• বুধবার, নভেম্বর ১৩, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৭:৩৮ রাত

চার আরব দেশ থেকে পণ্য আমদানি নিষিদ্ধ করলো কাতার

  • প্রকাশিত ০২:৩৫ দুপুর মে ২৭, ২০১৮
ea3177ce82c95c93d06e0f489d-5b0a3d42532ca-1527409822519.jpg
২০১৭ সালে কাতারের উপর অবরোধ আরোপ করে আরব দেশগুলো।

সৌদি আরবের নেতৃত্বে এক বছর আগে কাতারের ওপর অবরোধ আরোপকারী চার আরব দেশ থেকে পণ্য আমদানি নিষিদ্ধ করেছে দোহা। এসব দেশের পণ্য বিক্রিতেও নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে। ফরাসি বার্তা সংস্থা এএফপি জানিয়েছে, শনিবার (২৬ মে) কাতারি কর্তৃপক্ষ আরব দেশগুলোর পণ্যের ওপর এসব নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে।

২০১৭ সালের ৫ জুন সৌদি আরব,সংযুক্ত আরব আমিরাত,বাহরাইন ও মিসর কাতারের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন করে। এতে করে কাতার জল, স্থল ও আকাশপথে অবরুদ্ধ হয়ে পড়ে। দোহার বিরুদ্ধে সন্ত্রাসবাদে সহযোগিতার অভিযোগ এনে সৌদি আরবের নেতৃত্বে এ অবরোধ আরোপ করা হয়। যদিও কাতার এ অভিযোগ অস্বীকার করে আসছে। দোহা কর্তৃপক্ষের অভিযোগ, কাতারে সরকার পরিবর্তনের জন্য আরব দেশগুলো এমন পদক্ষেপ নিয়েছে।

শনিবার (২৬ মে) কাতারের অর্থ মন্ত্রণালয় সৌদি নেতৃত্বাধীন চার দেশের বিরুদ্ধে পাল্টা অবরোধ আরোপ করে। এসব দেশের পণ্য সরিয়ে নিতে দোকানদারদের নির্দেশ দেওয়া হয়। তারা সে নির্দেশ পালন করছে কিনা তা তদারকি করতে পরিদর্শকরা দোকান পরিদর্শন করবেন বলেও মন্ত্রণালয় থেকে জানানো হয়। পাশাপাশি তৃতীয় দেশ হয়ে সৌদি আরবের দুগ্ধজাত কোনও পণ্য যেন কাতারে প্রবেশ না করতে পারে সে ব্যবস্থাও নেওয়ার চেষ্টা করছে সরকার।

উল্লেখ্য, গত বছর সৌদি-নেতৃত্বাধীন দেশগুলো নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের জন্য কাতারকে কয়েকটি শর্ত বেঁধে দিয়েছিল। এসব শর্তের মধ্যে রয়েছে- আল জাজিরা নিউজ চ্যানেল বন্ধ করে দেওয়া, কাতারের মাটি থেকে তুর্কি সেনা বহিষ্কার, ইরানের সঙ্গে সম্পর্ক কমিয়ে আনা এবং মিসরের মুসলিম ব্রাদারহুডের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করা। কিন্তু কাতার এসব দাবির কাছে নতি স্বীকার না করে ঘোষণা করে, আরব দেশগুলো কাতারের সার্বভৌমত্বের ওপর আঘাত হেনেছে।

কাতার আগে খাদ্য আমদানির জন্য উপসাগরীয় দেশগুলোর ওপর নির্ভরশীল ছিল। কিন্তু আরব দেশগুলোর অবরোধ আরোপের পর দেশটি তুরস্ক, মরক্কো ও ইরান থেকে খাদ্য আমদানি শুরু করে।