• বুধবার, ফেব্রুয়ারি ১৯, ২০২০
  • সর্বশেষ আপডেট : ১১:১৫ রাত

কাতারকে বিচ্ছিন্ন দ্বীপ বানাবে সৌদি আরব

  • প্রকাশিত ০২:১৭ দুপুর সেপ্টেম্বর ৯, ২০১৮
কাতারের রাজধানী দোহা
প্রতিবেশী দেশ কাতারকে নিজেদের ভূখণ্ড থেকে বিচ্ছিন্ন করতে চায় সৌদি আরব। ছবিঃ রয়টার্স।

সৌদি আরবের যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের একজন জ্যেষ্ঠ উপদেষ্টা সৌদ আল-কাহতানি টুইট করেছেন, ‘সালওয়া দ্বীপ’ প্রকল্পের বিস্তারিত জানার অপেক্ষায় ব্যাকুল হয়ে আছি। মহৎ ও ঐতিহাসিক এই উদ্যোগ বাস্তবায়িত হলে এই অঞ্চলের ভূগোল বদলে যাবে

প্রতিবেশী দেশ কাতারকে নিজেদের ভূখণ্ড থেকে বিচ্ছিন্ন করতে চায় সৌদি আরব। এ উদ্দেশ্যে দুই দেশের সীমান্তে খাল কাটার পরিকল্পনা নিয়েছে শক্তিধর এই দেশটি। এই পরিকল্পনা বাস্তবায়িত হলে বিচ্ছিন্ন একটি দ্বীপে পরিণত হবে কাতার।

উল্লেখ্য, সাম্প্রতিক সময়ে বিভিন্ন বিষয়ে সৌদি আরবের সাথে কাতারে বিরোধ চলছে। তার ধারাবাহিকতায় কাতারকে কূটনৈতিকভাবে একঘরে করার জন্য বেশ কিছু ব্যবস্থা নিয়েছে সৌদি আরব। তবে এবার খাল কেটে নিজেদের ভূখন্ড থেকে কাতারকে বিচ্ছিন্ন করার জন্য সৌদি আরবের এই অভিনব উদ্যোগ আলোড়ন তৈরি করেছে।   

সৌদি আরবের যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের একজন জ্যেষ্ঠ উপদেষ্টা সৌদ আল-কাহতানি টুইট করেছেন, ‘সালওয়া দ্বীপপ্রকল্পের বিস্তারিত জানার অপেক্ষায় ব্যাকুল হয়ে আছি। মহৎ ও ঐতিহাসিক এই উদ্যোগ বাস্তবায়িত হলে এই অঞ্চলের ভূগোল বদলে যাবে। এএফপি খবরে এসব তথ্য জানানো হয়েছে। 

সৌদি আরব ও কাতারের মধ্যে সীমান্তের দৈর্ঘ্য ৩৭ মাইল। যেখানে ৬৫০ ফুট চওড়া একটি খাল নিজ ভূখন্ডেই খনন করতে চায় সৌদি আরব। ব্রিটিশ গণমাধ্যম টেলিগ্রাফের খবরে এই প্রকল্পে ৫৮০ মিলিয়ন পাউন্ড ব্যয় হবে বলে জানানো হয়েছে।    

এর আগে ২০১৭ সালের জুন মাসে সংযুক্ত আরব আমিরাত, বাহরাইন ও মিসর কাতারের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন করে সৌদি আরবের চাপের মুখে প্রতিবেশী এই দেশের বিরুদ্ধে ইরানের সাথে ঘনিষ্ঠতা, সন্ত্রাসবাদে মদদসহ আরও অনেক অভিযোগ রয়েছে সৌদি আরবের। এমনকি সৌদি কর্তৃপক্ষ এ উদ্দেশ্যে আলজাজিরা টেলিভিশনকে ব্যবহার করার অভিযোগও করেছে কাতারের বিরুদ্ধে। যদিও শুরু থেকেই সব অভিযোগ অস্বীকার করে আসছে ক্ষুদ্র আয়তনের দেশ কাতার।