Tuesday, May 28, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

শাকিবের সঙ্গে সম্পর্ক প্রসঙ্গে বুবলী, ‘ডিভোর্স হয়নি, সময় নিচ্ছি’

শাকিব খানের সঙ্গে ব্যক্তিগত অভিজ্ঞতা তুলে ধরে নানা কথা জানিয়েছেন অভিনেত্রী

আপডেট : ০৯ এপ্রিল ২০২৪, ০৩:৫১ পিএম

শাকিব খানের সঙ্গে সম্পর্ক নিয়ে আবারও প্রকাশ্যে কথা বলেছেন শবনম বুবলী। তিনি জানিয়েছেন, এখনও ডিভোর্স হয়নি তাদের। এজন্য সময় নিচ্ছেন তারা।

সোমবার (৯ এপ্রিল) একটি বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেলে প্রকাশিত সাক্ষাৎকারে এ কথা জানান ‘‘প্রহেলিকাঁ’’ অভিনেত্রী।

‘‘বলা না-বলা’’ নামে ওই অনুষ্ঠানে জীবনের নানা দিক নিয়ে কথা বলেন তিনি।

সাক্ষাৎকারে শাকিব খানের সঙ্গে ব্যক্তিগত অভিজ্ঞতাও তুলে ধরেন বুবলী। দুজনের মধ্যে কে বেশি কথা বলেন প্রশ্নে অভিনেত্রী বলেন, ‘‘আমাদের দুজনের মধ্যে একটা মিল আছে, আমি যখন চুপচাপ থাকি তখন চুপচাপ। আবার পরিবারের সঙ্গে থাকলে খুব কথা বলি। শাকিব খান কিন্তু সেটে চুপচাপ থাকেন। আবার যখন বন্ধুমহলে থাকেন তখন খুব আড্ডাবাজ। বিষয়টি আসলে পরিস্থিতির ওপর নির্ভর করে।’’

শাকিব খানের রাগ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘‘তার রাগ প্রচুর। রেগে গেলে চুপ হয়ে যান, তবে প্রকাশ করেন না। বুঝে নিতে হয়। আমিও তখন চুপচাপ হয়ে যাই। তাকে বোঝাতে চেষ্টা করি। রাগটা সঠিক হলে বোঝাতে চাই। আর না হলে সময় নিই যে তিনি হয়তো বুঝতে পারবেন। আর উল্টো দিকে আমি সহজে রাগি না। খুব যৌক্তিকভাবে রাগ করি। রাগটা আসলে তেমন নয়, প্রতিক্রিয়া দেখাই। রাগ ভাঙাতে শাকিব খানই এগিয়ে আসেন।’’

ভালোবেসে বুবলীকে কী নামে ডাকতেন শাকিব খান এমন প্রশ্নে এ অভিনেত্রী বলেন, ‘‘এটা তার মুডের ওপর নির্ভর করে। বেশির ভাগ সময়ই বুবলী বলে ডাকতেন। কখনো কখনো আদর করে লক্ষ্মী বলেও ডাকতেন।’’

কিন্তু বুবলী শাকিব খানকে কী নামে ডাকতেন, সে প্রসঙ্গে কিছুই বলেননি তিনি।

বীরের সঙ্গে বাবার সম্পর্ক কেমন এমন প্রশ্নে বুবলী বলেন, ‘‘এ রকমটা প্রায়ই হয়। বাবা-সন্তানের খুনসুটির দৃশ্য আমি তুলে নিই। আসলে শাকিব খানতো ব্যস্ত থাকেন, সেখান থেকেই ছেলেকে সময় দেওয়ার চেষ্টা করেন। তবে বাবা-মায়ের দূরত্বটা এখনো মনে করে না বীর। ও আমাদের বাবা-মা-ই মনে করে। আমাদের মাঝে মাঝে স্পেসও দেয়। ও বুঝে নেয়, বাবা-মা একসঙ্গে সময় কাটাচ্ছে। আমরা তো বিশেষ দিনগুলোর ছবি শেয়ার করি, এই জন্মদিনেও বীরের বাবা-দাদির সঙ্গে কেক কেটেছে, ইফতার করেছি। আবার বাবার জন্মদিনেও একই ঘটনা ঘটেছে।’’

এ দম্পতির বর্তমানে সম্পর্ক কেমন এ প্রশ্নে বুবলীর জবাব, ‘‘আমরা টাইম নিচ্ছি। আমাদের ডিভোর্স হয়নি। একটি দাম্পত্য সম্পর্কে অনেক ভুল-বোঝাবুঝি হয়। শেহজাদকে নিয়ে একা সংগ্রাম করছি। সেখান থেকে সন্তানের বাবা হিসেবে তাকে কখনো অসম্মান করিনি। আমি কখনোই আক্রমণ করিনি, বরং সব সময় কিছু হলে তার জবাব দিয়েছি। আমি চাই বীর সুস্থ পরিবেশে বেড়ে উঠুক। গণমাধ্যমে একটি খবর এসেছিল, শাকিবের বাসা থেকে আমাকে বের করা হয়েছিল। কিন্তু এটা কখনোই ঘটেনি। শাকিবের বাসার সবাই আমাকে সম্মান করে।’’

শাকিব খানের বাসায় অপু ও বুবলীর দেখা হয়েছে কি না প্রসঙ্গে ‘‘প্রহেলিকাঁ’’ অভিনেত্রী বলেন, ‘‘দেখা হয় আমাদের। খুব স্বাভাবিক। যখন দেখা হয়েছে, আমি সর্বোচ্চ সম্মানটা দিতে চেষ্টা করেছি। এ সময় শাকিব খান বাচ্চাদের সঙ্গে খুবই ইতিবাচক থাকে। বীর বড় ভাই হিসেবে জয়কে চেনে। সবাই মিলেই বাচ্চাদের নিয়ে একটি সহযোগিতাপূর্ণ সম্পর্ক থাকে। বাচ্চাদের জন্য একটি সুন্দর পরিবেশ তৈরি করা হয়। জয়-বীর একই স্কুলে পড়ে। বাবা হিসেবে শাকিব চেয়েছেন দুই ভাই যাতে সম-অধিকার নিয়ে বড় হয়। সন্তানেরা সবকিছুর ঊর্ধ্বে। আমি জয়কে খুব ভালোবাসি।’’

অপু বিশ্বাস ও বুবলীর মধ্যে সম্পর্ক ভালো হবে কি না প্রশ্নে তিনি বলেন, ‘‘শাকিব খান একজন ম্যাচিউর মানুষ। এমন তো নয় যে উনি ফিডার খাচ্ছেন। এখানে সবাই সবার জায়গা থেকে খুব চিন্তাভাবনা করে কাজ করে। কারও দাম্পত্য জীবন সুখের হলে সেখানে অন্য কেউ ঢুকতে পারে না। আমার আর শাকিব খানের সম্পর্ক দুজনের সিদ্ধান্তে। অপুর সঙ্গে ভালো সম্পর্কের ব্যাপারে সব সময়ই ওপেন স্পেস দিয়ে রেখেছি। উনি শাকিব খানের প্রশংসা করেন, কিন্তু আমাকে একা দোষারোপ করছেন। শাকিব খান ও আমার চেনাজানা ১০ বছর। এখনো আমাদের একই ফ্রেমে দেখা যাচ্ছে। এটা তো কেউ কাউকে জোর করে করাতে পারে না। আমাকে সর্বোচ্চ বুলিং করা হয় সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে। একটি ছবি পোস্ট করলেও তা নিয়েই গুজব-বিতর্ক-প্রপাগান্ডা ছড়ায়। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমের বিভিন্ন গ্রুপের বিরুদ্ধে আমি আইনি ব্যবস্থা নেব।’’

বর্তমানে ব্যস্ত সময় পার করছেন বুবলী। আসন্ন ঈদে ‘‘দেয়ালের দেশ’’ ও ‘‘মায়া’’ নামে দুটি সিনেমা আসছে তার।

About

Popular Links