• শুক্রবার, এপ্রিল ১০, ২০২০
  • সর্বশেষ আপডেট : ১১:৩২ রাত

মাছ খেলে কমবে রোগ!

  • প্রকাশিত ০১:২৪ দুপুর ডিসেম্বর ১৫, ২০১৯
মাছ
সংগৃহীত

মাছপ্রিয় বাঙালি তার পছন্দের রান্নার তালিকায় মাছকে দেয় রাজকীয় মর্যাদা। মাছ শুধু যে খেতে ভালো তা নয়, এর রয়েছে প্রচুর পুষ্টিগুণ

বাঙালিকে বলাই হয় মাছে-ভাতে বাঙালি। মাছে রয়েছে নানা রোগ প্রতিরোধ করার ক্ষমতা। মাছপ্রিয় বাঙালি তার পছন্দের রান্নার তালিকায় মাছকে দেয় রাজকীয় মর্যাদা। মাছ শুধু যে খেতে ভালো তা নয়, এর রয়েছে প্রচুর পুষ্টিগুণ।

এই প্রাণিজ প্রোটিনে রয়েছে প্রচুর প্রোটিন, লো-ক্যালোরি আর ৯টি অ্যামিনো অ্যাসিড, যা হৃদরোগ, ক্যান্সার, হাড়ক্ষয়, ব্লাড প্রেসার, স্ট্রোক, ডায়াবেটিস রোগের ঝুঁকি কমায়। বিকাশ ঘটায় মস্তিষ্কের, অথচ ক্যালোরি বাড়ায় না। মাছ যেমন পানিতে তাজা তেমনি আপনার শরীর তাজা মাছে। তাই রোজ পাতে মাছ রাখতে পারেন। মাছ মানেই প্রচুর প্রোটিন আর ৯টি অ্যামাইনো অ্যাসিডের সমাহার। প্রোটিন প্রতি কোষে পুষ্টি জোগায়, রক্ত সঞ্চালন ঠিক রাখে, রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়। অন্য প্রাণিজ প্রোটিনের মতো এতে খারাপ ফ্যাট থাকে না। ফলে কোলেস্টেরল বাড়ে না বরং মাছ থেকে মেলে ওমেগা-৩ ফ্যাট, যা হৃদরোগের ঝুঁকি কমায়। এরমধ্যে থাকা ট্রাইগ্লিসারিড কোলেস্টেরল বাড়তে দেয় না। সঙ্গে থাকা ৯টি অ্যাসিড শরীরের রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতা ও স্মরণশক্তি বাড়ায়।

আসুন আমরা জেনে নেই কোন মাছে কী গুণ আছে যা আমাদের স্বাস্থ্যের জন্য উপকারী 

১. ইলিশ মাছ হজম শক্তি বাড়ায়, বায়ু কমায়, পিত্ত ও কফ কমায়।

২. কাতলা মাছ বায়ু পিত্ত ও কফ কমায় কিন্তু শক্তি বাড়ায়।

৩. চিতল মাছ শুক্র ও বল বাড়ায়।

৪. রুই মাছ বাতরোগ থাকলে তা কমায়।

৫. মাগুর মাছ শুক্র, বল ও রক্ত বাড়ায়, রক্তহীন ও পউরানা রোগীদের জন্য ভাল খাবার।

৬. শিং মাছ কফ, মায়ের দুধ ও শক্তি বাড়ায় এবং শরীরের বাত কমায়।

৭. কৈ মাছ শক্তি ও পিত্ত বাড়ায়, বায়ু কমায়।

৮. শোল মাছ পিত্ত ও রক্তের জন্য খুবই উপকারী।

৯. চিংড়ি মাছ রুচি, বল, শুক্র ও কফ বাড়ায়। শরীরের মেদ পিত্ত ও রক্ত দোষে খুবই উপকারী। শীতে পিত্ত বা শরীরে এলার্জি বৃদ্ধি করে।

১০. টেংরা মাছ কফ ও পিত্ত কমায়, শরীরে বল বাড়ায়।

১১. ভেটকি মাছ শরীরের আমবাত উত্‍পন্ন করে, শ্লেষ্মা বাড়ায়, বাত ও পিত্ত কমায়।

১২. পুটি মাছ কফ, বাত, কুষ্ঠ রোগ দূর করে। ঘিয়ে ভাজা পুটি মাছে ধ্বজভঙ্গ রোগে উপকার হয়।