• বৃহস্পতিবার, জুন ২৭, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:৩০ রাত

চালকের সাহসী পদক্ষেপে বাসেই জন্ম হলো শিশুটির!

  • প্রকাশিত ১২:৪৪ দুপুর ডিসেম্বর ২৫, ২০১৮
মায়ের সাথে সদ্য জন্ম নেওয়া শিশুটি
মায়ের সাথে সদ্য জন্ম নেওয়া শিশুটি। ছবি: আনন্দবাজার

‘এক জন মায়ের জন্য এটুকু তো করতেই হবে!’

সোমবার দুপুরে বেলা সাড়ে ১১টার দিকে  অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীকে কলকাতা মেডিক্যাল কলেজের উদ্দেশে রওনা হয়েছিলেন উত্তর হাওড়ার হুগলি জেলার শিবতলার বাসিন্দা নান্টু বর্মা। বাসে ওঠার কিছুক্ষণ পর থেকেই প্রসববেদনা শুরু হয় তার স্ত্রীর। কী করবেন কিছুই যখন বুঝে উঠতে পারছিলেননা সেসময়ই উদ্ধারকর্তা রুপে হাজির হন বাসচালক কমলাকান্ত মান্না। পরিস্থিতির গুরুত্ব বুঝে সিদ্ধান্ত নিয়ে নেন মান্না ।তারই উদ্যোগে ৫৭ এ রুটের বাসটি যেন কিছুক্ষণের জন্য হয়ে উঠেছিল ‘লেবার রুম’।

আনন্দবাজারের প্রতিবেদন অনুযায়ী, বাসটি বেলগাছিয়া মোড়ের কাছে আসতে মান্নার অনুরোধেই, বাসযাত্রীরা সবাই নেমে পড়েন। এরপর তার যাত্রীদের অনুরোধ করেন বাসটি ঘিরে রাখতে। গরম পানি ও নতুন তোয়ালের ব্যবস্থাও করেন যাত্রীরা।ব্যস্ত শহরের রাস্তার এক ধারে দাঁড় করানো বাসটাকে ঘিরে মানুষগুলোর রুদ্ধশ্বাস প্রার্থনা শিশুর কান্নার শব্দে  স্বস্তিতে রূপ নেয়।

তবে ঘটনার শেষ এখানেই নয়, প্রসবের পরই মা ও শিশুকে নিয়ে ওই অবস্থাতেই কমলকান্ত বাস ঘুরিয়ে পৌঁছে গেলেন কাছে থাকা হাসপাতালে। মান্নার ভাষ্যমতে, ‘এক জন মায়ের জন্য এটুকু তো করতেই হবে!’

বাসযাত্রীদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান সদ্য বাবা হওয়া নান্টু। তিনি বলেন, ‘বাস জগদীশপুর পার হওয়ার পরেই আমার স্ত্রী যন্ত্রণায় বেঁকে যাচ্ছিল। কী করব ভেবে পাচ্ছিলাম না। খুব অসহায় লাগছিল।’