Tuesday, May 28, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

ধুলাবালি ও জীবাণু থেকে সুরক্ষা দেবে যেসব মাস্ক

দূষিত বায়ুতে থাকা ক্ষুদ্রাতিক্ষুদ্র কণা আর জীবাণু যেন এখন জীবন ধারণের প্রধান অন্তরায়। এই দূষণ আর জীবাণু এড়িয়ে নিঃশ্বাস নিতে মাস্ক ব্যবহার করা উচিৎ বলে মনে করেন বিশেষজ্ঞরা

আপডেট : ২৯ জানুয়ারি ২০২০, ০৪:৪০ পিএম

গত কয়েক মাস ধরেই পৃথিবীর দূষিত বায়ুর শহরগুলোর মধ্যে ঢাকার অবস্থান প্রথম দিকে। কোনো কোনো দিন পরিস্থিতির সামান্য উন্নতি হলেও তীব্র এই দূষণের মাত্রা কমছে না কিছুতেই। এমন দূষিত পরিবেশে নিঃশ্বাস নেওয়াই যেন দায় হয়ে পড়েছে। 

এরই মধ্যে আবার চীনে ছড়িয়ে পড়েছে মারাত্মক  "করোনাভাইরাস"। বায়ুর মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া এই ভাইরাস ইতোমধ্যে কেড়ে নিয়েছে ১৩২ জন মানুষের প্রাণ। আক্রান্ত হয়েছেন ৫,৯৭৪ জন মানুষ।

দূষিত বায়ুতে থাকা ক্ষুদ্রাতিক্ষুদ্র কণা আর জীবাণু যেন এখন জীবন ধারণের প্রধান অন্তরায়। এই দূষণ আর জীবাণু এড়িয়ে নিঃশ্বাস নিতে মাস্ক ব্যবহার করা উচিৎ বলে মনে করেন বিশেষজ্ঞরা। ঢাকার বায়ু এতটাই দূষিত যে, বাজারে প্রচলিত সাধারণ মাস্ক এই দূষণের কবল থেকে আমাদের ফুসফুসকে সুরক্ষা দিতে পারে না মোটেই।  সাধারণ মাস্ক বাতাসের অতিক্ষুদ্র "পিএম ২.৫" কণাকে প্রতিরোধে সক্ষম নয়। তাই প্রয়োজন বিশেষ ধরনের কিছু মাস্কের। 

"অ্যান্টি-পলিউশন মাস্ক" নামে পরিচিত এই মাস্কগুলো ক্ষেত্রবিশেষে বাতাসে থাকা ক্ষতিকর ক্ষুদ্রকণা ও জীবাণুর ৯৯%পর্যন্ত ঠেকিয়ে দিতে সক্ষম। "ফিল্টার ডিভাইস" সংযুক্ত থাকায় এগুলো সাধারণ কাপড়ের তৈরি মাস্কের চেয়ে অনেক বেশি কার্যকর ও সুরক্ষাদায়ক। 

দূষিত বায়ুতে মাস্ক ব্যবহারের প্রয়োজনীয়তা সম্পর্কে  ভারতের ফরটিস এসকোর্টস হসপিটালের প্রখ্যাত পালমোনলজিস্ট ডা. অঙ্কিত বানসাল বলেন, “অতি দূষিত পরিবেশে চলাচলকারীদের অবশ্যই পিএম ২.৫ কণা প্রতিরোধ করতে পারে এমন মাস্ক ব্যবহার করা উচিত। তবে আপনি যে এলাকায় থাকেন সেখানকার দূষণের মাত্রা কম হলে অপেক্ষাকৃত হালকা ধরনের মাস্ক ব্যবহার করতে পারেন।”

তীব্র দূষণ থেকে সুরক্ষা দিতে সক্ষম এমন কয়েকটি মাস্ক হলো- 

এন৯৯ ও এন১০০ মাস্ক: বিশেষ ধরনের এই মাস্ক দু'টি ৯৯ দশমিক৯৭ শতাংশ পর্যন্ত ক্ষুদ্র কণা ঠেকাতে সক্ষম। এর প্রতিরোধী ক্ষমতা এতই ভাল যে,দশমিক ৩ মাইক্রন আকৃতির কণা ও জীবাণু থেকেআপনাকে শতভাগ সুরক্ষা দেবে। এটির ব্যবহার আপনারফুসফুসকে বাঁচাবে- গাড়ি ও কলকারখানার ধোঁয়ার দূষণ, ধুলিকণা ও গন্ধ থেকে। তবে কারখানার তৈলাক্ত পরিবেশে এরা কাজ করতে পারে না।

এন৯৯

পি৯৫মাস্ক: দূষণ প্রতিরোধে এই মাস্ক অত্যন্ত কার্যকরী। তৈলাক্ত ও অতৈলাক্ত দুই ধরনের পরিবেশের দূষণ প্রতিরোধে চমৎকার কাজ করে এটি। নিঃশ্বাসের সঙ্গে দশমিক ৩ মাইক্রন ও এর থেকে বড় আকৃতির যে কোনো কণার  দেহে প্রবেশ ঠেকাতে এটি ব্যবহার করা যেতে পারে। ফুসফুসকে ৯৫% পর্যন্ত দূষণথেকে বাঁচাবে এটি।

পি৯৫ 

গাড়ি ও কলকারখানার ধোঁয়ার দূষণ, ধুলিকণা, ফুলের রেণু ও গন্ধ থেকে সুরক্ষা দিতে সক্ষম এই মাস্ক। সাধারণ ব্যবহারকারীদের পাশাপাশি যারা মোটরসাইকেল চালানতাদের সুরক্ষার জন্য পি৯৫ চমৎকার কাজ করে। তাই অতি দূষিত এলাকায় বসবাসকারীদের এই মাস্ক ব্যবহারের পরামর্শ দিয়েছেন স্কটল্যান্ডের এডিনবার্গে অবস্থিত ইনস্টিটিউট অব অকুপেশনাল মেডিসিনের গবেষক ড. মিরান্ডা লোহ। 


এয়ারপপ অ্যান্টিপলিউশন মাস্ক: এই মাস্কটি মূলতঃ বিশ্বখ্যাত চীনা প্রতিষ্ঠান শাওমি'র একটি পণ্য। দূষণ রোধে এটিও চমৎকার কাজ করে। এর ভেতরের চার স্তরের ফিল্টার ৯৯ দশমিক ৯৭% দূষণ প্রতিরোধে সক্ষম। এয়ারপপ মাস্কে থাকা বিশেষ ভাল্ব গরম হাওয়া ও বাষ্প ঠিক প্রয়োজন মতো বের করে দিতে পারে।

এয়ারপপ মাস্কএন৯৫ অরা পার্টিকুলেট রেসপিরেটর: পিএম ২.৫ এর মতো অতি ক্ষুদ্র কণা প্রতিরোধে এটিও অতুলনীয়। মাস্ক পরলে যাদের দম বন্ধ লাগার মতো পরিস্থিতি হয় তারা এটি তাদের সুরক্ষায় বিশেষভাবে ডিজাইন করা হয়েছে।

এন৯৫ অরা পার্টিকুলেট রেসপিরেটর



About

Popular Links