• সোমবার, ফেব্রুয়ারি ১৭, ২০২০
  • সর্বশেষ আপডেট : ১২:৩৮ দুপুর

ধূমপানে ঠোঁটের কালচে ভাব দূর করুন এসব উপায়ে

  • প্রকাশিত ০৮:৪৮ রাত জানুয়ারী ৬, ২০২০
ধূমপান
পিক্সাবে

ধূমপানের অভ্যাসের ফলে ঠোঁট কালো হয়ে গেলে অনেকেই এই কালো দাগে বিব্রত হন। আর এতে আপনাকে দেখতেও কিন্তু ভালো লাগে না!

ধূমপানের অভ্যাসের ফলে শ্বাসনালী বা ফুসফুসের মারাত্মক ক্ষতির সঙ্গে সঙ্গে আরও নানারকম জটিলরোগ শরীরে বাসা বাঁধে। ধূমপানের অভ্যাসের ফলে আরও একটা সমস্যা দেখা দেয়। সেটা হল ঠোঁট কালো হয়ে যাওয়া।

অনেকে ঠোঁটের এই কালো দাগে বড়ই বিব্রত হন। আর আপনাকে দেখতেও কিন্তু ভালো লাগে না। তবে আপনি জানেন কি আপনি ইচ্ছে করলেই ঠোঁটের এই কালো দাগ দূর করতে পারবেন?

আসুন জেনে নেওয়া যাক ঠোঁটের এই কালচে দাগ দূর করার কয়েকটি সহজ ঘরোয়া কৌশল-

১। মধু, চিনি আর বাদামের তেল একসঙ্গে মিশিয়ে নিন। এবার এই মিশ্রণটি নিয়মিত ঠোঁটে মালিশ করুন। এই মিশ্রণ আপনার ঠোঁটের উজ্জ্বলতা বাড়ানোর সঙ্গে সঙ্গে কোমলতাও বাড়াবে।

২। পাতিলেবুর পাতলা একটি টুকরোর ওপরে খানিকটা চিনি ছড়িয়ে দিয়ে প্রতিদিন ঠোঁটে মালিশ করুন। চিনি এখানে স্ক্র্যাবারের কাজ করে। চিনি ঠোঁটের মরা চামড়াগুলোকে ঘষে তুলে দিতে সাহায্য করে আর লেবু ঠোঁটের কালো হয়ে যাওয়া চামড়াকে উজ্জ্বল করতে সাহায্য করে।

৩। পাতিলেবুর রসের সঙ্গে খানিকটা গ্লিসারিন মিশিয়ে প্রতিদিন অন্তত দু’বার করে ঠোঁটে মাখুন। কিছুদিনের মধ্যেই পার্থক্য চোখে পড়বে।

৪। ঠোঁটকে উজ্জ্বল করতে ল্যাক্টিক অ্যাসিড খুব উপকারী। নিয়মিত দুধ খাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে খানিকটা দুধ তুলোয় করে ঠোঁটে ঘষে নিন। শুষ্ক চামড়াকে তুলে ফেলার মাধ্যমে দুধ ঠোঁটের কালো হওয়াকেও প্রতিরোধ করে।

৫। গোলাপের পাপড়িও ঠোঁটের গোলাপিভাব আনতে সাহায্য করে। এজন্য গোলাপের পাপড়ি দুধের মধ্যে রেখে তাতে মধু ও গ্লিসারিন মিশিয়ে নিন। প্রলেপটি ১৫ মিনিট ঠোঁটে মাখুন। এরপর দুধ দিয়ে ঠোঁটকে মুছে নিন। প্রতিদিন এই প্রলেপটির ব্যবহার আপনার ঠোঁটকে করে তুলবে আকর্ষণীয়।

৬। কমলালেবু খাবার সময় এর বিচিগুলোকে সংরক্ষণ করুন এবং নিয়মিত ঠোঁটকে এগুলোর দ্বারা পরিষ্কার করুন।

৭। প্রতিদিন টমেটো পেস্ট করে ঠোঁটে মাখুন। আপনার ঠোঁট হবে উজ্জ্বল। এছাড়া শসার রসও ঠোঁটের কালো হওয়াকে প্রতিরোধ করে। ফলাফল পেতে প্রতিদিন অন্তত ৫ মিনিট শসার রস ঠোঁটে ঘষুন।

৮। ধূমপানজনিত কারণে হওয়া ঠোঁটের কালচে দাগ দূর করতে অবশ্যই ধূমপান ত্যাগ করতে হবে। ধূমপান ত্যাগ করতে না পারলে ঠোঁটে কালো দাগ বারবারই হতে থাকবে।