• সোমবার, জানুয়ারী ২০, ২০২০
  • সর্বশেষ আপডেট : ১২:৪৫ রাত

বিমানের ককপিটে সিগারেট সেবন পাইলটের!

  • প্রকাশিত ১১:৫৩ সকাল জুলাই ১৪, ২০১৮
air-china-1531547587614.jpg
এয়ার চীনের একটি বিমান। ছবি: রয়টার্স

ককপিটে পাইলটের ই-সেগারেট সেবনে মাঝ আকাশে এক ঝটকায় সাড়ে ৬ হাজার মিটারের বেশি নিচে নেমে আসে এয়ার চীনের একটি বিমান। সৌভাগ্যক্রমে কোনো দুর্ঘটনার শিকার হয়নি হংকং থেকে চীনের দালিয়ান গামী বিমানটি।

চীনের সিভিল এভিয়েশন অ্যাডমিনিস্ট্রেশন থেকে তদন্তের প্রেক্ষিতে জানানো হয়েছে, বিমানের কো-পাইলটের ই-সিগারেট পান করছিলেন। তবে কো-পাইলট তা অস্বীকার করেন। 

সিগারেটের ধোঁয়া যাতে যাত্রীদের কেবিনে না যায় সেজন্য একটি ফ্যান বন্ধ করার চেষ্টা করেন; কিন্তু ভুল করে এয়ার কন্ডিশন ইউনিট বন্ধ করে ফেলেন তিনি। ফলে বিমানের কেবিনে অক্সিজেনের মাত্রা বিপজ্জনক মাত্রায় কমে যায় এবং নিরাপত্তা সংকেত বেজে ওঠে। বিপদের আন্দাজ পেয়ে কেবিন-ক্রু’রা সমস্যা বুঝতে পেরে এয়ার কন্ডিশনিং সিস্টেম চালু করে দেয়।

সাধারণত কেবিন প্রেসার কমে গেলে যাত্রী এবং ক্রুদেরকে নিরাপদ অবস্থানে রাখতে বিমানের উচ্চতা নামিয়ে আনতে হয়। বিমান নিচে নামানোর সময় সবাইকে সীটবেল্ট বাঁধতে বলা হয়েছিল বলে জানিয়েছেন যাত্রীরা।

এয়ার চীনের এই ফ্লাইটের ডাটা রেকর্ডার এবং ককপিট ভয়েস রেকর্ডার পরিক্ষা-নিরীক্ষা করে ঘটনার মূল কারণ উদঘাটনের চেষ্টা চলছে।

চীনের আইনগত ভাবে যে কোনো ক্রুদেরই ধূমপান সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ। আর ২০০৬ সাল থেকে যাত্রীদের ই-সিগারেট সেবনেও নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে দেশটির সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ। তবে এই আইন থাকা সত্ত্বেও বিভিন্ন ফ্লাইটগুলোতে পাইলটদের ধূমপানের অভিযোগ প্রায়শই করে কেবিন-ক্রু ও যাত্রীরা।