• বৃহস্পতিবার, নভেম্বর ১৫, ২০১৮
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:৪৯ সকাল

লিবিয়ায় রাষ্ট্রীয় তেল কর্পোরেশনে হামলা

  • প্রকাশিত ০৫:২৮ সন্ধ্যা সেপ্টেম্বর ১০, ২০১৮
Libya
লিবিয়া থেকে ১৫৭ বাংলাদেশীকে দেশে ফিরিয়ে আনা হলো। ছবি: রয়টার্স

শান্তিচুক্তির ঘোষণা আসার পরেও, দেশটিতে আবারও হামলার ঘটনা ঘটলো।

লিবিয়ায় রাষ্ট্রীয় তেল করপোরেশন ভবনে হামলা চালিয়েছে বন্দুকধারীরা। দেশটির রাজধানী ত্রিপোলিতে এ ঘটনা ঘটেছে।    

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির প্রতিবেদনের বরাতে জানা গেছে, হামলার পর ভবনে দায়িত্বরত নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যদের সঙ্গে বন্ধুকযুদ্ধ চলে বন্দুকধারীদের। 

বর্তমানে লিবিয়ায় জাতিসংঘ সমর্থিত মনোনীত সরকার রয়েছে। দেশটির এই কর্তৃপক্ষকে জাতীয় চুক্তির সরকার বা জিএনএ নামে অভিহিত করা হয়। ২০১১ সালে মার্কিন নেতৃত্বাধীন জোটের হামলায় লিবিয়ার সাবেক নেতা মুয়াম্মার গাদ্দাফি ক্ষমতাচ্যুত ও নিহত হন। তার পরপরই দেশটির অধিকাংশ অঞ্চলের নিয়ন্ত্রণ বিভিন্ন বিদ্রোহী গোষ্ঠীগুলোর হাতে চলে যায়। এরপর গত সপ্তাহে লিবিয়ার সশস্ত্র প্রতিপক্ষরা এক শান্তিচুক্তিতে পৌঁছেছে বলে জানায় লিবিয়ায় অবস্থিত জাতিসংঘ মিশন।

কিন্তু শান্তিচুক্তির ঘোষণা আসার পরেও, দেশটিতে আবারও হামলার ঘটনা ঘটলো। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, ভবনে হঠাৎ করেই কয়েকজন বন্দুকধারী প্রবেশ করেন। পরে ভবনের বাইরে থেকে বেশ কয়েকটি বিস্ফোরণ ও গুলির আওয়াজ পাওয়া যায়। হামলার পরপরই তেল কর্পোরেশনের এক কর্মকর্তা জানালা দিয়ে পালিয়ে আসে। তিনি বলেন, তিন থেকে পাঁচজন বন্দুকধারী ভেতরে গুলি চালাচ্ছে। কয়েকজন গুলিবিদ্ধ হয়েছেন।

এদিকে বার্তা সংস্থা রয়টার্সের বরাতে জানা গেছে, রাষ্ট্রীয় তেল কর্পোরেশনের চেয়ারম্যান মুস্তাফা সানাল্লাহকে নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে।