• বৃহস্পতিবার, এপ্রিল ০২, ২০২০
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৯:০৭ সকাল

চোখের যত্নে যেভাবে ব্যবহার করবেন চশমা

  • প্রকাশিত ০২:১৮ দুপুর ফেব্রুয়ারি ৯, ২০২০
চোখ
পিক্সাবে

অনেকেই চশমা খুলে মাথার ওপর রাখেন। এমনটা কয়েকবার করলেই চশমা আলগা হতে শুরু করবে, চুলে জমে থাকা তেল-শ্যাম্পু চশমার কাচের গায়ে জমে লেন্সকে ঝাপসা করে দেবে

চশমা মূলত স্বল্প দৃষ্টিসম্পন্ন মানুষকে ভালোভাবে দেখতে সাহায্য করে। তবে সৌন্দর্যের জন্যও অনেকে চশমা ব্যবহার করতে পারে। প্রাপ্তবয়স্কদের প্রায় ৭৫ শতাংশই দৃষ্টিসমস্যা সংশোধনের জন্য চশমা ব্যবহার করে থাকেন। 

চশমা আর লেন্সের মধ্যে লেন্স অধিক জনপ্রিয় হলেও চশমার ব্যবহারে ইতি টানা যায় না। নিত্যব্যবহার্য পোশাক, ঘড়ি—এসবের সঙ্গে চশমারও যত্ন নেওয়া প্রয়োজন। নিয়মিত যত্ন না নিলে দ্রুত চশমা নষ্ট হয়ে যায়। এছাড়া চশমার ভুল ব্যবহারে চোখের ক্ষতি হয়ে থাকে।

চশমা কতক্ষণ পরতে হয়

অনেক মানুষের একটা ধারণা যে চশমা কিছু সময় পরলে তাদের চোখের পাওয়ার ঠিক হয়ে যাবে। এটা ঠিক নয়, চশমা চোখের পাওয়ার ঠিক করে না কিন্তু দৃষ্টি ঠিক করতে সহায়তা করে। কে কোন চশমা ব্যবহার করবে তা তার সমস্যা, রুচি ও প্রাত্যহিক কাজের ধরনের ওপর এটা নির্ভর করে। কার জন্য কতক্ষণ চশমা পরা উচিত তা চশমা নেওয়ার সময় ডাক্তারের কাছ থেকে ভালো করে জেনে নেওয়া উচিত। কারণ সব চশমার ব্যবহার একরকম নয়, সব চশমা এককাজের জন্যও দেওয়া হয় না।

চশমার ধরন

চশমা বিভিন্ন ধরনের হয়ে থাকে। যেমন, পাওয়ার চশমা, রোদ চশমা ও নিরাপত্তামূলক চশমা।

চশমা ব্যবহার করলেই যে চোখ ভালো হয়ে যায় তা নয়, তবে চশমা ব্যবহারের নিয়ম-কানুন মানলে চোখের আরো ক্ষতি কমানো যায়। এসব নিয়ম মানলে চোখ ভাল থাকে, টেকসই হয় চশমাও।

চোখ ও চশমার যত্নে কী কী করবেন

১. চশমা সবসময় একটি খাপের মধ্যে রাখার চেষ্টা করুন। যখন তখন ব্যাগের মধ্যে কোথায় চশমার বাক্স রেখেছেন তা খুঁজে বের করতে অসুবিধে হলে একটি ফ্লুরোসেন্ট মার্কার বা টেপের টুকরো লাগিয়ে রাখতে পারেন চশমার বাক্সের ওপর। অন্ধকারেও এগুলো জ্বলজ্বল করে। সহজে চোখে পড়ে। নিজের লুকের সঙ্গে মানানসই চশমা কিনুন।

২. চশমা বাছতে সাবধানী হোন। চশমাও কিন্তু লুকেরই অংশ, তাই ঠিক কেমন লাগছে তা নিশ্চিত হয়ে তবেই চশমা কিনুন। রোজ ব্যবহারের চশমা যেন শক্তপোক্ত হয়। অনেকেরই শুধু রিডিং গ্লাসেই কাজ চলে যায়। তেমন হলে চিকিৎসকের সঙ্গে ভাল করে পরামর্শ করে নিন।

৩. প্রতিদিন অন্তত একবার চশমা পরিষ্কার করুন। এটুকু চোখের যত্নের জন্যও খুব প্রয়োজনীয়। হালকা গরমজল ও নরম কোনও সাবান দিয়ে চশমা ধুয়ে নিন। চশমা পরিষ্কারের জন্য যে নরম কাপড়টি দোকান থেকে দেওয়া হয়েছে, তা দিয়ে লেন্সের অংশ মুছে নিন। কড়া সাবান দিয়ে চশমা ধোবেন না। রুক্ষ কাপড়ে চশমার কাচ পরিষ্কার করবেন না। এতে নষ্ট হয় লেন্স।

৪. বাড়তি কয়েক সেট চশমা রাখুন। অফিসের ব্যাগেও অবশ্যই স্পেয়ার চশমা রাখবেন। কোনও কারণে চশমা ভেঙে গেলে বা হারিয়ে গেলে কাজে আসবে তা।

কী কী করবেন না

১. স্টাইলের কারণে অনেকেই চশমা খুলে মাথার ওপর রাখেন। এমনটা কয়েকবার করলেই চশমা আলগা হতে শুরু করবে, চুলে জমে থাকা তেল, শ্যাম্পু চশমার কাচের গায়ে জমে লেন্সকে ঝাপসা করে দেবে।

২. চশমা খুলে যেখানে সেখানে ফেলে রাখবেন না। দুর্ঘটনা এড়াতে এটা মেনে চলাই ভাল।

৩. সানগ্লাসে অবশ্যই পাওয়ার নিন। অনেকেই দৃষ্টিশক্তির খুব অসুবিধা না থাকলে সানগ্লাসে আলাদা করে পাওয়ার করান না। এমন হলে কিন্তু চোখেরই ক্ষতি।