• বুধবার, সেপ্টেম্বর ২৬, ২০১৮
  • সর্বশেষ আপডেট : ০১:২৩ রাত

ভারতে চালু হলো বয়ফ্রেন্ড ভাড়া নেয়ার অ্যাপ!

  • প্রকাশিত ০৭:৪৪ রাত সেপ্টেম্বর ১৪, ২০১৮
‘রেন্ট আ বয়ফ্রেন্ড’ এর উদ্ভাবক ২৯ বছর বয়সী কৌশল প্রকাশ
‘রেন্ট আ বয়ফ্রেন্ড’ এর উদ্ভাবক ২৯ বছর বয়সী কৌশল প্রকাশ। ছবি: ফেসবুক

চীন বা  জাপানের পর এবার পাশের দেশ ভারতও  ভাড়া দিচ্ছে বয়ফ্রেন্ড।

প্রযুক্তি কি না পারে? গাড়ি-বাড়ি ভাড়া দেয়ার দিন শেষে এখন বয়ফ্রেন্ডও পাওয়া যাবে ভাড়ায়। চীন বা  জাপানের পর এবার পাশের দেশ ভারতও বয়ফ্রেন্ড ভাড়া দিচ্ছে অ্যাপ থেকে।

বয়ফ্রেন্ড নেই বলে মন খারাপ করে বসে থাকার দিন শেষ। শুধু একটা অ্যাপ ডাউনলোড করলেই এই হতাশা থেকে পাচ্ছেন মুক্তি নিমিষেই। তাও বয়ফ্রেন্ড ভাড়া  নিয়ে।  ডিপ্রেশন,  ফ্রাস্ট্রেশন সব কিছু কাটিয়ে ফেলুন মুহূর্তেই। 

এমনটাই বললেন ভারতের পরীক্ষামূলকভাবে চালু করা অ্যাপ- ‘রেন্ট আ বয়ফ্রেন্ড’ এর উদ্ভাবক ২৯ বছর বয়সী কৌশল প্রকাশ। “একটা সময় আমি নিজেও গার্লফ্রেন্ড জোগার করতে না পেরে হতাশায় ভুগেছি”, বললেন তিনি। আর এই অভিজ্ঞতা থেকেই তার এই উদ্ভাবন। 

শুক্রবার ভারতের মুম্বাই ও পুণেতে অ্যাপ- আরএবিএফ অর্থাৎ ‘রেন্ট আ বয়ফ্রেন্ড’ এর পরীক্ষামূলকভাবে চালু করার অনুষ্ঠানে কৌশল আরও বলেন, এদেশে বান্ধবী ভাড়া নিন- বললে লোকে শুরুর দিকে ভালোভালে ব্যাপারটাকে নাও নিতে পারে! তাই আপাতত ‘রেন্ট আ বয়ফ্রেন্ড’ দিয়েই শুরু করলাম”।


এই অ্যাপে পাওয়া যাবে ২২ থেক ২৫ বছরের এ গ্রেডেড মডেল। ৬৫ জন সদস্যের এই অ্যাপে ৫৫ বছরের লোকও আছেন। প্রতি ঘণ্টায় সেলেব্রিটি পুরুষদের জন্য ভাড়া দিতে হবে তিন হাজার টাকা। একজন মডেল ভাড়া নেয়া যাবে ঘণ্টায় দুই হাজার টাকায়। এছাড়া মডেল নন এমন পুরুষও ভাড়া পাওয়া যাবে বয়ফ্রেন্ড হিসাবে। ঘন্টায় দিতে হবে মাত্র ৩০০ থেকে ৪০০ টাকা। কমিশন ভিত্তিক এই পদ্ধতিতে এখান থেকে আয়ের শতকরা ৭০ ভাগই দেয়া হবে বয়ফ্রেন্ডদেরকেই।

কৌশল বলছেন, এখানে ঠকবার কোনো জায়গা নেই। আর হ্যাঁ, এখানে কিন্তু যৌনতারও কোনো প্রশ্ন নেই। এটা কোনো সস্তার বাজারচলতি বন্ধুত্বের ঠিকানা নয়। এখানে আপনি বয়ফ্রেন্ড ভাড়া করলেন মানে পাবেন একজন ভালো বন্ধু ।

তিনি আরও বলেন, “আমরা প্রতিটা ছেলেকে রীতিমতো ইন্টারভিউ নিয়ে রিক্রুট করেছি। আপনার বয়ফ্রেন্ড আপনাকে মানসিক দিক থেকে সাপোর্ট দেবে। আপনি কোনো সমস্যায় থাকলে তার থেকে পরামর্শ নিতে পারবেন। মাত্র ক’টা টাকা খরচ করে আপনি শুধু একজন বয়ফ্রেন্ডই নন, পাবেন একজন পরামর্শদাতাও। আমার মনে হয়, আমাদের এই অ্যাপ যে কোনো মেয়েকে হতাশা কাটিয়ে উঠতে সাহায্য করবে”।