Monday, May 27, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

১৮ হাজার বছর আগের 'কুকুর' নিয়ে রহস্য

উদ্ধার হওয়া ওই শাবকটির নাম রাখা হয়েছে, 'ডোগোর'। রাশিয়ার ওই অঞ্চলের ইয়াকুট ভাষায় যার অর্থ 'বন্ধু'

আপডেট : ০৪ ডিসেম্বর ২০১৯, ১০:১৯ এএম

রাশিয়ার সাইবেরিয়ায অঞ্চলের বরফের মধ্যে ১৮ হাজার বছর আগের একটি প্রাণীর শাবকের মৃতদেহ পাওয়া গেছে। শাবকটি কুকুর, নাকি নেকড়ে, তা গবেষকরা বোঝার চেষ্টা করছেন। 

সংবাদমাধ্যম বিবিসি জানায়, কুকুরের মতো দেখতে ওই প্রাণীটির মৃত্যুর সময় বয়স ছিল দুই মাস। সেটির মরদেহ রাশিয়ার ওই এলাকার ভূগর্ভস্থ চিরহিমায়িত অঞ্চলে প্রায় অক্ষত অবস্থায় টিকে রয়েছে। এমনকি শাবকটির পশম, নাক এবং দাঁত রক্ষা পেয়েছে পঁচনের হাত থেকে। তবে ডিএনএ পরীক্ষা করেও এই প্রাণীটির প্রজাতি নির্ধারণ করা যায়নি।

বিজ্ঞানীরা বলছেন, এর মানে হয়তো এটা হতে পারে যে, এই প্রাণীটি নেকড়ে এবং বর্তমান সময়ের কুকুরের মধ্যে বিবর্তনের একটি যোগসূত্র তুলে ধরছে। রেডিওকার্বন ডেটিং ব্যবহার করে কবে ওই প্রাণীটির মৃত্যু হয়েছে এবং কতদিন ধরে সেটি হিমায়িত হয়ে রয়েছে, সেটি বের করা সম্ভব হয়েছে। সেটি পুরুষজাতীয় বলে গবেষণায় জানা গেছে।

সুইডেনের সেন্টার ফর প্যালায়েজেনেটিকসের গবেষক ডেভ স্ট্যানটন সংবাদমাধ্যম সিএনএনকে বলেছেন, প্রাণীটির ডিএনএ বিশ্লেষণ করেও প্রাণীটির সঠিক প্রজাতি না পাওয়া যায়নি। এটি হয়তো এমন একটি প্রজাতির অংশ ছিল, যা থেকে বর্তমান কুকুর ও নেকড়ে উভয়েই এসেছে।

তিনি আরও বলেন , ''এটি থেকে আমরা অনেক তথ্য সংগ্রহ করেছি এবং এতো তথ্য থেকে আশা করা যায় যে, এটা বলা যাবে যে প্রাণীটি আসলে কী?''

লভ ডালেন নামের ওই সেন্টারের আরেকজন গবেষক টুইটারে লিখেছেন, "এই প্রাণীটি কি একটি নেকড়ে ছানা, নাকি সম্ভবত পৃথিবীতে পাওয়া সবচেয়ে পুরনো কুকুর?"

উদ্ধার হওয়া ওই শাবকটির নাম রাখা হয়েছে, "ডোগোর"। রাশিয়ার ওই অঞ্চলের ইয়াকুট ভাষায় যার অর্থ "বন্ধু"।

২০১৭ সালে প্রকাশিত একটি গবেষণায় ইঙ্গিত দেওয়া হয় যে, কুকুর প্রথম গৃহপালিত হয়ে উঠতে শুরু করে ২০ হাজার থেকে ৪০ হাজার বছর আগে থেকে।


About

Popular Links