• শনিবার, অক্টোবর ২০, ২০১৮
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৩:৩৩ বিকেল

ইউরোপে তাপমাত্রা বেড়ে হতে পারে নতুন রেকর্ড

  • প্রকাশিত ১০:৩৪ সকাল আগস্ট ৩, ২০১৮
heat
ইউরোপে চলছে গরম বায়ু প্রবাহ। ছবি- বিবিসি

ইউরোপের আবহাওয়া সতর্কতা দেওয়া গ্রুপ মেটেওএলার্ম এরইমধ্যে বিপদজনক লাল সতর্কবার্তা জারি করেছে। পর্তুগালের দক্ষিণাঞ্চল ও স্পেনের বাদাজোজ প্রদেশের তাপপ্রবাহকে জীবনের প্রতি হুমকি বলে সতর্কবার্তা দিয়েছে গ্রুপটি।

ইউরোপের আবহাওয়ার পূর্বাভাস বলছে, এবার সেখানে সর্বকালের রেকর্ড ভাঙতে পারে তাপমাত্রা। ইউরোপের আবহাওয়া সতর্কতা দেওয়া গ্রুপ মেটেওএলার্ম এরইমধ্যে বিপদজনক রেড অ্যালার্ট জারি করেছে। ইউরোপে সবচেয়ে বেশি তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছিল ১৯৭৭ সালে গ্রীসের রাজধানী এথেন্সে ৪৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস। 

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি জানিয়েছে, আফ্রিকা থেকে বয়ে আসা গরম বায়ু প্রবাহের কারণে স্পেন ও পর্তুগালে তাপমাত্রা বেড়ে চলেছে।

পূর্বাভাস বলছে, কয়েকটি অঞ্চলে জাতীয় পর্যায়ের রেকর্ড ভেঙে তাপমাত্রা বাড়া অব্যাহত থাকতে পারে। এমনকি ভেঙে যেতে পারে ৪১ বছরের পুরনো ইউরোপীয় রেকর্ড। সর্বোচ্চ তাপমাত্রায় পর্তুগালের রেকর্ড ২০০৩ সালে ওঠা ৪৭ দশমিক ৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস ও গত বছরের জুলাইতে স্পেনের তাপমাত্রা উঠেছিল ৪৭ দশমিক ৩ ডিগ্রি সেলসিয়াসে।

স্পেনের জাতীয় আবহাওয়া সেবা বিভাগ আগামী রবিবার পর্যন্ত দেওয়া সতর্কবার্তায় বলেছে, বিশেষ করে দক্ষিণ পশ্চিমাঞ্চলীয় তাপপ্রবাহ চলতে পারে।

ইউরোপের আবহাওয়া সতর্কতা দেওয়া গ্রুপ মেটেওএলার্ম এরইমধ্যে বিপদজনক লাল সতর্কবার্তা জারি করেছে। পর্তুগালের দক্ষিণাঞ্চল ও স্পেনের বাদাজোজ প্রদেশের তাপপ্রবাহকে জীবনের প্রতি হুমকি বলে সতর্কবার্তা দিয়েছে গ্রুপটি।

মেটেওএলার্ম তাদের সতর্কবার্তায় বলেছে, শুক্র ও শনিবার সত্যিকার রেকর্ড ভাঙার আশঙ্কাসহ  তীব্র গরমের দিন হতে যাচ্ছে। সপ্তাহের শেষ নাগাদ তাপমাত্রা রেকর্ড ভাঙতে পারে বলে সতর্কতা দিয়েছে তারা।

গ্রুপটি বলছে, এথেন্সের ৪৮ ডিগ্রি রেকর্ড ছোঁয়ার আশঙ্কা রয়েছে ৪০ শতাংশ আর ইউরোপীয় রেকর্ড ভেঙে এবার তাপমাত্রার নতুন রেকর্ডে পৌঁছানোর আশঙ্কা রয়েছে ২৫-৩০ শতাংশ।