ্বর নিয়ে এবং রাজ মাথায় আঘাত নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হন। গণমাধ্যম ও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমেও তাদের হাসপাতালে ভর্তির বিষয় নিয়ে আলোচনা শুরু হয়।

সূত্রের বরাতে বিভিন্ন গণমাধ্যমে বলা হয়, রাজ-পরীর পুনর্মিলনীর একদিনের মাথায় সময়ের সফল চলচ্চিত্র নির্মাতা রায়হান রাফীর কার্যালয়ে রাজ-পরীর তুমুল ঝগড়া হয়। একপর্যায়ে তা গুরুতর রূপ নেয়। রক্তাক্ত হন রাজ। অসুস্থ হয়ে পরীমণি আর মাথায় আঘাত পেয়ে হাসপাতালে ভর্তি হন।

তবে সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত এসব খবর ভিত্তিহীন বলে জানান রাজ। তিনি বলেন, “ফেসবুক বা কিছু অনলাইন পোর্টালে যেসব তথ্য ছড়ানো হয়েছে, সেসব সত্য নয়। আমার যা ঘটেনি, তা ছড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। এটি খুবই দুঃখজনক, এসব শুনে-দেখে কষ্ট পাচ্ছি আমি। গাড়ি দুর্ঘটনায় সামান্য আহত হয়েছিলাম আমি। সামান্য চিকিৎসা নিতে হয়েছিল। ওই দিন ঠিকঠাক হয়ে গেছি। আমি কয়েক দিন ধরে আমার পরবর্তী সিনেমার প্রস্তুতি নিয়ে খুব ব্যস্ত আছি। বাইরে মনোযোগ কম দিচ্ছি।”

এই চলচ্চিত্র অভিনেতা আরও বলেন, “আমি, পরী, রাজ্য-এই নিয়ে আমার ঘর। আমি ও পরী ঠিকঠাক আছি। আমাদের মধ্যে কোনো সমস্যা নেই। ওর (পরীমণি) জ্বর হয়েছিল। এখন বেশ সুস্থ আছে। আমাদের নিয়ে বাজনাটা বেশি, সুযোগ পেলেই মানুষ আমাদের বাজায়।”

পরীমণির সঙ্গে সম্পর্কের টানাপড়েনের প্রসঙ্গে রাজ বলেন, “স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে ঝামেলা হতেই পারে এবং আমাদের মধ্যে কোনো কিছু ঘটলে, যখনই ঠিক করতে যাই, তখনই চারপাশ থেকে কোনো না কোনো একটা ক্যাচাল বা কোনো ইস্যু তৈরি করা হয়। আমি বিষয়টি নিয়ে খুবই বিরক্ত। সবকিছুর সমাধান হওয়া দরকার, শেষ হওয়া দরকার।”

রাজের ধারণা, তাদের কাছের মানুষরা চান না তিনি ও পরী ভালো থাকুন। এ কারণেই কাছের মানুষদের ইন্ধনে তাদের ঘিরে একের পর এক বিভ্রান্তিকর তথ্য প্রচার করা হচ্ছে। রাজ বলেন, “আমার কাছে মনে হয়, আমার চারপাশের কিছু মানুষ এই সব বিভ্রান্তি ছড়িয়েছেন, ছড়াচ্ছেন। মনে হচ্ছে, তারা ভালো চান না, তারা আমাদের ভালো থাকতে দেবেন না।”

কাছের মানুষদের দিকে আঙুল তুললেও তারা আদতে কারা, সেটা স্পষ্ট করে বলেননি রাজ। এই চিত্রনায়ক বলেন, “তাদের কথা আর বলতে চাই না। এসব করে যদি তাঁরা ভালো থাকেন, থাকুক। যখন সময় আসবে, তখন সব বলব। আমি আগে নিজেকে একটু গুছিয়ে নিই, নিজে ঠিকঠাক হয়ে নিই, সব বলব।”

উল্লেখ্য, গিয়াসউদ্দিন সেলিমের “গুণিন” সিনেমার শুটিংয়ে চিত্রনায়ক শরিফুল রাজ ও চিত্রনায়িকা পরীমণির প্রথম দেখা। আর সেই সাক্ষাতের এক সপ্তাহের মাথায় ২০২১ সালের ১৭ অক্টোবর তারা গোপনে বিয়ে করেন। ২০২২ সালের ১০ জানুয়ারি সেই খবর প্রকাশ্যে আনেন তারা। একই দিনে সন্তান ধারণের বার্তাটিও দেন এ দম্পতি। এরপর ২২ জানুয়ারি তারা পারিবারিক আয়োজনে বিয়ে সারেন। একই বছরের ১০ আগস্ট তাদের ঘর আলো করে আসে পুত্রসন্তান শাহীম মুহাম্মদ রাজ্য।

গত ২০ মে পরীমণিকে রেখে বাসা থেকে বেরিয়ে যান রাজ। ২৯ মে রাতে রাজের ফেসবুক আইডি থেকে রাজ ও তিন অভিনেত্রীর ব্যক্তিগত কিছু ছবি ও ভিডিও ফাঁস হয়। এরপরই প্রথম রা-পরীর আলাদা থাকার কথা প্রকাশ্যে আসে। স্বামী ও চিত্রনায়ক শরিফুল রাজের সঙ্গে সংসারে টানাপোড়েনের ইঙ্গিত দিয়ে পরীমণি জানান, রাজের সঙ্গে অনেক চেষ্টা করেও এক ছাদের নিচে থাকতে পারেননি তিনি। রাজের কাছ থেকে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে ডিভোর্স চেয়েছিলেন এ ঢালিউড অভিনেত্রী। জবাবে রাজও জানিয়েছিলেন, তাদের সংসার থাকছে না, এটা চূড়ান্ত। তার আর কিছু বলার নেই।

About

Popular Links