• শুক্রবার, এপ্রিল ০৩, ২০২০
  • সর্বশেষ আপডেট : ০১:৫৩ দুপুর

মোবাইলের ব্যাটারি ভালো রাখবেন যেভাবে

  • প্রকাশিত ০৮:০৪ রাত জানুয়ারী ২২, ২০২০
মোবাইল
মোবাইল ফোন ব্যবহারের ওপর ব্যাটারির আয়ু অনেকাংশ নির্ভর করে সংগৃহীত

ব্যাটারির চার্জ একেবারে নিঃশেষ করে আবার চার্জ দেওয়া যাবে না। এতে ব্যাটারির আয়ু কমে যায়

মোবাইল ফোনের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ অংশ এর ব্যাটারি। যদি ব্যাটারি সঠিকভাবে চার্জ করা না হয় তাহলে অতি দ্রুত তা নষ্ট হয়ে যেতে পারে। প্রতিটি ব্যাটারির একটি নির্দিষ্ট আয়ু থাকে। ফোন ব্যবহারের ওপর ব্যাটারির আয়ু অনেকাংশ নির্ভর করে। তাই ফোনের ব্যাটারি ভালো রাখার কিছু উপায় জেনে রাখা ভালো।

ফোনে চার্জ রাখুন সবসময়

মোবাইল ফোনে বেশি করে চার্জ রাখুতে হবে। লিথিয়াম আয়ন ব্যাটারিতে অধিকাংশ সময় ৫০ শতাংশ বা তার বেশি চার্জ রাখতে হবে। অর্থাৎ চার্জ ৫০ শতাংশ হয়ে গেলে পুণরায় চার্জে দিতে হবে। এতে করে ব্যাটারি ভালো থাকবে বেশিদিন।

চার্জার ব্যবহারে সতর্কতা থাকুন

যে ফোনের জন্য যে চার্জার নির্ধারিত, সেটাই ব্যবহার করা শ্রেয়। চার্জার সঙ্গে না থাকলে অন্য চার্জার ওই ফোনের জন্য প্রযোজ্য কি না দেখে নিন। নকল চার্জার অবশ্যই ব্যবহার করবেন না।

ফোন কখনো চার্জশূন্য করবেন না

ব্যাটারির চার্জ একেবারে নিঃশেষ করে আবার চার্জ দেওয়া যাবে না। কারণ এতে ব্যাটারির আয়ু কমে যায়। শূন্য থেকে ১০০ পর্যন্ত ব্যাটারি রিচার্জ করাকে “চার্জ সাইকেল” বলে। মাসে একবার চার্জ সাইকেল পূর্ণ করতে পারেন। এতে ব্যাটারির কার্যকারিতা বাড়বে।

সস্তা চার্জার কিনবেন না

ফোনের জন্য নির্ধারিত চার্জারটি হারিয়ে বা নষ্ট হয়ে গেলে অনেকেই বাজার থেকে সস্তা ও অখ্যাত ব্র্যান্ডের চার্জার কেনেন। এসব চার্জারে ফোন অতিরিক্ত গরম হয়ে যায়। চার্জ হতেও সময় বেশি নেয়। আর অ্যাডাপ্টারে সমস্যা দেখা দিলে ফোন ও ব্যাটারি দু’টোই নষ্ট হতে পারে।

ফোন ঠাণ্ডা রাখুন

ফোন যতটা সম্ভব ঠাণ্ডা রাখুন। লি-আয়ন ব্যাটারি বেশি চার্জ হলেও কোনো সমস্যা হয় না। তবে ফোনটি যেখানে চার্জ দিচ্ছেন বা রাখছেন, সে জায়গা যেন অতিরিক্ত গরম না হয় সেদিকে খেয়াল রাখুন। এতে ফোন অতিরিক্ত গরম হতে পারে। ফোন আবার অতিরিক্ত ঠাণ্ডা জায়গায় রাখাও ঠিক নয়। খুব বেশি ঠাণ্ডা বা অতিরিক্ত গরম ব্যাটারির কার্যক্ষমতার ওপর প্রভাব ফেলে।

ব্লুটুথ, ওয়াইফাই বন্ধ করে রাখুন

প্রয়োজনের বাইরে কখনো ব্লুটুথ, ওয়াইফাই চালু করে রাখবেন না। এতে করে ব্যাকগ্রাউন্ডে বা প্রসেসরে বেশি করে শক্তি খরচ হয়। ফলে চার্জ যায় বেশি।

ভাইব্রেশন ও অপ্রয়োজনীয় সাউন্ড বন্ধ রাখুন

প্রয়োজন ছাড়া ফোনের ভাইব্রেশন চালু রাখার কোনো প্রয়োজন নেই। আর বিভিন্ন অ্যাপ বা সেটিংস থেকে অপ্রয়োজনীয় সাউন্ড অফ করে রাখুন। এতে চার্জ কম খরচ হয়।

ফোনের কেস খুলে রাখুন

ফোন চার্জে দেওয়ার সময় ব্যাটারি কিছুটা গরম হয়ে যায়। ব্যাটারি গরমের প্রভাব ফোনে ছড়িয়ে পড়ে। তাই ফোনকে অতিরিক্ত গরমের হাত থেকে রক্ষা করতে চার্জে থাকা অবস্থায় ফোনের ভালোর জন্য কেসিং বা কভার খুলে রাখা উচিত।

সারারাত চার্জ দেবেন না

আমরা অনেকেই রাতেরবেলা ফোন চার্জে দিয়ে ঘুমিয়ে যাই। ফোনটি সারারাত ধরে চার্জ হলে সেটা ওভার চার্জিং হয়ে যায়। ফোনের জন্য এটা খুবই ক্ষতিকর। এছাড়া সারারাত ফোনে চার্জে দেওয়ার ফলে ব্যাটারি অতিরিক্ত গরম হয়ে বিস্ফোরণও ঘটতে পারে।

অ্যানিমেশন বন্ধ রাখুন

আপনি কি জানেন আপনার ফোনের কিছু ফ্ল্যাশি এনিমেশন আপনার ফোনের ব্যাটারি লাইফ কমিয়ে দিতে পারি। আগে এগুলো অফ করা না গেলেও এখন আপনি সেগুলো অফ করতে পারবেন।

কাজ শেষে অ্যাপ বন্ধ রাখুন

বেশিরভাগ সময়ই আমরা কাজের শেষে অ্যাপ বন্ধ না করে মিনিমাইজ করে রাখি। এটি ফোনের চার্জ দ্রুত শেষ হয়। তাছাড়া এমন কিছু অ্যাপ আছে যেগুলোতে বেশি চার্জ লাগে। তাই এগুলো বন্ধ রাখুন।

ব্রাইটনেস কমিয়ে রাখুন

ফোনে সবসময়ই বেশি ব্রাইটনেসের প্রয়োজন হয় না। তাই যখন ব্যবহার করবেন না তখন ব্রাইটনেস কমিয়ে রাখলেই চলে। খুব বেশি ফোন ব্যবহারের সময় ব্রাইটনেস ৫০ শতাংশের এর নিচে রাখা ভালো। এতে চার্জ থাকবে বেশিক্ষণ।