• বৃহস্পতিবার, ডিসেম্বর ১২, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:১৮ রাত

টুইটারে গালমন্দ করলেন ইলন মাস্ক!

  • প্রকাশিত ১২:০৮ রাত জুলাই ১৭, ২০১৮
elon-musk-tweet-1531764269229.jpg
ক্ষমা চেয়েছেন ইলন মাস্ক। ছবি: সংগৃহীত

আনসর্থ বলেন, তার লোকদেখানো ‘সাবমেরিন’ বরং আমাদের উদ্ধার কাজে বাঁধা সৃষ্টি করছিল'।

থাই কিশোর ফুটবলারদের উদ্ধার অভিযানে সাহায্য করতে চেয়েছিলেন ইলন মাস্ক। আর তাই তার কোম্পানি টেসলা উদ্ধার অভিযান ত্বরান্বিত করতে বানিয়ে ফেলল একটি ছোট সাবমেরিন। কিন্তু তার এই সাবমেরিন উপকারের বদলে বিপদে ফেলতে যাচ্ছিল উদ্ধারকারী ডুবুরীদের।

ডুবুরীদের একজন বেশ করে সমালোচনা করে ইলন মাস্কের সাব-মেরিনকে ‘লোকলোক দেখান কর্মপ্রচেষ্টা’ বলে আখ্যায়িত করেছেন। আর এতেই ভীষণ চটেছেন ইলন! রাগের বশে একদম ‘পেডো’ বলেই গাল পারলেন ব্রিটিশ ডুবুরী ভার্ন আনসর্থকে। 

রোববার ইলন এক আক্রমণাত্মক টুইট করে বসলেন থাই কিশোরদের উদ্ধারকারী ডুবুরীদের একজনকে উদ্দেশ্য করে। 

গেল সপ্তাহে থাই গুহায় প্লাবনে আটকা পড়া ছেলেপুলেদের বাঁচাতে নিয়োজিত উদ্ধারকারীদের একজন ভার্ন আনসর্থ। তিনি একজন ব্রিটিশ নাগরিক এবং আন্তর্জাতিক বিশেষ ডুবুরী দলের একজন। সিএনএনকে দেয়া এক বক্তব্যে তিনি টেসলার ‘সাবমেরিন’-এর সাহায্যকে অহেতুক লোকদেখানো ভণ্ডামি বলে মন্তব্য করেন। 

আনসর্থ বলেন, তার লোকদেখানো ‘সাবমেরিন’ বরং আমাদের উদ্ধার কাজে বাঁধা সৃষ্টি করছিল। ওটা কোন কাজেরই ছিলনা। তার কোন ধারণাই নেই গুহয়ার পথ সম্পর্কে। একটি ৫ ফুট ৬ ইঞ্চির সাবমেরিন অনমনীয় ছিল। ফলে কোনাকোনি ছাড়া গুহার গোল গোল সরু পথ দিয়ে চলার অনুপযোগী ছিল ওটি’। 

আর এর পরেই ভয়ানক ক্ষেপে যান ইলন। 

উল্লেখ্য, উদ্ধার অভিযানের সময় ইলন মাস্ক উদ্ধারকার্যে সাহায্য করার ইচ্ছা প্রকাশ করে একটি টুইট করেন।