Wednesday, May 29, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

যেসব কৌশলে বস আপনাকে দিয়ে করিয়ে নিচ্ছেন বাড়তি কাজ 

অনেক সময় উৎপাদনশীলতা এবং প্রতিষ্ঠানের প্রসারণের জন্য ঊর্ধ্বতন কর্মীরা অধস্তনদের দিয়ে বাড়তি কাজ করিয়ে নেন

আপডেট : ১৩ সেপ্টেম্বর ২০২৩, ০৫:১৭ পিএম

আজকাল সর্বক্ষণ অফিসের কাজের চাপে ডুবে থাকতে হয় অনেককেই। বিশেষ করে কর্পোরেট সেক্টরে তো অফিসের একগাদা কাজের স্তুপে কারও কারও ছুটিও বরবাদ হয়ে যায়। কর্মস্থলের বাড়তি চাপে অনেকেই পরিবার-বন্ধুবান্ধবকেও সময় দিতে পারেন না। এমনকি নিজের দিকেও তাকানোর সময় পান না কেউ কেউ।

অনেক সময় উৎপাদনশীলতা এবং প্রতিষ্ঠানের প্রসারণের জন্য ঊর্ধ্বতন কর্মীরা অধস্তনদের দিয়ে বাড়তি কাজ করিয়ে নেন। তবে মাত্রাতিরিক্ত কাজের চাপ সামলাতে না পেরে অনেকেরই দম আটকে আসার মতো পরিস্থিতি হয়। কিন্তু জীবনধারণের চাপ কিংবা অন্যান্য বাস্তবতায় অনেকেই এগুলো নিয়ে মুখ খোলেন না। 

আপনার কি কখনো মনে হয়েছে, বস কিংবা ওপর মহলের কেউ আপনাকে দিয়ে অতিরিক্ত কাজ করিয়ে নিচ্ছেন? তাহলে দেখে নিন কর্মচারীদের দিয়ে অতিরিক্ত কাজ আদায়ের জন্য বসরা যেসব কৌশল অবলম্বন করতে পারেন-

ওভারটাইমের আলাদা পারিশ্রমিক প্রস্তাব

ওভারটাইম বা অতিরিক্ত সময় কাজ করলে স্বাভাবিকভাবেই কর্মচারীদের শারীরিক ও মানসিক চাপ বাড়বে। তাই নিয়োগকর্তারা ওভারটাইমের জন্য কর্মচারীদের আলাদা পারিশ্রমিকের প্রস্তাব দিয়ে থাকেন। অনেক সময় কর্মচারীদের উৎসাহ দিতেও প্রতিষ্ঠানগুলো এমন করে থাকে।

পারফরম্যান্সভিত্তিক বোনাস

কর্মচারীদের কাজ ও প্রচেষ্টার প্রতি সম্মান জানাতে এবং ভবিষ্যতেও তা অব্যাহত রাখতে প্রতিষ্ঠানগুলো পারফরম্যান্সভিত্তিক বোনাস বা ইনসেনটিভের প্রস্তাব দিতে পারেন। অফিসের অন্যান্য কর্মীদের অনুপ্রাণিত করতেও এমনটা করে থাকে প্রতিষ্ঠানগুলো।

কর্মক্ষেত্রে প্রতিযোগিতামূলক পরিবেশ সৃষ্টি

সবার মধ্যে প্রতিযোগিতামূলক মনোভাব তৈরিতে প্রতিষ্ঠান এবং সংশ্লিষ্ট বিভাগের বসরা কর্মীদের দিয়ে অতিরিক্ত কাজ করিয়ে নেন। কর্মচারীরাও অন্যান্য সহকর্মীদের চেয়ে এক ধাপ এগিয়ে থাকতে এবং ভবিষ্যতের পদোন্নতির প্রত্যাশায় অতিরিক্ত কাজে মনোযোগী হন।

কঠোর পরিশ্রমের স্বীকৃতি

সঠিক ও নিখুঁত কাজ নিশ্চিত করতে স্বভাবতই কর্মচারীদের ওপর বেশ ধকল যায়। ভবিষ্যতেও বাড়তি কাজের ধারাভিকতা বজায় রাখার জন্য অনুপ্রেরণা দিতে এবং অন্যান্যদের একই পথ অনুসরণের জন্য বসরা অধীনস্থ কর্মীদের প্রশংসায় ভাসান; পাশাপাশি দেন উপযুক্ত পুরস্কারও।

প্রতীকী ছবি/পেক্সেলস

নমনীয়তার নিশ্চয়তা

বসদের মধ্যে যারা স্মার্ট, তারা নিজের অধীনস্ত কর্মীদের কাছ থেকে সেরাটা আদায় করে নিতে নমনীয়তার পরিপূর্ণ নিশ্চয়তা দেন। কর্মচারীদের জরুরি প্রয়োজনের সময় অনেক কর্মকর্তাই রিমোটলি (সুবিধাজনক জায়গায় বসে) কাজের কিংবা সময়ের প্রতিবন্ধকতা না থাকার সুযোগ করে দেন। ফলে ভবিষ্যতে বস কখনো বাড়তি কাজ দিলেও কর্মীরা বিনাবাক্যে সেগুলো করে থাকে।

চ্যালেঞ্জিং কাজের প্রস্তাব

কর্মস্থলের অন্যান্যদের চেয়ে এক ধাপ এগিয়ে থাকার অন্যতম চাবিকাঠি হলো গতানুগতিক কাজের বাইরে কোনো চ্যালেঞ্জিং প্রজেক্টে নিজেকে জড়ানো। তাই প্রতিযোগিতার দৌড়ে এগিয়ে থাকতে যেকোনো কর্মীই নিজেকে ব্যতিক্রমী প্রজেক্টে কাজ করতে চান। বসরাও এই সুযোগ কাজে লাগিয়েই কর্মীদের কাছ থেকে বাড়তি শ্রম এবং সময় আদায় করে নেন।

অপরাধবোধ বা মানসিক চাপ প্রয়োগ

কিছু কিছু ক্ষেত্রে অতিরক্ত কাজ আদায়ের জন্য কর্মীদের অপরাধবোধে ভোগাতে পারেন বসরা। কেউ কেউ অধীনস্ত কর্মচারীদের ওপর মানসিক চাপও প্রয়োগ করেন। কিন্তু এতে হিতে বিপরীত হওয়ার সম্ভাবনাই বেশি। মানসিক চাপের কারণে কর্মীদের মনোবলের ওপর নেতিবাচক প্রভাব পড়ে।

মাইক্রোম্যানেজিং

এমন অনেক ম্যানেজার আছেন যারা কর্মীদের তাদের কাজ নিবিড়ভাবে পর্যবেক্ষণ করেন। এক্ষেত্রে কর্মীদের ওপর অতিরিক্ত চাপ সৃষ্টি হতে পারে। প্রত্যাশা অনুযায়ী কাজের মাধ্যমে বসের সন্তুষ্টির জন্য অনেকে বাড়তি সময় কাজ করেন।

প্রতীকী ছবি/পেক্সেলস

About

Popular Links