Wednesday, May 29, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

১৩ বছরে জাবিতে কমেছে অর্ধশতাধিক প্রজাতির প্রজাপতি

২৪ নভেম্বর, শুক্রবার জাবি ক্যাম্পাসে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে প্রজাপতি মেলা

আপডেট : ২২ নভেম্বর ২০২৩, ১১:৩৪ পিএম

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাবি) প্রাণিবিদ্যা বিভাগের অধ্যাপক ড. মনোয়ার হোসেন জানিয়েছেন, একসময় বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে ১১০-টিরও বেশি প্রজাতির প্রজাপতি পাওয়া যেত। সময়ের ব্যবধানে তা কমে প্রায় ৫৭ প্রজাতিতে নেমে এসেছে। সারাদেশে যত প্রজাতির প্রজাপতি পাওয়া যেত তার এক-চতুর্থাংশ পাওয়া যেত এ বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে। আজকে তার পরিমাণ অর্ধেকে এসে ঠেকেছে।

বুধবার (২২ নভেম্বর) এক সংবাদ সম্মেলনে অধ্যাপক ড. মনোয়ার হোসেন এ কথা জানান।

তিনি বলেন, “মানুষের প্রকৃতির প্রতি, প্রজাপতির প্রতি আরও সচেতন হওয়া উচিত। বংশবিস্তারে সহায়ক গাছপালা ও ঝোপঝাড়ের সংখ্যা কমে গেছে। ফলে প্রজাপতির খাবারসহ পোকামাকড় ও ডিম পাড়ার জায়গাও কমে যাচ্ছে। চূড়ান্ত পরিণতি হিসেবে প্রজাপতির প্রজাতির সংখ্যাও কমে যাচ্ছে।”

সে লক্ষ্যেই প্রাণ-প্রকৃতির প্রতি গণসচেতনতা বাড়িয়ে তোলার লক্ষ্যে “উড়লে আকাশে প্রজাপ্রতি, প্রকৃতি পায় নতুন গতি” স্লোগানকে প্রতিপাদ্য করে শুক্রবার (২৪ নভেম্বর) জাবিতে আয়োজিত হতে যাচ্ছে “প্রজাপ্রতি মেলা ২০২৩”। বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণিবিদ্যা বিভাগের কীটতত্ত্ব শাখার আয়োজনে দিনব্যাপী এই মেলা অনুষ্ঠিত হবে।

মেলার আহ্বায়ক অধ্যাপক ড. মনোয়ার হোসেন বলেন, “এ বছর আমরা ত্রয়োদশ প্রজাপতি মেলা উদযাপন করতে যাচ্ছি। দেশের বিভিন্ন প্রান্তের শিশু-কিশোরসহ নানা বয়সের মানুষ প্রতিবার এ মেলা দেখতে আসেন। প্রকৃতিতে প্রজাপতির গুরুত্ব মানুষ এখানে এসে দেখতে ও বুঝতে পারেন। একটা শিশু যখন চোখের সামনে এসব দেখতে পারে তখন প্রজাপতিকে নিয়ে নতুনভাবে ভাবতে শেখে। প্রজাপতি টিকে থাকলে প্রকৃতি টিকে থাকবে। এই মেলায় এসে ইকোসিস্টেমে প্রজাপতির গুরুত্ব জানার মাধ্যমে আমরা সকলে সচেতন হতে পারব।”

এবারের আয়োজনে মেলা প্রাঙ্গণে অস্থায়ীভাবে বিভিন্ন প্রজাতির প্রজাপতি দেখানো হবে। এছাড়া বিশ্ববিদ্যালয়ের বোটানিক্যাল গার্ডেনের ভেতরে জীবন্ত প্রজাপতি দর্শনের ব্যবস্থাও থাকবে।

প্রতি বছরের মতো এবারের মেলায় আরও থাকছে র‍্যালি, শিশু-কিশোরদের জন্য প্রজাপতি বিষয়ক ছবি আঁকা ও কুইজ প্রতিযোগিতা, প্রজাপতি বিষয়ক আলোকচিত্র প্রদর্শনী, প্রজাপতি চেনা প্রতিযোগিতা, প্রজাপতির আদলে ঘুড়ি ওড়ানো প্রতিযোগিতা, বারোয়ারি বিতর্ক প্রতিযোগিতা, প্রজাপতি বিষয়ক ডকুমেন্টারি প্রদর্শনী, পুরস্কার বিতরণ এবং সমাপনী অনুষ্ঠান।

ববন্যপ্রাণী ও প্রজাপতির সংরক্ষণে সার্বিক অবদানের জন্য এ বছরের প্রজাপতি মেলায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণিবিদ্যা বিভাগের অধ্যাপক ড. মো. আনোয়ারুল ইসলামকে “Butterfly Award -2023” ও চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণিবিদ্যা বিভাগের শিক্ষার্থী মো. জহির রায়হানকে “Butterfly Young Enthusiast- 2023” অ্যাওয়ার্ড দেওয়া হবে। এর বাইরেও এবারের আয়োজনে প্রথমবারের মতো থাকছে “মিডিয়া অ্যাওয়ার্ড”।

২০১০ সাল থেকে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রজাপতি সংরক্ষণ ও গণসচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে প্রজাপতি মেলা আয়োজিত হয়ে আসছে।

About

Popular Links